Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১৫ ফাল্গুন ১৪২৭, ১৫ রজব ১৪৪২ হিজরী

মালয়েশিয়া শ্রমবাজারে অধিক সংখ্যক রিক্রুটিং এজেন্সির সম্পৃক্ততা চাই

মতবিনিময় সভায় বায়রা নেতৃবৃন্দ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৩ জানুয়ারি, ২০২১, ১১:১৫ পিএম

মালয়েশিয়ার শ্রমবাজারে কোনো সিন্ডিকেট বরদাশত করা হবে না। দেশটির শ্রমবাজার চালু হলে অধিক সংখ্যক বৈধ রিক্রুটিং এজেন্সিকে কর্মী প্রেরণের সুযোগ দিতে হবে। করোনা মহামারির মাঝেও মালয়েশিয়ায় প্রায় ৭ লাখ বাংলাদেশি কর্মী কঠোর পরিশ্রম করে প্রচুর রেমিট্যান্স দেশে পাঠাচ্ছে। মধ্যপ্রাচ্যের সংযুক্ত আরব আমিরাত ও কাতারেও ব্যাপক হারে কর্মী নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হবে। উল্লেখিত দেশ দু’টিতে যাবে সকল বৈধ রিক্রুটিং এজেন্সিগুলো স্বল্প অভিবাসন ব্যয়ে কর্মী প্রেরণের সুযোগ পায় তা’ নিশ্চিত করতে হবে।

আজ শনিবার রাতে বনানীস্থ সেতুবন্ধন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমবায় সমিতি লিমিটেডের উদ্যোগে মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার সম্পর্কিত মতবিনিয়ম সভায় নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন। নিউ এজ রিক্রুটিং এজেন্সির স্বত্বাধিকারী শওকত হোসেন সিকদারের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বায়রার সাবেক মহাসচিব রুহুল আমিন স্বপন। এতে আরো বক্তব্য রাখেন বনানী সেতুবন্ধন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমবায় সমিতি লিমিটেডের সভাপতি ও ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল রিক্রুটিং এজেন্সির স্বত্বাধিকারী আনোয়ার হোসেন মধুর বায়রার সাবেক যুগ্ম মহাসচিব আলহাজ আবুল বাশার, তাজ মো. মোস্তফা, রফিকুল হায়দার ভূঁইয়া, মো. আব্দুল কাদের, মো. ফজলুল হক , মহসিন আকন্দ ও এম এ কাসেম।

বায়রার সাবেক নেতা রুহুল আমিন স্বপন বলেন, মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি কর্মীদের প্রচুর চাহিদা রয়েছে। উভয় দেশের সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ীই স্বল্প অভিবাসন ব্যয়ে কর্মী প্রেরণের সুযোগ নিশ্চিত করতে হবে। তিনি বলেন, দেশটির শ্রমবাজার উন্মুক্ত হলে স্বল্প সংখ্যক এজেন্সি নয়; অধিকাংশ রিক্রুটিং এজেন্সিকে কর্মী প্রেরণের সুযোগ দিতে হবে। সভায় নেতৃবৃন্দ ঢাকাস্থ সউদী দূতাবাসের নানা প্রকার কঠিন শর্তাবলী শিথিল করার জোর দাবি জানানো হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বায়রা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ