Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৮ আশ্বিন ১৪২৬, ২৩ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌপথে আবার বিপর্যস্ত ফেরি সার্ভিস

প্রকাশের সময় : ৩০ আগস্ট, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ঈদে ঘরমুখো যাত্রীদের ভোগান্তির আশঙ্কা
আরিচা সংবাদদাতা : পদ্মা নদীতে প্রবল স্রোতের কারণে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌ-পথে ফেরি চলাচল আবার বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। ফলে পারা-পারে সময় লাগছে দ্বিগুণ। ঘাটে আটকে আছে ৮শ’ ট্রাকসহ সহাস্রাধিক যানবাহন।
গত রোববার থেকে দু’পারেই যানজটের সৃষ্টি হয়ে যাত্রীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। অতিদ্রুত ঘাট সংস্কার ও ফেরি বাড়ানোসহ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ না নিলে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ঘাটের যানজট স্থায়ী রূপ নেবে বলে যানবাহন শ্রমিকরা মনে করছেন। এতে কোরবানির ঈদে ঘরমুখো যাত্রীরা পাটুরিয়া ঘাটে এসে চরম ভোগান্তীতে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন তারা।
বিআইডব্লিউটিসি’র আরিচা আঞ্চলিক অফিস সূত্রে জানা যায়, ভারতের ফারাক্কা বাঁধ খুলে দেয়ার পর থেকে পদ্মায় দ্রুতগতিতে পানি বাড়তে শুরু করেছে। আর পানি বৃদ্ধির সাথে সাথে নদীতে প্রবোল স্রোতের সৃষ্টি হয়েছে। ফলে ফেরিগুলোকে স্রোতের বিপরীতে চলতে গিয়ে দ্বিগুণ সময় ব্যায় করতে হচ্ছে। আগে যেখানে একটি ফেরি স্বাভাবিক চলাচলে সময় লাগতো ৪০ মিনিট এখন সেখানে সময় লাগছে ১ ঘণ্টা ২০ মিনিট।
এদিকে নদী ভাঙনের কারণে গত ৪ আগস্ট থেকে দৌলতদিয়ায় চারটি ফেরিঘাটের মধ্যে একটি ঘাট বন্ধ রয়েছে। এতে দৌলতদিয়া প্রান্তে প্রয়োজনের তুলনায় ঘাট সংকট রয়েছে। ফলে ফেরিতে যানবাহন লোড-আনলোডে বিলম্ব হচ্ছে। এছাড়া ফেরিরও সংকট রয়েছে। ১৮টি ফেরির মধ্যে ১৪টি ফেরি চলাচল করছে। বাকী ৪টি ফেরি মেরামতে রয়েছে।
বাংলাদেশ অভ্যান্তরীণ নৌ-পরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি)র আরিচা অঞ্চলের মেরিন অফিসার আব্দুস ছাত্তার জানান, স্রোতের বিপরীতে ফেরিগুলো চলাচল করতে এখন সময় বেশী লাগছে। আগে যেখানে পাটুরিয়া থেকে দৌলতদিয়া যেতে একটি ফেরির সময় লাগতো ৪০ মিনিট এখন লাগছে ৮০ মিনিট। বর্তমানে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌপথে চলাচলরত ১৮টি ফেরির মধ্যে ১৪টি ফেরি চলাচল করছে। এর মধ্যে ৬টি রো-রো এবং ৩টি কেটাইপ (ছোট) ও ৫টি ইউটিলিটি। বাকী ৪টি ফেরি বিকল হয়ে মেরামতে রয়েছে। খুব তাড়াতাড়িই বিকল ফেরিগুলো সচল করা হবে। এছাড়া ঈদের পূর্বে আরো দু’টি ফেরি বাড়ানোর সম্ভাবনা রয়েছে বলে তিনি জানান।
উল্লেখ্য, এর আগে নদীতে প্রবোল স্রোত, নদী ভাঙন, ফেরি বিকলসহ বিভিন্ন কারণে গত ২০ জুলাই থেকে ১০ আগস্ট পর্যন্ত একটানা বিশ দিন উক্ত নৌ-রুটে স্বাভাবিক ফেরি চলাচল মারাত্মকভাবে ব্যাহত হয়। এতে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের যোগাযোগ ব্যাবস্থা একেবারে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে। চরম ভোগান্তিতে পড়েন ২১ জেলার লোকজন। এর রেশ কাটতে না কাটতেই পদ্মায় পানি বাড়ার কারণে প্রবোল স্রোতের সৃষ্টি হওয়ায় পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌপথে আবার গত ২৬ আগস্ট থেকে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। গত রোববার থেকে দু’পারেই ভয়াবহ যানজট শুরু হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ