Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ২৩ ফাল্গুন ১৪২৭, ২৩ রজব ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

শেষ বিকেলে অস্বস্তিতে পাকিস্তান

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১, ৯:০৫ পিএম

করাচি টেস্টের প্রথমদিনটা হয়ে থাকলো বোলারদের। দিনের ১৪ উইকেটের ১০টি পড়লো সফরকারী দক্ষিণ আফ্রিকার এবং স্বাগতিক পাকিস্তানের ৪টি।

দিনের শুরুতে অবশ্য ব্যাটসম্যানরা আভাস দিয়েছিলেন বড় ইনিংস খেলার। মঙ্গলবার (২৬ জানুয়ারি) করাচির জাতীয় স্টেডিয়ামে সিরিজের প্রথম টেস্টে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা ভালোই করেছিলেন দুই প্রোটিয়া ওপেনার ডিন এলগার ও এইডেন মার্করাম।

দু’জনের ৩০ রানের জুটি ভাঙেন শাহীন আফ্রিদি। ইমরান বাটের হাতে বন্দী হয়ে ফেরেন মার্করাম (১৩)। এরপর আর কেউ বড় অঙ্কের স্কোর করতে পারেননি। রসি ফন ডার ডুসেন (১৭), ফাফ ডু প্লেসিস, অধিনায়ক কুইন্টন ডি কক (১৫) সেট হয়েও দ্রুত উইকেট বিসর্জন দিয়ে আসেন।

তাদের মধ্যে কেবল ব্যতিক্রম ছিলেন এলগার। প্রোটিয়া ওপেনার অভিষেক টেস্ট খেলতে নামা নাওমান আলীর বলে সাজঘরে ফেরার আগে ১০৬ বলে ৯ চারে করেন ৫৮ রান। তার বিদায়ের পরপর আবারও ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে দ.আফ্রিকা।

টেম্বা বাভুমা (১৭), জর্জ লিন্ডে (৩৫), কেশব মহারাজ (০), এনরিখ নর্তশে (০), লুঙ্গি এনগিদি (৮) দ্রুত আউট হয়ে গেলে ১৪ বছর পর পাকিস্তান সফরে যাওয়া প্রোটিয়াদের প্রথম ইনিংস থামে ২২০ রানে। ২১ রানে অপরাজিত ছিলেন কাগিসো রাবাদা।

পাকিস্তানের হয়ে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নেন ইয়াসির শাহ। আফ্রিদি ও নওমান দু’টি করে উইকেট ভাগাভাগি করেন।

সফরকারীদের দ্রুত অলআউট করার সুখস্মৃতি নিয়ে প্রথম ইনিংস শুরু করেছিল পাকিস্তানও। কিন্তু দিনটা যে বোলারদের! দিন শেষ করার আগে স্কোরবোর্ডে ৩৩ রান জমা করতেই ৪ উইকেট নেই তাদের।

শুরুতেই জোড়া আঘাত হানেন রাবাদা। দুই ওপেনার আবিদ আলী (৪) ও ইমরান বাটকে (৯) ফেরান তিনি। এরপর মহারাজ ফেরান অধিনায়ক বাবর আজমকে (৭)। শুরুর ধাক্কা সামাল দেওয়ার আগে নর্তশের বলে বোল্ড আফ্রিদি (০))। আগামীকাল ১৮৭ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় দিন শুরু করবেন আজহার আলী (৫) ও ফাওয়াদ আলম (৫)।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ক্রিকেট

৪ মার্চ, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন