Inqilab Logo

সোমবার, ০২ আগস্ট ২০২১, ১৮ শ্রাবণ ১৪২৮, ২২ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

বাইডেনকে চিঠি দিলেন সাবেক ৪১ কূটনীতিক

পরমাণু সমঝোতা : মার্কিন দৈনিকের দাবি নাকচ রাশিয়ার, ইরানের আহবান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১২:০১ এএম

আমেরিকার ৪১ জন সাবেক কূটনীতিক ও সেনা কর্মকর্তা তাদের দেশকে ইরানের পরমাণু সমঝোতায় ফিরিয়ে আনার জন্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে চিঠি দিয়েছেন। তারা তাদের চিঠিতে বলেছেন, আমেরিকাকে অবিলম্বে ইরানের পরমাণু সমঝোতায় ফিরিয়ে নেয়ার জন্য বাইডেন প্রশাসনের উচিত সর্বোচ্চ চেষ্টা চালানো। রাশিয়াভিত্তিক আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম স্পুটনিক শনিবার এ খবর জানিয়েছে। এদিকে, বিশ্বের ছয়টি শক্তির সঙ্গে তেহরানের বছর পাঁচেক আগের পরমাণু চুক্তিতে ফিরে যেতে দ্রুত পদক্ষেপ নিতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আহবান জানিয়েছেন ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফ। আগামী ২১ ফেব্রুয়ারির মধ্যে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা শিথিল করা না হলে পরমাণু ইস্যুতে সরকারকে কঠোর হতে বাধ্য করতে একটি আইন পাস করেছে ইরানের পার্লামেন্ট। আগামী জুনে দেশটিতে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন হওয়ার কথা রয়েছে। এতে যদি কোনো কট্টরপন্থী প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হন, তবে চুক্তিটি আরও ঝুঁকিতে পড়ে যাবে। হামশাহরি পত্রিকাকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে জারিফ বলেন, আমেরিকার জন্য সময় ফুরিয়ে যাচ্ছে। পার্লামেন্টের আইন ও নির্বাচনী আবহ নিয়ে নতুন বছর আসছে। আগামী ২১ মার্চ দেশটিতে নওরোজ শুরু হবে। সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার প্রশাসন ২০১৫ সালে ইরানের সঙ্গে পরমাণু সমঝোতায় সই করলেও ২০১৮ সালে তার পরবর্তী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ওই সমঝোতা থেকে আমেরিকাকে বেআইনিভবে বের করে নিয়েছিলেন। প্রেসিডেন্ট বাইডেন গত বছরের নভেম্বরের নির্বাচনের আগে প্রচারণায় একাধিকবার আমেরিকাকে পরমাণু সমঝোতায় ফিরিয়ে আনার আগ্রহ প্রকাশ করলেও ক্ষমতা গ্রহণের পর তিনি এখন পর্যন্ত এ ব্যাপারে কোনো পরিকল্পনা পেশ করেননি। অবশ্য তিনি আবহাওয়া চুক্তিতে ফিরে যাওয়ার ব্যাপারে নিজের নির্বাচনি প্রতিশ্রুতি ক্ষমতা গ্রহণের দিনই পূরণ করেছেন। বাইডেনের টিমের সহযোগীরা অস্পষ্ট বক্তব্যে বলছেন, তারা পরমাণু সমঝোতাকে আরো দীর্ঘমেয়াদি ও শক্তিশালী করার লক্ষ্যে এই সমঝোতায় ফেরত আসার বিষয়ে দেরি করছেন। সম্প্রতি মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন বলেছেন, ইরানের পরমাণু সমঝোতায় পুরোপুরি ফিরে আসার জন্য এখনো অনেক পথ পাড়ি দিতে হবে। অপরদিকে, মার্কিন দৈনিক ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল ইরানের পরমাণু কর্মসূচি সম্পর্কে সম্প্রতি যে দাবি করেছে তা নাকচ করে দিয়েছে রাশিয়া। জাতিসংঘের ইউরোপীয় দপ্তরে নিযুক্ত রুশ স্থায়ী প্রতিনিধি মিখাইল উলিয়ানোভ মার্কিন দৈনিকের দাবি প্রত্যাখ্যান করে এক টুইটার পোস্টে লিখেছেন, ইরানের পরমাণু স্থাপনাগুলোতে ২০ বছর আগের থেকে যাওয়া ইউরেনিয়াম বর্তমান সময়ের জন্য গুরুত্বপূর্ণ কোনো বিষয় নয়। ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের সাংবাদিক লরেন্স নরম্যান সম্প্রতি ইরানের পরমাণু কর্মসূচি সম্পর্কে ওই তথ্য প্রকাশ করেছেন। তিনি নিজের টুইটার পেজে দেয়া এক বার্তায় দাবি করেছেন, আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থা বা আইএইএ’র পরিদর্শকরা সম্প্রতি ইরানের দু’টি পরমাণু স্থাপনায় ২০ বছর আগের রেডিওঅ্যাকটিভ পদার্থের সন্ধান পেয়েছেন। তার ওই বক্তব্যের জবাবে উলিয়ানোভ নিজের টুইটার পেজে দেয়া পোস্টে বিষয়টিকে গুরুত্বহীন বলে বর্ণনা করেছেন। হোয়াইট হাউজের ইরানবিদ্বেষী নীতি অনুসরণ করে পশ্চিমা গণমাধ্যমগুলো বিগত বছরগুলোতে ইরানের বেসামরিক পরমাণু কর্মসূচি সম্পর্কে একের পর এক মিথ্যা ও অসম্পূর্ণ তথ্য তুলে ধরছে। ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল এমন সময় এ দাবি করল যখন পশ্চিমা দেশগুলোর ধারাবাহিক প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টির প্রচেষ্টা সত্ত্বেও ইরান পরমাণু সমঝোতায় দেয়া নিজের প্রতিশ্রুতি রক্ষা করে যাচ্ছে। স্পুটনিক, আরটি, হামশাহরি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইরান


আরও
আরও পড়ুন

কাশ্মীর লীগকে স্বীকৃতি না দিতে আইসিসিকে ভারতের চিঠি!

img_img-1627921757

আগামী ৬ আগস্ট থেকে কাশ্মীরে শুরু হতে যাওয়া ক্রিকেট লীগ নিয়ে উত্তাল ক্রিকেট বিশ্ব। তবে এই লীগ নিয়ে এবারো কড়া অবস্থান নিলো সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন বিসিসিআই। কাশ্মীর ক্রিকেট লীগকে স্বীকৃতি না দিতে এবার আইসিসিকে চিঠি দিলো ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড। চিঠিতে বলা হয়, কোনোভাবেই যেন কাশ্মীর প্রিমিয়ার লীগকে (কেপিএল) স্বীকৃতি দেয়া না হয়। -সংবাদ প্রতিদিন কাশ্মীর নিয়ে পাকিস্তান-ভারত বিবাদ দীর্ঘদিনের। বিষয়টি নিয়ে বরাবরই সোচ্চার হয়েছে নয়াদিল্লি। অঞ্চলটিতে নির্বাচন আয়োজনের পর এবার সেখানে ক্রিকেট লীগেরও আয়োজন করতে চলেছে পাকিস্তান। আর সেকারণেই বিষয়টিকে ভালোভাবে নেয়নি বিসিসিআই। পাকিস্তান সুপার লীগ আয়োজন করা নিয়ে কোনো আপত্তি না থাকলেও জাতীয় সুরক্ষার খাতিরে কাশ্মীর প্রিমিয়ার লীগকে কোনোভাবেই স্বীকৃতি দেবে না বিসিসিআই। ইতোমধ্যে বিশ্বের সমস্ত ক্রিকেট বোর্ডকে মৌখিকভাবে সেকথাও জানিয়ে দিয়েছেন সৌরভরা। শুধু তাই নয়, এই লীগে অংশগ্রহণকারী ক্রিকেটারদের ভারতে ক্রিকেট সম্পর্কিত সমস্ত কার্যকলাপে নিষিদ্ধ করা হবে বলেও হুমকি দেয়া হয়। সেই কথাও স্পষ্ট করে ঘোষণা দেয়া হয়। আর এবার এ ব্যাপারে সরাসরি আইসিসিকে চিঠি দিলো ভারতীয় বোর্ড। একটি ক্রীড়াবিষয়ক ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, চিঠিতে ভারতীয় বোর্ডের পক্ষ থেকে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থাকে বলা হয়েছে, কাশ্মীর নিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে রাজনৈতিক বিবাদ রয়েছে ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে। তাই ওই অঞ্চলে আয়োজিত এই ক্রিকেট লীগকে যেন কোনোভাবেই স্বীকৃতি দেয়া না হয়। এদিকে এই লীগ আয়োজনে বাধা দেয়ার অভিযোগ তুলে বিসিসিআইয়ের বিরুদ্ধে সরব হয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড।কাশ্মীরে আয়োজিত ক্রিকেট লীগে না খেলার জন্য তার উপর চাপ সৃষ্টি করছে বিসিসিআই। এমনকি ভারতে প্রবেশের উপরও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হতে পারে। এর আগে টুইটে এমনই অভিযোগ তুলেছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার প্রাক্তন ক্রিকেটার হার্শেল গিবস। শুধু গিবস নন, আরেক প্রাক্তন ক্রিকেটার পাকিস্তানের রশিদ লতিফও একই অভিযোগ করেছেন। আর এই নিয়েই উত্তাল ক্রিকেট দুনিয়া।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ