Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮, ০২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম

আবারো অবৈধ অভিবাসীদের বিতাড়নের ঘোষণা ট্রাম্পের

প্রকাশের সময় : ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

অভিবাসন আটকাতে সীমান্তে প্রাচীর নির্মাণ করতে চান মেক্সিকোর টাকায়
ইনকিলাব ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসকারী অবৈধ অভিবাসীদের আবারো বিতাড়ন করার ঘোষণা দিয়েছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। ট্রাম্প বলেন, আমি যদি প্রেসিডেন্ট হতে পারলে অবশ্যই অবৈধ অভিবাসীদের বিতড়ন ত্বরান্বিত করবো। তার মতে, এটা সম্ভব না হলে মার্কিন নাগরিকদের কল্যান ঝুঁকির মুখে পড়বে। পাশাপাশি মেক্সিকো সীমান্তে প্রাচীর তৈরির ঘোষণা দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের রিপাবলিকান পার্টির প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, অভিবাসনপ্রত্যাশীদের ঠেকানোর জন্যই এ সীমান্তে দেয়াল তোলার প্রস্তাব দিয়েছি। একইসঙ্গে এও দাবি করেন যে, সীমান্ত দেয়াল নির্মাণের শতভাগ ব্যয় বহন করবে মেক্সিকো। যুক্তরাষ্ট্রের আরিজোনা অঙ্গরাজ্যে অভিবাসন ইস্যুতে দেয়া এক বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। অপরদিকে ভাষণের কয়েক ঘণ্টা আগেই মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট এনরিকো পেনে নিয়েতোর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। এ সময় এনরিকো বলেন, দেয়াল নির্মাণের ব্যয় সংক্রান্ত বিষয়ে কোনও আলোচনা হয়নি। তবে পরে মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট দৃঢ়তার সঙ্গে জানান, তিনি ট্রাম্পকে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন তার দেশ কোনও অর্থ পরিশোধ করবে না। গতকাল বৃহস্পতিবার যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম এক প্রতিবেদনে এ খবর নিশ্চিত করেছে। আরিজোনায় দেয়া ভাষণে ট্রাম্প বলেন, তিনি যুক্তরাষ্ট্র সীমান্তকে সুরক্ষিত করবেন। লাখ লাখ অবৈধ অভিবাসীকে বিতাড়ন করা হবে। উল্লেখ্য, এর আগে নির্বাচনী প্রচারণায় যুক্তরাষ্ট্রে অভিবাসী মেক্সিকানদের সন্ত্রাসী ও ধর্ষক হিসেবে অ্যাখ্যা দেন ট্রাম্প। আর তাদের ঠেকাতে দুই দেশের সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের পরিকল্পনার কথা জানান আলোচিত-সমালোচিত এ ব্যবসায়ী কাম রাজনীতিক। খবরে বলা হয়, মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট এনরিক পিনা নিয়েতোর আমন্ত্রণে গত বুধবার এই সফর করেন। মেক্সিকো সফরের কথা ট্রাম্প নিজেই গত মঙ্গলবার টুইটারে জানিয়েছিলেন। এছাড়া টুইটারে দেয়া এক বার্তায় মেক্সিকো সরকারও বুধবার ট্রাম্প এবং পিনা নিয়েতোর বৈঠকের বিষয়টি নিশ্চিত করে। অবশ্য এই সফরের আগেও ওয়াশিংটনের এভারেটে দেয়া এক নির্বাচনী সমাবেশের বক্তৃতায় ট্রাম্প আবারো অভিবাসী ও শরণার্থী বিষয়ে তার কঠোর অবস্থানের কথা তুলে ধরেছেন। প্রসঙ্গত, গত জুলাই মাসে ওহিও অঙ্গরাজ্যের ক্লিভল্যান্ডে রিপাবলিকান ন্যাশনাল কনভেনশনে প্রার্থী হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে মনোনয়ন গ্রহণকালে এই দেয়াল নির্মাণের কথা বলেছিলেন ট্রাম্প। ওই কথা বলার পর থেকেই তোপের মুখে পড়েন তিনি। মজার ব্যাপার হচ্ছে, এত সমালোচনা সত্ত্বেও মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট নিয়েতোর আমন্ত্রণে কয়েক ঘণ্টার জন্য দেশটি সফর করলেন ট্রাম্প। বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, নানা রকম সমালোচনার কারণে মেক্সিকোর সঙ্গে কঠিন সম্পর্ককে সহজ করার সুযোগটা সহজেই লুফে নিয়েছেন ট্রাম্প। বার্তা সংস্থাগুলো জানায়, ট্রাম্প মেক্সিকোর প্রেসিডেন্টের সঙ্গে একান্তে বৈঠক করেছেন। এছাড়া আলোচিত এই সফর সম্পর্কে ট্রাম্পের টুইটের পর মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট নিয়েতোও টুইট করেন। তিনি বলেন, মেক্সিকোর স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়ে আমি সবসময়ই আলোচনায় আগ্রহী, বিশেষ করে যেখানে মেক্সিকানদের রক্ষা করার বিষয় থাকে। দেশটির প্রেসিডেন্টের দপ্তর জানিয়েছে, তারা ট্রাম্পের প্রতিদ্বন্দ্বী হিলারি ক্লিনটনকেও মেক্সিকোতে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। এপি, বিবিসি, রয়টার্স, সিএনএন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ