Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ৩০ চৈত্র ১৪২৭, ২৯ শাবান ১৪৪২ হিজরী

শিক্ষার্থীদের ওপর পরিবহন শ্রমিকদের হামলা

বরিশালে ছাত্রদের বিক্ষোভ

বরিশাল ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১২:৪১ এএম

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রকে ‘লাঞ্ছিত’ করার অভিযোগে বিআরটিসির এক কর্মী গ্রেফতার হওয়ার পর গত মঙ্গলবার মধ্যরাতে শিক্ষার্থীদের মেসে হামলার ঘটনা ঘটেছে। হামলায় আহত ১৩ শিক্ষার্থীকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এর প্রতিবাদে গতকাল বুধবার সকাল থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে বরিশাল মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন শিক্ষার্থীরা। সংক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা সেখানে একটি বাসে আগুন জ্বালিয়ে দেয়।

শিক্ষার্থীরা জানায়, সজল নামের এক শিক্ষার্থী রুপাতলী বাসস্ট্যান্ডে গিয়েছিলেন যাশোরের বাসের টিকেট কিনতে। সেখানে বিআরটিসির কাউন্টারের কর্মীদের সঙ্গে তার কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে সেখানে তাকে লাঞ্ছিত করে কাউন্টারের লোকজন। এর প্রতিবাদে শিক্ষার্থীরা মঙ্গলবার বিকালে রুপাতলী এলাকায় সড়ক অবরোধ করে। পরে বিআরটিসির কাউন্টার কর্মী রফিককে পুলিশ আটক করলে তারা আন্দোলন প্রত্যাহার করে। পরে রাত ২টার দিকে রুপাতলী হাউজিং এলাকায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মেসে হামলার ঘটনা ঘটে।
শিক্ষার্থীরা আরো জানায়, রাত সোয়া ১টার দিকে নগরীর রূপাতলীতে শিক্ষার্থী মাহমুদুল হাসানের মেসে হামলা করেন কয়েকজন পরিবহন শ্রমিক। ঘটনাটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে মাহমুদুলকে উদ্ধারে এগিয়ে যান পাশের বিভিন্ন মেসের শিক্ষার্থীরা। এ সময় ধারালো অস্ত্র দিয়ে আগত শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালানো হয়। পরে ৬০ থেকে ৭০ জন পরিবহন শ্রমিক ধারালো অস্ত্র নিয়ে রূপাতলী হাউজিংয়ের ১৮, ১৯, ২৩ ও ২৫ নম্বর রোডের মেসগুলোতেও হামলা চালায়। রাত ২টার দিকে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে ঘটনা নিয়ন্ত্রণে আনে। তাদের অভিযোগ, বরিশাল-পটুয়াখালী মিনিবাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক কাউসার হোসেন শিপনের নেতৃত্বে একদল পরিবহন শ্রমিক দেশীয় অস্ত্র দিয়ে ওই হামলা চালায়।
বিএমপির বন্দর থানার ওসি আনোয়ার হোসেন জানান, পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে বাড়তি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। আমরা শিক্ষার্থীদের আশ্বাস দিয়েছি, হামলায় জড়িতদের তদন্ত সাপেক্ষে আইনের আওতায় আনা হবে। অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে মিনিবাস মালিক সমিতির নেতা কাউসার হোসেন শিপন জানান, আমি এ ঘটনা জানি না। এর সঙ্গে আমি জড়িত নই।
বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক আরিফ হোসেন জানান, আমরা সমাধানের চেষ্টা করছি। গভীর রাতে শিক্ষার্থীদের ওপর হামলাকে ন্যাক্কারজনক ও বর্বরোচিত অভিহিত করে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস ও আহত শিক্ষার্থীদের চিকিৎসার যাবতীয় ব্যয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে বহন করা হবে বলে জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. মো. ছাদেকুল আরেফিন। পরে সকাল সাড়ে ১২টায় আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের সাথে উদ্ভুত সমস্যা সমাধানে আলোচনা করেন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পরিবহন-শ্রমিকদের-হামলা
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ