Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ০৩ মার্চ ২০২১, ১৮ ফাল্গুন ১৪২৭, ১৮ রজব ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

বাংলাদেশে এডুকেশন ইউএসএ’র পরামর্শ সেবা

কূটনৈতিক সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:০০ এএম

বাংলাদেশে এডুকেশন-ইউএসএ’র পরামর্শ সেবা এবং তথ্য সারাদেশের যেসকল স্থানে পাওয়া যাবে সেগুলোর মধ্যে রয়েছে ঢাকার বারিধারায় অবস্থিত যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের আমেরিকান সেন্টার, ধানমন্ডির এডওয়ার্ড এম. কেনেডি সেন্টার ফর পাবলিক সার্ভিস অ্যান্ড দি আর্টস, চট্টগ্রামের আমেরিকান কর্নার এবং খুলনার আমেরিকান কর্নারে।

গতকাল সোমবার ঢাকাস্থ মার্কিন দূতাবাস এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব জানিয়েছে। এসব স্থানে প্রশিক্ষিত পরামর্শকেরা তথ্য প্রদানের জন্য দলীয় সেশন পরিচালনা করবেন এবং শিক্ষার্থী ও তাদের মাতা-পিতাদের জন্য পৃথক পরামর্শ সেবা প্রদান করবেন। এডুকেশন-ইউএসএ’র তথ্য ও বই-পত্র এবং দূর-পরামর্শ সেবা সিলেট ও রাজশাহীর আমেরিকান কর্নার থেকেও পাওয়া যাবে। এদিকে বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল মিলার ২০২১ সালের বসন্ত সেশনে যুক্তরাষ্ট্রের কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে অধ্যয়নের জন্য গমনেচ্ছু শিক্ষার্থীদেরকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।
রাষ্ট্রদূত মিলার ও ঢাকাস্থ যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের এডুকেশন-ইউএসএ দল গত রোববার বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য ভার্চুয়াল জুম মাধ্যমে একটি যাত্রাপূর্ব পরিচিতি পর্ব অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন। রাষ্ট্রদূত মিলার তার বক্তব্যে শিক্ষার্থীদেরকে তাদের নিজেদের ওপর আস্থা রাখতে এবং সৃষ্টিশীল, প্রাতিষ্ঠানিক, পেশাগত ও ব্যক্তিগত বিকাশ সাধনের এই রোমাঞ্চকর অভিযানে যুক্ত হওয়ার প্রস্তুতির জন্য নিঃসঙ্কোচে অন্যদের সহায়তা নিতে উৎসাহিত করেন। সফলভাবে একটি প্রতিযোগিতামূলক ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার পর এই শিক্ষার্থীরা সারা আমেরিকা জুড়ে বিভিন্ন কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে যুক্ত হবেন। এ অনুষ্ঠানে আরো দেন যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের কনস্যুলার সেকশন এবং এডুকেশন-ইউএসএ’র প্রতিনিধি, যুক্তরাষ্ট্রের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে বিদেশী শিক্ষার্থী ভর্তি বিষয়ক কর্মকর্তাগণ, বর্তমান শিক্ষার্থীরা এবং আমেরিকান অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন’র প্রেসিডেন্ট। যুক্তরাষ্ট্রে পড়তে গিয়ে শিক্ষার্থীরা সম্ভাব্য যেসব প্রাতিষ্ঠানিক, সাংস্কৃতিক ও জীবনযাত্রার পার্থক্য প্রত্যক্ষ করবেন সে সম্পর্কে ব্যবহারিক পরামর্শ ও বিচিত্র দৃষ্টিভঙ্গি তুলে ধরেন বক্তারা। অধ্যয়ন ও শিক্ষাদানের ক্ষেত্রে কোভিড-১৯ যেসব নতুন চ্যালেঞ্জ সৃষ্টি করেছে সেগুলো বিশেষ গুরুত্ব সহকারে উঠে এসেছে আলোচনায়। রাষ্ট্রদূত মিলার তার স্বাগত বক্তব্যের শেষে শিক্ষার্থীদেরকে তাদের সামনের অদৃশ্য প্রতিবন্ধকতা অতিক্রমে সচেষ্ট হতে এবং সহায়ক জনগোষ্ঠী গড়ে তোলার লক্ষ্যে অর্থবহ সম্পর্ক স্থাপনে উৎসাহিত করেন। যুক্তরাষ্ট্রগামী বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের সংখ্যা ২০০৯ সাল থেকে তিনগুণ হয়েছে এবং গতবছর নতুন করে এযাবৎ কালের সর্বোচ্চ অবস্থানে পৌঁছেছে। এসকল বহির্গামী শিক্ষার্থী গত শিক্ষাবর্ষে যুক্তরাষ্ট্রে অধ্যয়নরত ৮৮০০ বাংলাদেশী শিক্ষার্থীর সাথে যুক্ত হবেন।
এই শিক্ষার্থীরা সারা বাংলাদেশের সম্ভাবনাময় ছাত্র-ছাত্রীদের কাছে অনুকরণীয় আদর্শ বিধায় এডুকেশন-ইউএসএ দল তাদেরকে অন্যদের সাথে যোগাযোগ রাখতে এবং যুক্তরাষ্ট্রের উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে আবেদন ও অধ্যয়নের অভিজ্ঞতা বিনিময়ের তাগিদ দিয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ