Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৭, ১৪ রজব ১৪৪২ হিজরী

কক্সবাজারে মুজিববর্ষ উপলক্ষে জমিসহ নতুন ঘর পাচ্ছেন ৮৬৫ গৃহহীন

কক্সবাজার ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২১ জানুয়ারি, ২০২১, ৩:১৫ পিএম

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে কক্সবাজার জেলায় জমিসহ নতুন ঘর পাচ্ছেন ৮৬৫ হতদরিদ্র গৃহহীন পরিবার। শনিবার (২৩ জানুয়ারি) ৩০৩ গৃহহীন পরিবারকে আনুষ্ঠানিকভাবে নতুন ঘর হস্তান্তর করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) দুপুরে আনুষ্ঠানিক গৃহ প্রদান উপলক্ষে আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে জেলা প্রশাসক মামুনুর রশীদ এ তথ্য জানান।

প্রেসব্রিফিংয়ে জানানো হয়, 'মুজিববর্ষে একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না' প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার এই নির্দেশনা বাস্তবায়নে জেলায় প্রথম ও দ্বিতীয় ধাপে ৮৬৫ গৃহহীনকে জমিসহ বাড়ি উপহার দেয়া হচ্ছে।

এই প্রকল্প বাস্তবায়নে ২ শতাংশ করে জমি ও ১৪ কোটি ৭৯ লাখ ১৪ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে ৩০৩ টি বাড়ি প্রস্তুত হয়েছে। দুই কক্ষবিশিষ্ট প্রতিটি বাড়ির জন্য একটি শোবার ঘর, একটি রান্নার ঘর ও করিডোরসহ বাথরুম নির্মাণে ধরা হয়েছে ১ লাখ ৭১ হাজার টাকা।
শনিবার প্রধানমন্ত্রী আনুষ্ঠানিকভাবে বাড়িগুলো গৃহহীন পরিবার কে হস্তান্তর করবেন। পর্যায়ক্রমে জেলার ১২ হাজার ১২৮ গৃহহীন পাবে জমিসহ নতুন ঘর।

প্রেস ব্রিফিংয়ে আরও জানানো হয়, কক্সবাজার সদর উপজেলায় ১ম ও ২য় ধাপে মোট ৯৬টি ঘরের বরাদ্দ পাওয়া গেছে। এরমধ্যে নির্মিত হয়েছে ২০টি। চকরিয়া উপজেলায় ১৮০টি বরাদ্দের বিপরীতে ৮০টি ঘরের নির্মাণ কাজ, পেকুয়া উপজেলায় ৪৫টি বরাদ্দের বিপরীতে ১৪টি ঘরের নির্মাণ কাজ, রামু উপজেলায় ১৭৫টি বরাদ্দের বিপরীতে ৬০টি ঘরের নির্মাণ কাজ, মহেশখালী উপজেলায় ২০টি বরাদ্দের বিপরীতে ২০টি ঘরের নির্মান কাজ, উখিয়া উপজেলায় ১০০টি বরাদ্দের বিপরীতে ৩৫টি ঘরের নির্মাণ কাজ, টেকনাফ উপজেলায় ২২৯টি বরাদ্দের বিপরীতে ৬০টি ঘরের নির্মাণ কাজ এবং কুতুবদিয়া উপজেলায় ২০টি বরাদ্দের বিপরীতে ১৪টি ঘরের নির্মাণ কাজ সমাপ্ত হয়েছে।

যেসব বাড়ির নির্মাণ কাজ ইতোমধ্যে সমাপ্ত হয়েছে তা শনিবার সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপকারভোগীদের মাঝে (নির্মিত) বাড়িগুলো হস্তান্তর করবেন।
অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো. আমিন আল পারভের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত প্রেস ব্রিফিংয়ে বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক শ্রাবস্তী রায়, সাবেক এমপি জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি অধ্যাপিকা এথিন রাখাইন, কক্সবাজার সদর উপজেলা চেয়ারম্যান কায়সারুল হক জুয়েল, উখিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী ও মহেশখালী উপজেলা চেয়ারম্যান শরীফ বাদশা।

এসময় উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী জহির উদ্দিন আহমদ, এলজিইডি নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আনিসুর রহমান, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী ঋত্বিক চৌধুরী, রেভিনিউ ডেপুটি কালেক্টর মো. মোস্তফা জাবেদ কায়সার ও ডি, আর,আর,ও মো. জাহাঙ্গীর আলম।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ