Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ৩০ চৈত্র ১৪২৭, ২৯ শাবান ১৪৪২ হিজরী

জমজমাট প্রচারে প্রতিশ্রুতির বন্যা

পতেঙ্গা-হালিশহর হবে মডেল টাউন : রেজাউল স্মার্ট সিটি হবে বৃহত্তর বাকলিয়া : শাহাদাত

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৩ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:০০ এএম

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের বাকি আর তিনদিন। প্রচারে প্রার্থীদের হাতে মাত্র ৪৮ ঘণ্টা। আর তাই শেষ সময়ে এসে জমজমাট হয়ে উঠেছে ভোটের প্রচার। গতকাল শুক্রবার পবিত্র জুমার নামাজ আদায় করে একযোগে মাঠে নামেন মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা। তারা নামাজের আগে ইমাম, খতিব ও আলেম-ওলামাদের দোয়া চান। অনেকে পিতা-মাতা ও পীর মাশায়েখদের কবর ও মাজার জিয়ারত করেন। নামাজ শেষে দলবল নিয়ে প্রচার অভিযানে নেমে পড়েন প্রার্থীরা। মাইকিং, স্লোগান, পথসভা আর গণসংযোগে মাঘের শীতেও সরগরম হয়ে উঠে চাটগাঁ শহরের অলিগলি। প্রার্থী ও তাদের সর্মথকেরা পাড়া-মহল্লা এবং আবাসিক এলাকা চষে বেড়ান। প্রার্থীদের স্ত্রী, সন্তানরাও নেমে পড়েছেন প্রচারে।

এদিকে মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের প্রতিশ্রুতির বন্যায় ভাসছে দেশের বাণিজ্যিক রাজধানী বন্দরনগরী চট্টগ্রাম। সরকারি দলের মেয়র প্রার্থী এম রেজাউল করিম চৌধুরী উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে নৌকায় ভোট দেওয়ার আহ্বান জানান। তিনি বলছেন, নৌকা উন্নয়নের পক্ষে। আজ শনিবার তিনি তার নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করবেন। অন্যদিকে মাঠের প্রধান বিরোধী দল বিএনপির মেয়র প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন মানুষের ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠায় ধানের শীষে ভোট চান। তিনি বলেন, গণতান্ত্রিক ধারায় ফিরতে ধানের শীষ তথা বিএনপির কোন বিকল্প নেই।
নৌকার প্রার্থী গতকাল নগরীর পতেঙ্গা এলাকায় গণসংযোগ করেন। ধানের শীষের প্রার্থী ব্যস্ত ছিলেন নগরীর বাকলিয়ায়। নগরীর ৪১টি সাধারণ ওয়ার্ডের ৩৯টিতে ভোট হচ্ছে। এক প্রার্থীর মৃত্যুতে একটি ওয়ার্ডে ভোট স্থগিত করা হয়েছে। অপর একটি ওয়ার্ডে একজন মাত্র প্রার্থী হওয়ায় তাকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে। ৩৯টি সাধারণ এবং ১৪টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডসহ ৫৩টি ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থীরা জোর প্রচার অব্যাহত রেখেছেন। বেশ কয়েকটি ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগের একাধিক বিদ্রোহী প্রার্থী থাকায় প্রচারে উত্তাপ বাড়ছে। ঘটছে সংঘাতের ঘটনা। আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মধ্যে সংঘাতের ঘটনা ঘটছে। ষোলশহরে বৃহস্পতিবার রাতে যুবলীগের গণসংযোগে ককটেল হামলার অভিযোগ করা হয়েছে। এজন্য বিএনপিকে দায়ী করা হলেও বিএনপির নেতারা তা অস্বীকার করছে। বুধবার নাসিমন ভবনের বিএনপি কার্যালয়ের সামনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় পুলিশ আরো ছয় বিএনপির কর্মীকে গ্রেফতার করেছে।
বিএনপি অভিযোগ করছে পুলিশ সাজানো মামলায় ধরপাকড় শুরু করেছে। নগরীতে নেতাকর্মী ও সমর্থকদের বাসা বাড়িতে পুলিশ হানা দিয়ে তাদের এলাকা ছাড়তে হুমকি দিচ্ছে। এ অবস্থায় সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য বিএনপির মেয়র প্রার্থী নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েনের দাবি করেছেন। ভোটের প্রচারে মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের বিরুদ্ধে আচরণবিধি ভঙ্গেরও অভিযোগ অব্যাহত আছে।
গতকাল পতেঙ্গা হালিশহরে মডেল টাউন ও বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলার প্রতিশ্রুতি দেন রেজাউল করিম চৌধুরী। ওই এলাকায় তিনি বেশ কয়েকটি পথসভায় বক্তব্য দেন। তিনি বলেন, পতেঙ্গা হালিশহরের কৃষিপণ্য একসময় বেশ সমাদৃত ছিল। জলবায়ু পরিবর্তনে জোয়ারে এলাকার জমি অনেকটা পরিত্যক্ত হয়ে যায়। আউটার রিং রোড নির্মাণ করে এ সমস্যাকে অপার সম্ভাবনায় পরিণত করা হয়েছে। পতেঙ্গা সৈকতের আধুনিকায়ন, আন্তর্জাতিক মানের তারকা হোটেল, পার্ক, খেলার মাঠ, কালচারাল কমপ্লেক্স, স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়, হাসপাতাল, শপিংমল সমৃদ্ধ আবাসিক এলাকা গড়ার মধ্য দিয়ে পর্যটন ও শিল্পভিত্তিক আধুনিক মডেল টাউন হিসেবে গড়ে তোলা হবে। এ সময় নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনসহ নেতারা তার সাথে ছিলেন।
এদিকে বৃহত্তর বাকলিয়াকে আধুনিক স্মার্ট সিটি হিসাবে গড়ে তোলা প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন ডা. শাহাদাত হোসেন। তিনি সেখানে বেশ কয়েকটি পথসভায় বলেন, বাকলিয়ায় আমার বেড়ে উঠা। এই এলাকা বিএনপির ঘাঁটি। বিএনপির আমলে অবহেলিত বাকলিয়ায় ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। মেয়র নির্বাচিত হলে বৃহত্তর বাকলিয়াসহ চট্টগ্রামকে স্মার্ট সিটি হিসেবে গড়ে তোলার প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। নির্বাচন কমিশন ভোটের সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিতে ব্যর্থ হচ্ছে অভিযোগ করে তিনি বলেন, পুলিশ বিএনপির নেতাকর্মীদের অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করছে। তিনি পুলিশবাহিনীকে নিরপেক্ষ ভ‚মিকা পালনের আহ্বান জানান। ডা. শাহাদাত বলেন, ধানের শীষের পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। ২৭ জানুয়ারি নগরবাসী সকল বাধা উপেক্ষা করে সঠিক রায় দেবে। এ সময় তার সাথে ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, হাবিবুন্নবী খান সোহেল, শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি প্রমুখ।
ইসলামী আন্দোলনের মেয়র প্রার্থী জান্নাতুল ইসলাম হাত পাখার সমর্থনে নগরীর ইপিজেড, দেওয়ানহাটসহ কয়েকটি এলাকায় পথসভা করেন। কেন্দ্রীয় ছাত্র ও যুববিষয়ক সম্পাদক মাওলানা সৈয়দ আবুল খায়ের মুহাম্মদ ইসহাকসহ নেতারা তার সাথে ছিলেন। গণসংযোগে ব্যস্ত ছিলেন ইসলামী ফ্রন্টের এম এ মতিন, ইসলামিক ফ্রন্ট প্রার্থী এম ওয়াহেদ মুরাদসহ অন্য মেয়র প্রার্থীরা।
বিএনপির মেয়র প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেনের নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা আজ। দুপুর ১২টায় নগরীর জামালখানের একটি রেস্টুরেন্টে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ইশতেহার ঘোষণা করবেন তিনি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন

১ ফেব্রুয়ারি, ২০২১
২৮ জানুয়ারি, ২০২১
২৭ জানুয়ারি, ২০২১
২৬ জানুয়ারি, ২০২১
২৬ জানুয়ারি, ২০২১
২১ জানুয়ারি, ২০২১
১৯ জানুয়ারি, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ