Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ০৮ আগস্ট ২০২০, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৭ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

‘সমাধান’ চান ফিফা প্রেসিডেন্ট

প্রকাশের সময় : ২৯ আগস্ট, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্পোর্টস ডেস্ক : অলিম্পিক ফুটবলের নিয়ম-কানুন অনেকের কাছেই বেশ গোলমেলে। অনেকে তো ঠিক বুঝেও উঠতে পারেন না কোন নিয়মে চলে এই টুর্নামেন্ট। এটাকে ‘স্পর্শকাতর বিষয়’ উল্লেখ করে এই সমস্যার সমাধান চান স্বয়ং ফিফা প্রেসিডেন্ট জিয়ান্নি ইনফান্তিনো। অলিম্পিকে নারী ফুটবল অন্তর্ভুক্তি ইতিবাচক হলেও এখনো সমস্যা রয়ে গেছে বলে মনে করেন বিশ্ব ফুটবলের এই কর্তাব্যক্তি।
অলিম্পিকে নারী ফুটবলের যাত্রা শুরু ১৯৯৬ সাল থেকে। যেখানে পুরুষ ফুটবল অনুপস্থিত ছিল মাত্র দুই আসরে, আধুনিক অলিম্পিক যাত্রার প্রথম আসর অর্থাৎ ১৮৯৬ সালে এবং ১৯৩২ সালে। নিয়ম অনুযায়ী প্রাথমিকভাবে অলিম্পিকের পুরুষ বিভাগে অনূর্ধ্ব-২৩ দল খেলে থাকে। তবে কোচের ইচ্ছানুযায়ী তিনজন বয়স্ক খেলোয়াড়ও খেলার সুযোগ পায়। অর্থাৎ একটি দেশকে প্রতিনিধিত্ব করছে না যুবদল, না জাতীয় দল। এই ব্যাপারটাই ইনফান্তিনোর কাছে গোলমেলে। তিনি বলেন, ‘পুরুষ বিভাগটা, যেখানে প্রাথমিকভাবে অনূর্ধ্ব-২৩ দলের সাথে কিছু বয়স্ক খেলোয়াড়ও খেলে থাকে, এটা ভালো কোন সমাধান নয়। এই পর্বের টুর্নামেন্টটা মাছও না পাখিও না। এছাড়া পুরো টুর্নামেন্টটাও শেষ হয় অনেক আটোসাটোভাবে।’
রিও ২০১৬ অলিম্পিকে পুরুষ বিভাগে জার্মানিকে হারিয়ে নিজেদের ইতিহাসে প্রথম স্বর্ণ জেতে ব্রাজিল। ঐতিয্যবাহী মারাকানা স্টেডিয়ামে তাদের প্রতিপক্ষ ছিল জার্মানি। তবে নারী বিভাগে সুইডেনকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব গায়ে মাখে জার্মানি নারীরা। পুরুষ বিভাগে এবার অংশ নেয় ১৬টি দল, নারী বিভাগে সেখানে মোট দল ছিল ১২টি।
অলিম্পিক আসরকে কেন্দ্র করে আরো একটি সমস্যার কারণ হল খেলোয়াড়দের স্ব-স্ব ক্লাব। নিজেদের সার্থে দেশের হয়ে খেলোয়াড়দের খেলার পথে অনেক সময় বাধা হয়ে দাঁড়ায় ক্লাবগুলো। এবারের অলিম্পিক আসর শুরু হওয়ার আগে আর্জেন্টিনার পাওলো দিবালাকে দলে অন্তর্ভুক্তি নিয়ে যেমন কম নাটক হয়নি। শেষ পর্যন্ত ইতালিয়ান ক্লাব জুভেন্টাস নিজেদের স্বার্থের কথা বিবেচনা করে দেশের হয়ে খেলার ছাড়পত্র দেননি দিবালাকে। ক্লাবগুলো অবশ্য সবকিছু আইন মেনেই করে। এরপরও তো কিছু কথা থেকেই যায়। ক্লাবের কারণে কেন দেশের হয়ে খেলা থেকে একজন খেলোয়াড় বঞ্চিত হবেন। সার্বিক বিষয়টা বেশ ভাবিয়ে তুলেছে ফিফার নতুন সভাপতিকে। দেখা যাক তিনি কি সমাধানে পৌঁছান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ‘সমাধান’ চান ফিফা প্রেসিডেন্ট
আরও পড়ুন