Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১, ০১ আষাঢ় ১৪২৮, ০৩ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

চিঠিপত্র

গাছ যেন বিজ্ঞাপনের বোর্ড

| প্রকাশের সময় : ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১২:০৩ এএম

শহরের প্রায় প্রতিটি গাছপালা এখন বিজ্ঞাপনে বিদ্ধ। লেমিনেটিং পেপারে আচ্ছাদিত টিউশনি মিডিয়া, বাড়ি ভাড়া, ডেকোরেটর, রাজনৈতিক ব্যানার, ডায়াগনস্টিক সেন্টার সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন পেরেক ঠুকে লাগানো হয় বিভিন্ন অলিগলি ও সড়কের আশেপাশের গাছগুলোতে। এসব বিজ্ঞাপনের পেরেকের আঘাতে গাছের উপর নির্মম অত্যাচার ক্রমেই বাড়ছে। গাছে খুব সহজেই পেরেক ঢুকাতে পেরে মানুষ বুঝে-না বুঝে প্রতিনিয়ত এটিকে বিজ্ঞাপন লাগানোর সহজ মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার করছে। পেরেকে বিদ্ধ গাছপালার নিরব কান্না যেন দেখার কেউ নেই। পরিবেশবিদদের মতে, গাছে পেরেক ঠুকে বিজ্ঞাপন লাগানোর কারণে গাছের গায়ে যে ছিদ্র হয়, তা দিয়ে পানি ও এর সঙ্গে বিভিন্ন ব্যাকটেরিয়া ও অণুজীব ঢোকে। এতে গাছের ওই জায়গায় দ্রুত পচন ধরে। ফলে তার খাদ্য ও পানি শোষণ প্রক্রিয়া ব্যাহত হয়। এভাবে মরণাপন্ন এখন শহরের অধিকাংশ গাছপালা। পরিবেশের পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় গাছপালার ভূমিকা অপরিসীম কিন্তু এভাবে ক্রমশ গাছপালার সংখ্যা কমতে থাকলে পরিবেশের উপর এর বিরূপ প্রভাব পড়বে। গাছের শরীরে পেরেক ঠোকা বন্ধ করতে প্রশাসনের পক্ষ থেকেও তেমন একটা নজরদারি চোখে পড়ে না, নেই আইনের যথাযথ প্রয়োগ। তাই পরিবেশ রক্ষার স্বার্থে গাছপালাকে বাঁচিয়ে রাখতে গাছে পেরেক ঠুকিয়ে বিজ্ঞাপন লাগানো বন্ধ করতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে কঠোর উদ্যোগ নিতে হবে।

আরিফুল ইসলাম
শিক্ষার্থী, চট্টগ্রাম বন্দর কলেজ।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চিঠিপত্র

১৫ জুন, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন