Inqilab Logo

রোববার, ২৩ জানুয়ারী ২০২২, ০৯ মাঘ ১৪২৮, ১৯ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

নেইমারের কান্না

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১২:০৬ এএম

প্রতিপক্ষের কড়া ট্যাকল ও বারবার ফাউলের শিকার হয়ে নেইমারের মাঠে গড়াগড়ি খাওয়ার দৃশ্য নতুন নয়। মৌসুমের গুরুত্বপ‚র্ণ সময়ে তার চোটে পড়াও নয়। তবে আরও একবার দীর্ঘ সময়ের জন্য ফুটবলের বাইরে ছিটকে পড়ার হতাশা যেন এবার পেয়ে বসেছে ব্রাজিলিয়ান তারকাকে। কষ্টমাখা বার্তায় বললেন, এভাবে আর পারছেন না, জানেন না আর কতদিন সহ্য করতে পারবেন। সবশেষ ফরাসি কাপের শেষ বত্রিশে ওঠার পথে গত বুধবার কঁয়ের বিপক্ষে দলের ১-০ গোলে জয়ের ম্যাচে চোট পান পিএসজি তারকা। ৬০তম মিনিটে খুঁড়িয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি। পরীক্ষার পর বৃহস্পতিবার ক্লাবের ওয়েবসাইটে দেওয়া বিবৃতিতে বলা হয়, বাম অ্যাবডাক্টরে চোট পেয়েছেন ব্রাজিলিয়ান তারকা। সেরে উঠতে চার সপ্তাহের মতো লাগতে পারে। ওই দিনই ইনস্টাগ্রামে আবারও চোটে পড়া নিয়ে হতাশা প্রকাশ করেন ২৯ বছর বয়সী এই ফুটবলার, ‘দুঃখটা বিশাল, ব্যথা অপরিসীম আর কান্না অবিরাম। জীবনে যা করতে সবচেয়ে বেশি ভালোবাসি, সেই ফুটবল খেলা থেকে আবারও কিছুদিন দূরে থাকব। কখনও কখনও আমি অস্বস্তি বোধ করি, এর কারণ আমার খেলার ধরণ; কারণ আমি ড্রিবল করি আর তারা আমাকে ক্রমাগত আঘাত করে।’
কঁয়ের বিপক্ষে ম্যাচে বেশ কয়েকবার নেইমারকে ফাউল করা হয়। এর মধ্যে দুবার তাকে বিপজ্জনক চ্যালেঞ্জ করেন স্টিভ ইয়াগো। পেছন থেকে ফাউল করার পর নেইমারের অ্যাবডাক্টরে কড়া ট্যাকল করেন ফরাসি এই ডিফেন্ডার। বারবার আঘাত পাওয়ার পরও চোট নিয়ে নেইমারকে সমালোচনার মুখে পড়তে হয়। যা তাকে দুঃখ দেয় বলে জানান তিনি, ‘বুঝতে পারি না, সমস্যাটা আমার নাকি আমি মাঠে যা করি সেটার। বিষয়টা আমাকে খুব কষ্ট দেয়। ‘অবশ্যই তাকে আঘাত করতে হবে’, ‘সে ইচ্ছা করে পড়ে যায়’, ‘কে কাঁদে’, ‘শিশুর মতো’, ‘বখে গেছে’-এমন সব কথাবার্তা যখন কোনো খেলোয়াড়, কোচ, ধারাভাষ্যকার বা যে কারো থেকেই শুনি, খুব খারাপ লাগে। সত্যিই বিষয়টা আমাকে কষ্ট দেয়। জানি না, কতদিন আমি এটা সইতে পারব। আমি কেবল ফুটবল খেলেই খুশি থাকতে চাই। আর কিছু না।’
এই চোটের কারণে আবারও চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোয় খেলা হবে না নেইমারের। ইউরোপ সেরা প্রতিযোগিতায় এই পর্বের প্রথম লেগে আগামী ১৬ ফেব্উয়ারি পিএসজি খেলবে বার্সেলোনার মাঠ ক্যাম্প ন্যুয়ে। ফিরতি পর্বের ম্যাচ আগামী ১০ মার্চ। বার্সেলোনায় চার মৌসুম কাটিয়ে এবং দলটির হয়ে ১০৫ গোল করে ২০১৭ সালে নেইমার রেকর্ড ট্রান্সফার ফিতে যোগ দেন পিএসজিতে। প্যারিসে আসার পর থেকে নানা সময়ে পাওয়া চোটে অনেকটা সময় মাঠের বাইরে কাটাতে হয়েছে তাকে। একই কারণে ২০১৭/১৮ আসরে রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে শেষ ষোলোর দ্বিতীয় লেগে এবং পরের আসরে একই পর্বে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের বিপক্ষে কোনো লেগেই খেলতে পারেননি নেইমার।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নেইমারের কান্না

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১
আরও পড়ুন