Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ০৬ মার্চ ২০২১, ২১ ফাল্গুন ১৪২৭, ২১ রজব ১৪৪২ হিজরী

কামরাঙ্গীরচরে বুড়িগঙ্গার পূনঃদখল রোধে বিআইডব্লিউটিএ’র উচ্ছেদ অভিযান সমাপ্ত

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২১ জানুয়ারি, ২০২১, ৭:৩৫ পিএম

রাজধানীর কামরাঙ্গীরচরে বুড়িগঙ্গার পূনঃদখল রোধে বিআইডব্লিউটিএ’র চারদিনব্যাপী উচ্ছেদ অভিযান সমাপ্ত ঘোষনা করা হয়েছে। চারদিনব্যাপী এই উচ্ছেদ অভিযানে আজ বৃহস্পতিবার পাকা, আধাপাকা ও টিনসেডসহ মোট ১৭টি অবৈধ স্থপনা উচ্ছেদ করা হয়। এই সময় দখল হওয়া সরকারী প্রায় ৫০একর তীরভ’মি উদ্ধার করা হয়। উচ্ছেদকৃত স্থাপনাগুলোর মধ্যে ছিলপাঁচতলা পাকা ভবন ১টি,চারতলা পাকা ভবন ১টি, তিনতলা পাকা ভবন ২টি, দোতলা পাকা ভবন ১টি,আধাপাকা ও টিনসেড দোকানঘর ৭টি এবং টংঘর ৫টি। বিআইডব্লিউটিএ’র নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাহবুব জামিলের নেতৃত্বে সকালে কামরাঙ্গীরচরের ঠোটা এলাকা থেকে এই উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয়। এই সময় উপস্থিত ছিলেন বিআইডব্লিউটিএ’র ঢাকা নদী বন্দরের(সদরঘাট) যুগ্ন পরিচালক গুলজার আলী, উপ-পরিচালক এহেতাশামুল হক পারভেজ,সহকারী পরিচালক রেজাউল করিম ও আসাদুজ্জামান প্রমুখ। এই উচ্ছেদ অভিযানে ব্যাপক সংখ্যক আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। গত ১৮ জানুয়ারী কামরাঙ্গীরচরের মুসলিমবাগ হাসলাইল এলাকা থেকে এই উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয়। প্রথমদিন ৫০টি,১৯জানুয়ারী ৮৯টি এবং ২০জানুয়ারী ৭৩টি স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। এই চারদিনে ২২৯টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয় ।
বিআইডব্লিউটিএ’র ঢাকা নদী বন্দরের(সদরঘাট) যুগ্ন পরিচালক গুলজার আলী বলেন,হাইকোর্টের নির্দেশে আমরা কামরাঙ্গীরচরে বুড়িহগঙ্গার তীর পূনঃদখল রোধে চারদিনব্যাপী এই উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করে আজ সমাপ্ত ঘোষনা করা হল। যতই প্রভাবশালী হোক না কেন নদীর জায়গা কেউ যেন অবৈধভাবে দখল না করে ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ