Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ০১ ব্শৈাখ ১৪২৮, ০১ রমজান ১৪৪২ হিজরী

অসুস্থ প্রিন্স ফিলিপ, হাসপাতালে ভর্তি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ৪:০৬ পিএম

হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ায় হাসপাতালে ভর্তি করতে হল ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের স্বামী প্রিন্স ফিলিপকে। মঙ্গলবার রাতেই অসুস্থ বোধ করেন ব্রিটেনের ডিউক অব এডিনবরা ফিলিপ। ৯৯ বছর বয়স হয়েছে তার।

যদিও বুধবার বাকিংহাম প্যালেস জানিয়েছে, অবস্থা গুরুতর না হলেও চিকিৎসকের পরামর্শে ব্রিটিশ রাজপুত্রকে ‘সতর্কতামূলক ব্যবস্থা’ হিসেবে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে কিং সপ্তম এডওয়ার্ড হাসপাতালে ভর্তি করা হয় ফিলিপকে। আপাতত দিন কয়েক সেখানেই চিকিৎসকদের নজরদারিতে থাকবেন ফিলিপ। হাসপাতালে কিছু শারীরিক পরীক্ষানিরীক্ষাও করা হবে তার। যদিও এই সবই রুটিন পরীক্ষা বলে জানিয়েছে বাকিংহাম প্যালেস।

রাজপ্রাসাদের সূত্রের বরাতে বিবিসি জানিয়েছে, গাড়িতে করে হাসপাতালে যান প্রিন্স ফিলিপ। সেখানে ডাক্তারের পরামর্শে ভর্তি হন তিনি। গত কয়েক দিন ধরেই খানিক অসুস্থ ছিলেন তিনি। তবে এই অসুস্থতার সঙ্গে করোনাভাইরাসের সংশ্লিষ্টতা নেই। হাসপাতালে ভর্তি হলেও মানসিক ভাবে চাঙ্গা রয়েছেন তিনি।

২০১৭ সালে রানির স্বামী হিসাবে নিজের সমস্ত দায়িত্ব কর্তব্য থেকে অবসর নেন ফিলিপ। শারীরিক অসুস্থতার কারণ দেখিয়েই তিনি সরে দাঁড়ান। তার পর থেকে প্রকাশ্যে খুব কমই এসেছেন তিনি।

ইংল্যান্ডে করোনা ভাইরাসের কারণে লক ডাউন শুরু হওয়ার পর এলিজাবেথের সঙ্গে লন্ডনের উইন্ডসর কাসলে থাকছিলেন ফিলিপ। ব্রিটেনের নৌ বাহিনীর সাবেক কর্মকর্তা ফিলিপ যৌবনে দারুণ পোলো খেলোয়াড় ছিলেন। বরাবরই সুস্বাস্থ্যের অধিকারী তিনি। তবে ইদানীং বয়সের কারণে মাঝে মধ্যেই তার অসুস্থ হওয়ার খবর সামনে এসেছে।

এছাড়া আগেও বেশ কয়েকবার হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন প্রিন্স ফিলিপ। ২০১১ সালে হার্টে ব্লকের চিকিৎসা নেন তিনি। ২০১২ সালে তার ব্লাডারে সংক্রমণের চিকিৎসা হয়। এছাড়া ২০১৩ সালের জুনে তার পেটে সার্জারি করা হয়। ২০১৭ সালে সরকারি কর্তব্য থেকে অবসর নেয়ার আগে ডাক্তারের পরামর্শে তিনি ২০১৬ সালে ব্যাটেল অব জুটল্যান্ডের বর্ষপূর্তির অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত থাকেন তিনি। সূত্র: বিবিসি, ডেইলি মেইল।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: যুক্তরাজ্য


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ