Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ০৫ মার্চ ২০২১, ২০ ফাল্গুন ১৪২৭, ২০ রজব ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

দেশ লুটেরাদের অভয়ারণ্যে পরিণত হয়েছে- মুফতী সৈয়দ ফয়জুল করীম

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৩ জানুয়ারি, ২০২১, ৮:০৬ পিএম

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর সিনিয়র নায়েবে আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মাদ ফয়জুল করীম বলেছেন, বৃটিশরা এদেশকে দুইশত বছর পর্যন্ত শাসন করে উলামায়ে কেরাম ও ইসলামপন্থিদেরকে রাজনীতিমুক্ত করার তালিম দিয়ে গেছেন। মুসলমানরা হলো সেই জাতি যারা অর্ধজাহান শাসন করে বিশ্বে ইসলামের রোল মডেল স্থাপন করে গেছেন। আজ সেই বীরের জাতিরা রাজনীতিমুক্ত থাকতে পছন্দ করেন। ফলে বিশ্ব নিয়ন্ত্রণ করছে সন্ত্রাস, দুর্নীতিবাজ ও চরিত্রহীনরা। মুসলমানরা যতদিন ইসলামের উপর কায়েম থেকে বাতিল ও আল্লাহদ্রোহী শক্তির মোকাবেলা করেছিলো ততদিন তারা বিশ্ব শাসন করেছে। আর যখনই দুনিয়ালোভী, ক্ষমতালোভীদের কাছে মাথানত করেছে, তখন পদে পদে জুলুম-নির্যাতনের শিকার হয়েছে। তিনি বলেন, প্রকৃত নায়েবে নবীরা ইসলাম প্রতিষ্ঠা তথা ইসলামী রাজনীতি থেকে দূরে থাকতে পারে না।

আজ শনিবার বিকেলে রাজধানীর বাড্ডাস্থ সিরাজ কনভেনশন সেন্টারে ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন ঢাকা মহানগর উত্তর আয়োজিত মহানগর সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। উত্তর সভাপতি মুহাম্মদ আব্দুর রাজ্জাকের সভাপতিত্বে সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন, ইসলামী আন্দোলনের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান, সহকারি মহাসচিব ও উত্তর সভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ, ইশা ছাত্র আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সভাপতি ছাত্রনেতা নূরুল করীশ আকরাম, শিক্ষকনেতা প্রভাষক আব্দুস সবুর।

মুফতী সৈয়দ মুহাম্মাদ ফয়জুল করীম বলেন, ইলামায়ে কেরাম রাজনীতি থেকে দূরে থাকার কারণে দেশ পরিচালনা করছেন চোর, ডাকাত ও লুটেরা। গোটা দেশ এখন লুটেরাদের রাজ্যে পরিণত হয়েছে। তিনি বলেন, আমাদের প্রয়োজনের সময় যারা পেঁয়াজ পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দেয়, তাদের দেয়া উপহার বর্জন করা উচিত। কেননা তার মধ্যে ষড়যন্ত্র থাকতে পারে। হকার্স শ্রমিক আন্দোলন : বৈশ্বিক মহামারি করোনায় লন্ড-ভন্ড জীবন জীবিকার মধ্যেও চাঁদাবাজির মহোৎসব চলছে বলে মন্তব্য করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের অন্যতম সহযোগি সংগঠন হকার্স শ্রমিক আন্দোলনের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। করোনায় সর্বস্ত্র হারিয়ে যখন হকারা ধারদেনা করে যখন পুনরায় ব্যবসা শুরু করেছে, তখনই চাঁদাবাজরা হকারদের উপর শুকুনের মতো ঝাঁপিয়ে পড়ছে। প্রতি দোকান থকে ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা পর্যন্ত চাঁদা নিচ্ছে। চাই বেচাকেনা হোক বা না হোক। চাঁদা দিতে না পারলে হকারদের সন্ত্রাসী কায়দায় জুলুম নির্যাতন করা হয়। ফলে হকারদের কাছে করোনার চেয়ে ভয় চাঁদাবাজদের। নেতৃবৃন্দ বলেন, করোনার ফলে বিভিন্ন শ্রেণি ও পেশার মানুষ কর্মহীন হওয়ায় হকারদের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। এই সুযোগে চাঁদবাজরা আরো বেশি বেপরোয়া হয়ে উঠছে। এভাবেই দুর্নীতি ও চাঁদাবাজরা আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ নয় বটে গাছে পরিণত হচ্ছে।

আজ শনিবার বিকেলে রাজধানীর রূপনগরস্থ একটি মিলনায়তনে হকার্স শ্রমিক আন্দোলন রূপনগর থানার হকার্স সম্মেলনে নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন ইসলামী শ্রমিক আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সেক্রেটারী জেনারেল হাফেজ মাওলানা ছিদ্দিকুর রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন হকার্স শ্রমিক আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সভাপতি মুহাম্মদ ইমাম হোসেন ভূঁইয়া, মহানগর পশ্চিম সভাপতি মাওলানা গোলাম কিবরিয়া, সহ-সভাপতি মুহাম্মদ মনির হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ ইসহাক মিয়া, রূপনগর থানা সভাপতি আলহাজ হারুন অর রশিদ, শ্রমিকনেতা মুহাম্মদ আনসার মল্লিক, মুহাম্মদ আব্বাস আলী। হকার্স শ্রমিক আন্দোলন সহ-সভাপতি আকতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক বেলাল হোসেন-এর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সম্মেলনে সহ-সভাপতি আকতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে এবং সেক্রেটারী বেলাল হোসেন-এর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন শহিদুল ইসলাম, সফিউদ্দিন, ছিদ্দিকুর রহমান, হাফেজ দেলোয়ার হোসেনসহ সহযোগি সংগঠনের স্থানীয় নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। সম্মেলনে হাফেজ দেলেয়ার হোসেনকে সভাপতি এবং বেলাল হোসেনকে সাধারণ সম্পাদক করে ২৩ সদস্যের রূপনগর থানা কমিটি ঘোষণা করা হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ

১৬ জানুয়ারি, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ