Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ২ বৈশাখ ১৪২৮, ০২ রমজান ১৪৪২ হিজরী

সিনেমা হল আধুনিকায়নে স্বল্প সুদে ঋণ দেবে সরকার

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১২:০৫ পিএম

চলচ্চিত্র শিল্পের হারানো ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে বিদ্যমান সিনেমা হলগুলো সংস্কার ও আধুনিকায়ন এবং নতুন সিনেমা হল নির্মাণের জন্য হল মালিকদের স্বল্প সুদে দীর্ঘ মেয়াদী ঋণ দেবে সরকার। এজন্য এক হাজার কোটি টাকার পুনঃঅর্থায়ন স্কিম গঠন করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। রোববার (১৪ ফেব্রুয়ারি) কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ এ সংক্রান্ত একটি সার্কুলার জারি করেছে। সার্কুলারটি সকল তফসিলি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহীকে পাঠানো হয়েছে।

সার্কুলারে বলা হয়, স্কিমটি হতে প্রথম ধাপে পাঁচশত কোটি টাকা বিতরণ করা হবে। প্রথম ধাপে বিতরণকৃত ঋণ সুষ্ঠু ব্যবহার নিশ্চিত হবার পর দ্বিতীয় ধাপে বাকি পাঁচশত কোটি টাকা বিতরণযোগ্য হবে। প্রতিটি সিনেমা হল সর্বোচ্চ পাঁচ কোটি টাকা ঋণ পাবেন। এ স্কিমের আওতায় অংশগ্রহণকারী তফসিলি ব্যাংক বাংলাদেশ ব্যাংক হতে নির্ধারিত ১ দশমিক ৫ শতাংশ হারে পুনঃঅর্থায়ন সুবিধা গ্রহণ করতে পারবে। মেট্রোপলিটন এলাকার গ্রাহকরা ৫ দশমিক শূণ্য ৭ শতাংশ এবং মেট্রোপলিটন এলাকার বাইরের গ্রাহকরা ৪ দশমিক ৫ শতাংশ সুদে তফসিলি ব্যাংক থেকে এই ঋণ পাবেন।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সার্কুলারে আরও বলা হয়, বাংলাদেশের আবহমান সংস্কৃতি, স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে সমুন্নত রাখার ক্ষেত্রে চলচ্চিত্রের অবদান অপরিসীম। আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার, বিনিয়াগে বান্ধব পরিবেশ সৃষ্টি, শিল্পী ও কলাকুশলীদের দক্ষতা বৃদ্ধির মাধ্যমে চলচ্চিত্র শিল্পের নবজাগৱণ সৃষ্টির লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিগত ৩ এপ্রিল ২০১২ তারিখে চলচ্চিত্রকে শিল্প হিসেবে ঘোষণা করেন। সুস্থ জাতি গঠনে নির্মল বিনোদনের ভূমিকা অনস্বীকার্য। বিনোদন জগতের সর্ববৃহৎ মাধ্যম চলচ্চিত্র এবং সিনেমা হলসমূহকে কেন্দ্র করেই মূলতঃ চলচ্চিত্র শিল্প বিকশিত হয়।

নব্বইয়ের দশকে এদেশে প্রায় ১৪শ'টি সিনেমা হল ছিল। কিন্তু নানা প্রতিবন্ধকতার কারণে এ সংখ্যা ক্রমান্বয়ে হ্রাস পাচ্ছে। দেশের সিনেমাপ্রেমী দর্শকদের সুস্থধারার বিনোদন উপহার দেওয়ার লক্ষ্যে বিদ্যমান সিনেমা হলগুলো সংস্কার এবং আধুনিক মানের নতুন সিনেমা হল নির্মাণ করা প্রয়োজন। এক্ষেত্রে সিনেমা হল মালিকদের স্বল্প সুদে দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগে প্রদান করা হলে সিনেমা হল মালিকগণ নতুন নতুন সিনেমা হল নির্মাণের পাশাপাশি বিদ্যমান হলগুলো সংস্কার ও আধুনিক যন্ত্রপাতি সংযোজন করতে সক্ষম হবে।

তাই সার্বিক বিষয়াদি বিবেচনান্তে, সিনেমা হল মালিকদের অনুকূলে ঋণ বিতরণের জন্য এই পুনঅর্থায়ন স্কিম গঠন করা হয়েছে।

সার্কুলারে বলা হয়, ত্রৈমাসিক কিস্তিতে সর্বোচ্চ আট বছরে গ্রাহকরা এই ঋণ পরিশোধ করতে পারবেন।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সরকার


আরও
আরও পড়ুন