Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১২ ফাল্গুন ১৪২৭, ১২ রজব ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

সুন্দরবনে তিন জেলের রহস্যময় বাঘে ধরা!

সাতক্ষীরা জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২২ জানুয়ারি, ২০২১, ৯:০৬ এএম

সুন্দরবন সাতক্ষীরা রেঞ্জ থেকে দুই জেলেকে বাঘে ধরা ও এক জেলের নিখোঁজ হওয়ার রহস্যময় ঘটনায় উদ্বিগ্ন পরিবারের সদস্যরা।

একই সাথে বনবিভাগের কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধিসহ এলাকাবাসী পড়েছেন টেনসনে।
শুক্রবার (২২ জানুয়ারি) সকালে স্থানীয় জেলে ও বাওয়ালীরা জানান,গত বুধবার শ্যামনগর উপজেলার কৈখালী ইউনিয়নের রতন (৩৫) মিজানুর (৩৯) ও আবু মুছা (৪০) কাঁকড়া ধরতে সুন্দরবনে প্রবেশ করে। বৃহস্পতিবার রাত আটটার দিকে রতনের স্বজনদের কাছে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে আবু মুসা জানায়, বিকালে বনের মধ্যে তালপট্টি এলাকায় খালে কাঁকড়া ধরার সময় রতন ও মিজানুরের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে বাঘ।

এসময় সে দৌঁড়ে বনের ভেতর উঁচু গাছের মগডালে উঠে আত্মরক্ষা করে। তবে গাছের ডালে ঘণ্টাখানেক অপেক্ষা করে নীচে এসে মিজানুর ও রতনকে আর খুঁজে পায়নি আবু মুছা।
তাদের বাঘে ধরেছে এমন খবর পেয়ে নিখোঁজ পরিবারের সদস্যরা নৌকা ও ট্রলার নিয়ে বনের অভ্যন্তরে রাতেই রওনা হয়েছে।

কৈখালী ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রহিম জানান, তিনি রতনের ছোট বোন রত্নার মাধ্যমে জানতে পারেন, তার ভাইসহ আবু মুছাকে বাঘে ধরে নিয়ে গেছে। তারা বনে যাওয়ার জন্য পাশ পারমিট গ্রহণ করেনি। বিষয়টি বন বিভাগকে অবহিত করেছি। রতন পশ্চিম কৈখালী গ্রামের বাঙালের ছেলে ও মিজানুর একই গ্রামের মনু মিস্ত্রির ছেলে। তারা দু’জনেই বিবাহিত।

বনবিভাগের কৈখালী স্টেশন কর্মকর্তা মোবারক হোসেন জানান, রতন ও মিজানুর নামের কোন ব্যক্তি মাছ বা কাঁকড়া ধরার অনুমতি (পাশ) নিয়ে বনে যায়নি। অবৈধভাবে তারা বনে প্রবেশ করে বাঘের আক্রমণে হতাহত হয়েছে কি-না তা তার জানা নেই। এ বিষয়ে খোঁজ খবর নেওয়া হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, গত মঙ্গলবার ও বুধবার বিকেল ৫ টার দিকে দু’টি বাঘ শ্যামনগর উপজেলার বুড়িগোয়ালিনী ইউনিয়নের বিপরীত পাশে সুন্দরবনের চুনা নদীর পাড়ে ঘোরাফেরা করছিলো। বাঘ দু’টি খাদ্যের সন্ধানে লোকালয়ের কাছে আসে। এ বিষয়ে স্থানীয় টাইগার টিমের সদস্যরা ও বন বিভাগ যৌথভাবে বুধবার সন্ধ্যায় মাইকিং করে স্থানীয়দের সতর্ক করে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বাঘ আতঙ্ক
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ