Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ০৫ মার্চ ২০২১, ২০ ফাল্গুন ১৪২৭, ২০ রজব ১৪৪২ হিজরী

লবণের যত গুণ

| প্রকাশের সময় : ২২ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:০৭ এএম

মানবদেহের জন্য অতিপ্রয়োজনীয় একটি খনিজ উপাদান আয়োডিন। দৈহিক বৃদ্ধি বুদ্ধিমত্তার বিকাশে আয়োডিন প্রয়োজন। এটি শরীরে থাইরয়েড হরমোন তৈরিতে সহায়তা করে। দেহে আয়োডিন কম প্রবেশ করলে প্রয়োজনীয় থাইরয়েড হরমোন উৎপন্ন হতে পারে না। আয়োডিনের অভাবে দেহের গলদেশে থাইরয়েড গ্রন্থি ফুলে গলগন্ড রোগ হয়ে থাকে। আঞ্চলিক ভাষায় এটি ‘ঘ্যাগ’ হিসেবেও পরিচিত। এছাড়া স্নায়ুবিক দুর্বলতা, বধিরতা, বাকশক্তিহীনতা, স্বাভাবিকের চেয়ে কম বুদ্ধিমত্তা, শারীরিক বৃদ্ধি ও মস্তিষ্ক গঠন ব্যাহত হওয়া, প্রসূতির বিকলাঙ্গ সন্তান প্রসব প্রভৃতি সমস্যা হয়ে থাকে। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে অনেক উঁচুতে অবস্থিত এলাকার মাটিতে আয়োডিনের পরিমাণ কম থাকে এবং সে এলাকার লোজনের আয়োডিনের অভাবজনিত রোগ বেশি হয়। আয়োডিনের অভাবজনিত রোগ হলে এর সম্পূর্ণ নিরাময় করা কঠিন। সে কারণে এ রোগ প্রতিরোধ নিয়মিত আয়োডিনসমৃদ্ধ খাবার গ্রহণ করতে হবে। সামুদ্রিক মাছ, কডলিভার অয়েল, দুধ, গোশত, আয়োডিন সমৃদ্ধ মাটিতে উৎপন্ন খাদ্যশস্য ও শাকসবজিতে আয়োডিন পাওয়া যায়। অভাব পূরণে আয়োডিনযুক্ত লবণ খেতে হবে।

* দাগ তুলতে : দেহের মরা ত্বক দূর করার কাছে লবণ অনন্য। গোসলের পর কনুই, হাঁটু বা এমনই অন্যান্য শুষ্ক স্থানে লবণ নিয়ে ঘষতে থাকুন। দেখবেন মরা ত্বক চলে যাবে।

*চোখের যত্নে : চোখের ফোলাভাব দূর করতে বিউটিশিয়ানের কাছে যেতে হবে না। বাড়িতে সহজেই কাজটি সারতে পারেন। এক কাপ হাল্কা ঊষ্ণ পানিতে আধা টেবিল চামচ লবণ মিশিয়ে নিন। এই পানিতে একটি নরম কাপড় ভিজিয়ে তা চোখের ওপর দিয়ে রাখুন। ফোলাভাব চলে যাবে।

* ডিম পরীক্ষা : নষ্ট ডিম বের করতে ওস্তাদ লবণ। এক গ্লাস পানিতে দুই টেবিল চামচ লবণ গুলিয়ে নিন। এই লবণখোলা পানিতে ভালো ডিমগুলো ডুবে যাবে। কিন্তু নষ্ট ডিম ভেসে থাকবে।

* বাসন পরিষ্কারে : সিলভারের পাত্র বা চামচে খুব দ্রুত কালচে ভাব চলে আসে। এদের আবার আগের চকচকে রূপ ফিরিয়ে দিতে পারে সোডিয়াম ক্লোরাইড। শুকনো খসখসে কাপড়ে লবণ দিয়ে রূপার জিনিসপত্রে ঘসুন। দেখবেন কালচে ভাব একটুও থাকবে না।

লবণের দারুণ সব ব্যবহার ঃ * লবণে আছে অ্যান্টি-মাইক্রোবিয়াল উপাদান। জীবাণুনাশে বেশ কার্যকর লবণ। লবণ-পানিতে শাকসবজি ধুয়ে ফেলুন জীবাণু চলে যাবে। * রান্নাঘরের সিঙ্কে অনেক ময়লা লেগে থাকে। হাতে কিছু লবণ নিয়ে সিঙ্কে ঘষতে থাকুন। সিঙ্কের যেকোনো ময়লা পরিষ্কার হয়ে যাবে। ঝকঝকে হবে নতুনের মতো।

* আগুন নেভাতে : গ্যারেজে কাজ করতে গেলে প্রায়ই গ্রিজে আগুন লেগে যায়। এই আগুন পানিতে সহজে নেভে না। কিন্তু নিমিষে আগুন নেভে লবণে। আগুনের ওপর লবণ ছিটিয়ে দিন-দেখবেন বিপজ্জনক অবস্থা কেটে গেছে।

* কাঠের ময়লা সাফের কাজও হয় লবণের ব্যবহারে। হাল্কা ঊষ্ণ পানিতে লবণ নিন। একটি কাপড় এই পানিতে ভিজিয়ে কাঠ পরিস্কার করুন। এরপর আবার শুকনো কাপড়ে মুছে ফেলুন আসবাবপত্র।

* পিঁপড়ার অত্যাচার দূর করতে পারেন লবণ। পানি যাওয়ার ড্রেন, রান্নাঘরের এখানে-সেখানে এবং অন্যান্য স্থানে লবণ ছিটিয়ে রাখুন, দেখবেন পিঁপড়া চলে গেছে।

* বাগানের আগাছা পরিষ্কারের কাজেও লবণের জাদুকরী ক্ষমতা রয়েছে। আগাছার ওপর লবণ ছিটিয়ে দিন এবং উপড়ে ফেলুন। এগুলো আর গজাবে না।

* দুধ টাটকা রাখতেও কাজ করে লবণ। অবিশ্বাস্য মনে হলোও দুধ নষ্ট হওয়া রোধ করে এই লবণ।

* জুতা, ক্লোসেট বা তাকের বাজে গন্ধ তাড়াতে পারে লবণ। আলমারির পুরনো গন্ধও দূর করতে পারে।

* শক্ত দাঁত গঠনে লবণের উপকারিতার কথা অনেকেই জানেন। এখন অনেক টুথপেস্টে লবণ রয়েছে বলে বিজ্ঞাপন প্রচারিত হয়। সামান্য পরিমাণ সরিষার তেলে লবণ মিশিয়ে তা দাঁতে ঘষুন। এতে দাঁতের রোগ দূরে থাকবে । দাঁতের স্বাস্থ্যে এই টিপস্ বেশ কাজে লাগবে।

ডা: মাও: লোকমান হেকিম
চিকিৎসক-কলামিস্ট, মোবা : ০১৭১৬২৭০১২০১



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: লবণের যত গুণ

২২ জানুয়ারি, ২০২১
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ