Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ০১ মার্চ ২০২১, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৭, ১৬ রজব ১৪৪২ হিজরী

বিএনপি’র প্রার্থী মাঠে থাকলেও, ঢাকায় ব্যস্ত সময় পার করছে আ’লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীরা

কালীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন

কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৮ জানুয়ারি, ২০২১, ১:৫৩ পিএম

পঞ্চম ধাপে হতে যাচ্ছে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচন। তফসীল ঘোষণার পরপরই নির্বাচনে অংশ নিতে সম্ভাব্য প্রার্থীরা এখন ভোটের মাঠে। মেয়র পদে এখন পর্যন্ত ১০ জন প্রার্থীর আবির্ভাব ঘটেছে। বিএনপি দুই গ্রুপের সমন্নয়ে জেলার মধ্যস্থতায় ১ জন প্রার্থীর ঘোষনা দিলেও, আ’লীগের ৬ জন প্রার্থীর সবাই দলীয় মনোনয়নের জন্য দৌড় ঝাপ করছে। এদের মধ্যে বর্তমান মেয়র আশরাফুল আলম আশরাফকে নিয়মিত ভোটের মাঠে ব্যস্ত সময় পার করতে দেখা গেলেও আর কোন নেতাকে এখনও পযর্šÍ তেমন দেখা যাচ্ছেনা। সবাই উপরের সিগন্যালের আশায় বসে আছেন।

এ পৌরসভায় আ’লীগের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যমান দু’টি গ্রæপের মধ্যে এক গ্রুপের নেতৃত্বে আছেন বর্তমান সরকার দলীয় সাংসদ ও কালীগঞ্জ উপজেলা আ’লীগের সাধারন সম্পাদক আনোয়ারুল আজীম আনার। ইতিমধ্যে জেলা আওয়ামীলীগের মেয়র প্রার্থী বাছাই নির্দ্দেশনায় গত ৪ ডিসেম্বর পৌর আ’লীগের সভায় বর্তমান মেয়র ও পৌর আ’লীগের সাংগাঠনিক সম্পাদক আশরাফুল আলম আশরাফকে একক মেয়র প্রার্থী নাম চুড়ান্ত করে জেলা ও কেন্দ্রে পাঠিয়েছেন। তিনি এমপি আনার পক্ষীয় অনুসারী। অপরদিকে পাল্টা গ্রæপের নেতৃত্ব দেওয়া সাবেক সাংসদ আব্দুল মান্নান তার ভাইপো উপজেলা সেচ্ছাসেবকলীগের যুগ্ন আহব্বায়ক শাহেদ কবির লিমনকে মেয়র প্রার্থী করে নাম পাঠিয়েছেন। এছাড়াও আ’লীগের থেকে নৌকার টিকিট পাওয়ার জন্য আরো ৬ জন প্রার্থী সমান তালে আ’লীগের জেলা ও কেন্দ্রে জোর লবিং চালিয়ে যাচ্ছেন। তারা হলেন, যুবলীগ নেতা ও সাবেক মেয়র মোস্তাফিজুর রহমান বিজু, উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক ও জেলা পরিষদ সদস্য জাহাঙ্গীর হোসেন সোহেল, ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমান মতি, যুবলীগের সভাপতি ও পৌর কাউন্সিলর রেজাউল করিম রেজা, সাবেক এমপি আব্দুল মান্নানের ভাই আব্দুর রশিদ খোকন ও পৌর আ’লীগের প্রচার সম্পাদক প্রশান্ত কুমার খাঁ। এছাড়াও মনোনয়ন পত্র কিনেছেন বর্তমান এমপি আনোয়ারুল আজিম আনারের ভাই এনামুল হক ইমান।

অন্যদিকে কালীগঞ্জে দীর্ঘদিন ধরেই বিএনপির মধ্যে শক্ত দুটি গ্রুপ বিদ্যমান থাকায় তারাও পৃথক পৃথক মেয়র প্রার্থী ঘোষনা দিয়েছে। গত সাংসদ নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতিকের প্রার্থী ও সেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সিনিঃ সহ-সভাপতি সাইফুল ইসলাম ফিরোজ গ্রæপ থেকে মেয়র পদে উপজেলা বিএনপির আহŸায়ক ও সাবেক মেয়র মাহাবুবুর রহমানের নাম ঘোষনা করেছে। অপর গ্রæপ সাবেক সাংসদ শহিদুজ্জামান বেল্টু ও উপজেলা বিএনপির যুগ্ন আহব্বায়ক হামিদুল ইসলাম হামিদ পক্ষীয় থেকে পৌর বিএনপির আহŸায়ক আতিয়ার রহমান প্রার্থী হচ্ছে। তবে, সর্বশেষ গত সোমবার জেলা বিএনপি কার্যালয়ে কালীগঞ্জ উপজেলা ও পৌর বিএনপির আহবায়ক ও যুগ্ম আহবায়কদের নিয়ে একটি সভার মাধ্যমে একক দলীয় প্রার্থী হিসেবে সাবেক মেয়র ও কালীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির আহবায়ক আলহাজ¦ মাহবুবার রহমানের নাম সুপারিশ করে কেন্দ্রে পাঠিয়েছেন বলে জানা গেছে। তাদের উভয় গ্রæপই এখন কেন্দ্রের সবুজ সংকেত ধানের শীষ প্রতিকের আশায় বসে আছেন। সব মিলিয়ে এ পৌরসভার নির্বাচনে আ’লীগ ও বিএনপি বড় দুটি দলের মধ্যেই প্রার্থী চুড়ান্ত করা নিয়ে নেতা কর্মীদেরকে কেন্দ্রের দিকেই তাকিয়ে থাকতে হচ্ছে। এদিকে, এখন পর্যন্ত আ’লীগ ও বিএনপি থেকে একাধিক প্রার্থীর নাম শোনা গেলেও জাতীয় পার্টি, জামায়াত বা অন্য কোন দলের থেকে কারো নাম শোনা যায়নি। তাই সর্ব্বত্রই সাধারন ভোটারদের মুখে মুখে একটিই আলোচনা কে হচ্ছেন নৌকা বা ধানের শীষের মালিক।
এ পৌরসভার নির্বাচনে প্রার্থীদের নিয়ে ভোট বিশ্লেষনে সাধারন ভোটারদের অভিমত, মেয়র পদে প্রার্থী হওয়া নিয়ে এখন পর্যন্ত একাধিক প্রার্থীর নাম শোনা গেলেও শেষ অবধি হয়ত ৩/৪ জন প্রার্থী ভোটের মাঠে থাকতে পারেন। এদের অনেকেই আবার শুধুমাত্র নাম ফোটাতেই প্রার্থীতা জাহির করছেন বলে বে-রসিক ভোটাররা দোকানে চায়ের কাপে আড্ডায় ঝড় তুলছেন। সব মিলিয়ে দলীয় প্রতিকের উপরই নির্ভর করছে এ পৌরসভার ভোটযুদ্ধ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পৌর নির্বাচন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ