Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫, ১৪ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

বঙ্গবন্ধুর মন্ত্রিসভার কিছু সদস্যরা ‘কাপুরুষ’ ছিলেন : খাদ্যমন্ত্রী

প্রকাশের সময় : ২৯ আগস্ট, ২০১৬, ১২:০০ এএম | আপডেট : ১:১৩ এএম, ২৯ আগস্ট, ২০১৬

স্টাফ রিপোর্টার 
বঙ্গবন্ধুর মন্ত্রীসভার সদস্য কাপুরুষ ছিলেন বলে মন্তব্য করে খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম পঁঁচাত্তরের ১৫ আগস্টের কথা তুলে ধরে বলেন, আমরা সে দিন প্রতিরোধ করতে পারি নাই। তাই ফখরুল ইসলাম আলমগীর কথা বলার সুযোগ পান। আমি বঙ্গবন্ধু হত্যা বিচারের একজন প্রসিকিউটর হিসেবে বলবো, বঙ্গবন্ধুর মন্ত্রীসভার কিছু সদস্য কাপুরুষ। তবে বঙ্গবন্ধুর হত্যাকা-ে তারা জড়িত নয়। 
গতকাল রোববার দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডি প্রিয়াঙ্কা কমিউনিটি সেন্টারে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ আয়োজিত এক বর্ধিত সভায় তিনি এসব কথা বলেন। ৩০ আগস্ট ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগ আয়োজিত শোক দিবসের আলোচনা সভার প্রস্তুতি হিসেবে এ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়।
কামরুল ইসলাম বলেন, সে সময় সেনা, বিমান, নৌ-বাহিনী, পুলিশ ও বিডিআর নপুংশককের মতো খুনিদের পক্ষ অবলম্বন করেছেন। মন্ত্রীসভার কিছু সদস্য একইভাবে খুনি মোশতাকের পক্ষ অবলম্বন করেছিল। বঙ্গবন্ধুর মন্ত্রীসভার কিছু সদস্য হত্যাকা-ে জড়িত নয়। বঙ্গবন্ধু হত্যার নেপথ্যের নায়ক জিয়াউর রহমান। 
‘বঙ্গবন্ধু হত্যাকা-ের সঙ্গে আওয়ামী লীগের মন্ত্রীসভার সদস্যরা জড়িত’ বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে কামরুল বলেন, জাতির জনক হত্যার মূল হোতা জিয়াউর রহমান। মামলার সাক্ষী, তদন্ত ও প্রসিকিউশনে এ তথ্য উঠে এসেছে। আত্মস্বীকৃত খুনি ফারুক-রশিদদের টেলিভিশনে দেয়া সাক্ষাতকারে উঠে এসেছে জিয়ার জড়িত থাকার বিষয়টি।
জঙ্গিদের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকার কারণে বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া এবং মির্জা ফখরুল ইসলামের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে আহ্বান জানান খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম। তিনি বলেন, দেশের চলমান জঙ্গি তৎপরতার পেছনে রাজনৈতিক শক্তি হিসেবে বিএনপি ইন্ধন যোগাচ্ছে।
‘যাদেরকে হত্যা করা হয়েছে তারা জঙ্গি কী না সন্দেহ আছে’ বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, এই কথা বলার মধ্যমে বিএনপি প্রমাণ করেছে, জামায়াত তো জঙ্গিদের পেছনে আছেই, বিএনপি ও খালেদা জিয়াও জঙ্গিদের পৃষ্ঠপোষকতা করেন। বাংলাদেশের জঙ্গিদের পেছনে যে রাজনৈতিক শক্তি ইন্ধন যোগাচ্ছে, সেই রাজনৈতিক শক্তি বিএনপি-এই কথা প্রমাণিত হয়েছে।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, বেগম খালেদা জিয়া প্রকাশ্যে বলছেন, এরা জঙ্গি কিনা সন্দেহ। এটা পরিস্কার বিএনপি এর পেছনে রয়েছে। আমি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে আহ্বান জানাবো এদেরকে বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করানোর ব্যবস্থা করুন। শুধু জঙ্গি নির্মূল করলে হবে না। এদের পেছনে কারা তাদেরকেও বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করাতে হবে। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন জনগণ তা দেখতে চায়। এদেরকে আর ছাড় দেয়ার সুযোগ নাই। 
তিনি বলেন, পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে জঙ্গি নির্মূলের যে পদ্ধতি সে পদ্ধতি বাংলাদেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অবলম্বন করছে। কোথাও দেখবেন না জঙ্গিদের বিচারে সোপর্দ করা হচ্ছে। বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চলে সর্বহারাদের দেখেছেন, এখন আর সর্বহারা নেই। জঙ্গি দমনে সারা পৃথিবীর মতো বাংলাদেশও একই ধরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করছে।
ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসনাতের সভাপতিত্বে সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ড. আব্দুর রাজ্জাক, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ প্রমুখ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ