Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ২৩ ফাল্গুন ১৪২৭, ২৩ রজব ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

মিথ্যাচার করছে একরাম চৌধুরী এমপি : কোম্পানীগঞ্জে আবদুল কাদের মির্জা

কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) উপজেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:০১ এএম

নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার নব-নির্বাচিত মেয়র আবদুল কাদের মির্জা একরাম চৌধুরীকে উদ্দেশ্যে করে বলেছেন, আমি যখন অপরাজনীতি বন্ধের কথা বলি, টেন্ডারবাজির বিরুদ্ধে কথা বলি, চাকরি বাণিজ্যের বিরুদ্ধে কথা বলি, প্রশাসনের অনিয়মের কথা বলি, সে কোন পথ না দেখে বলে চিকিৎসার দরকার। সে যতই ছলচাতুরি করুক না কেন তাকে নোয়াখালী আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে বিদায় নিতে হবে। কাদের মির্জা গতকাল মঙ্গলবার বসুরহাট পৌরসভার নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সাথে এসব কথা বলেন।
তিনি আরও বলেন, সে নোয়াখালীতে ২৫ টা মায়ের বুক খালি করেছে। নোয়াখালীতে ত্যাগী নেতাকর্মীদের সমাবেশ করার কথা ছিল, কিন্তু একরাম চৌধুরী ডিসিকে দিয়ে বন্ধ করে দিয়েছে। সমাবেশ হলে সে বুঝতে পারত তার নোয়াখালীতে কি রকম জনপ্রিয়তা। সে গৃহপালিত প্রশাসনকে দিয়ে এ সমাবেশ বন্ধ করে দিয়েছে। সমাবেশ স্থলে ১৪৪ ধারা জারি করেছে। আমার বক্তব্য স্পষ্ট এ অপরাজনীতি বন্ধ করতে না পারলে পরবর্তীতে নোয়াখালীতে আবার ভোট ডাকাতি করে জিততে হবে, নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না, আমি সুষ্ঠু নির্বাচন চাই, জননেত্রী শেখ হাসিনা পারে সুষ্ঠু নির্বাচন দিতে। এবার কোম্পানীগঞ্জে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনসহ সব নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে।
তিনি একরামুল করিম চৌধুরীর বক্তব্যের প্রসঙ্গে বলেন, নিজের অপকর্ম ঢাকার জন্য সে মিথ্যাচার করছে। মিথ্যাচার করা তার অভ্যাস, একরাম চৌধুরীর পূণাঙ্গ কমিটি এলে তাকে (মির্জাকে) বহিষ্কার করা হবে প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমি কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আ.লীগের সদস্য হয়ে থাকতে চাই জেলা কমিটিতে থাকবনা। সে আমাকে কিসের বহিষ্কার করবে। সে নিজেই কমিটিতে থাকবে না। সে বলেছে আমি অপরাজনীতি করেছি, টেন্ডারবাজি করেছি, চাকরি বাণিজ্য করেছি, অস্ত্র বাণিজ্য করেছি। তাকে জনগণের কাছে ক্ষমা চাইতে হবে। ক্ষমা না চাইলে, যতক্ষণ পর্যন্ত ত্যাগী নেতাকর্মীদের মূল্যায়ন না করা হবে, নিজে প্রভাব খাটিয়ে কমিটি গঠন না করবে, ততক্ষণ পর্যন্ত আমার শরীরের শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে তার পতনের আন্দোলন চালিয়ে যাব। একরাম চৌধুরী গতকাল রাতে একটি টিভি সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, ১৬ জানুয়ারি বসুরহাট পৌরসভা নির্বাচনে কেন্দ্রগুলোতে ভোরবেলা বিপুল সংখ্যক মহিলা এনে আবদুল কাদের মির্জা জাল ভোট দিয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। এ প্রসঙ্গে আবদুল কাদের মির্জা বলেন, আপনারা মিডিয়ার ভাইয়েরা, আমার প্রতিদ্বন্দী প্রার্থীরাসহ সারা পৃথিবীর সবাই বলেছেন এ নির্বাচন ইতিহাসে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হয়েছে। একরাম তার নিজের অনিয়ম, অপরাজনীতি ও দুর্নীতি ঢাকার জন্য এসব প্রভাগান্ডা ছড়াচ্ছেন। মির্জা কাদের বলেন, আল্লাহকে স্মরণ কর, প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হও। এ শ্লোগানকে সামনে রেখে এগিয়ে যেতে হবে।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: একরাম চৌধুরী এমপি
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ