Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২০ জুন ২০২১, ০৬ আষাঢ় ১৪২৮, ০৮ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

করোনার উৎস নিয়ে সব অনুমান খতিয়ে দেখা হচ্ছে : ডব্লিউএইচও

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১২:০৬ এএম

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)- এর মহাপরিচালক টেড্রোস আডানম গেব্রিয়াসিস বলেছেন, করোনাভাইরাসের উৎস অনুসন্ধানে সব অনুমান খতিয়ে দেখা হচ্ছে। শুক্রবার এক প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এই মন্তব্য করেন।

ডব্লিউএইচও- এর পক্ষ থেকে করোনার উৎস অনুসন্ধানে চীন সফর করা একটি মিশন গত সপ্তাহে জানিয়েছে, গবেষণাগার থেকে ভাইরাসের ছড়িয়ে পড়া তারা খতিয়ে দেখছেন না। তাদের মতে, এমনটি হওয়ার সম্ভাবনা একেবারে কম। যুক্তরাষ্ট্র এই অবস্থানকে সমর্থন করছে না। তারা বলেছে, মিশনের সংগৃহীত তথ্য তারা নিজেরা পর্যালোচনা করবে। ডব্লিউএইচও মহাপরিচালক বলেন, কিছু প্রশ্ন হাজির হয়েছে। বলা হচ্ছে কিছু অনুমান বাতিল করা হয়েছে। টিমের কয়েকজন সদস্যের সঙ্গে কথা বলে আমি আশ্বস্ত করতে চাই যে আরও পর্যালোচনা ও গবেষণার জন্য সব অনুমান বিবেচনায় রয়েছে। গেব্রিয়াসিস আরও বলেন, কিছু কাজ মিশনের এখতিয়ার ও সুযোগের বাইরে। আমরা সব সময় বলে আসছি যে, এই মিশন সব প্রশ্নের জবাব খুঁজে পাবে না। কিন্তু তারা আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সংগ্রহ করেছে যা করোনার উৎস সম্পর্কে জানতে সহযোগিতা করবে। চীনে করোনার উৎস খুঁজতে যাওয়া দলটির প্রধানকে পাশে রেখে তিনি বলেন, খুব কঠিন পরিস্থিতিতে আমাদের দল খুব গুরুত্বপূর্ণ বৈজ্ঞানিক বিশ্লেষণ করেছে। ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহান থেকে ছড়িয়ে পড়ে করোনাভাইরাস। সংক্রমণের খবর প্রকাশের পর বিজ্ঞানীরা অনুমান করেছিলেন, ভাইরাসটি সম্ভবত চীনের উহান শহরের কোনও এক বাজারের বন্যপ্রাণীর শরীর থেকে মানুষের শরীরে প্রবেশ করেছে। যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসন শুরু থেকেই করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার জন্য চীনকে দায়ী করে আসছে। সঙ্গে আরও কিছু পশ্চিমা দেশ এই ভাইরাসের উৎস সম্পর্কে তদন্তের দাবি তুলেছিল। সূত্র : রয়টার্স।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন

কোয়েটায় এক মাদ্রাসাকে লক্ষ্য করে বোমা বিস্ফোরণ : এক পথচারী আহত

img_img-1624201541

পাকিস্তানের বেলুচিস্তানের কোয়েটায়  স্যাটেলাইট টাউনের একটি মাদ্রাসার কাছে আইইডি বিস্ফোরণে একজন আহত হয়েছেন। পুলিশ জানিয়েছে, অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিরা ইসহাকাবাদ এলাকায় একটি উন্নত বিস্ফোরক যন্ত্রসহ একটি মোটর মোটরসাইকেল পার্ক করে এবং রিমোট কন্ট্রোল দিয়ে আইইডিটির বিস্ফোরণ ঘটায়। -ডন (ইংরেজি)   ওই বিস্ফোরণে একজন পথচারী আহত হয়েছেন। আশেপাশের কয়েকটি দোকান এবং আশপাশের বিল্ডিংয়ের জানালা ভেঙে যায়। পুলিশ আহত ব্যক্তিকে সিভিল হাসপাতালে স্থানান্তরিত করেছে।"বিস্ফোরণের সম্ভাব্য লক্ষ্য ছিল মাদ্রাসা দারুল উলূম শরিয়া" বলে জানিয়েছে পুলিশ। পুলিশ ঘটনার তদন্ত চলছে বলেও

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ