Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৭, ১৪ রজব ১৪৪২ হিজরী

উত্তরাখণ্ডে নিখোঁজ ১৩৬ জনকে ‘মৃত’ ঘোষণা করা হতে পারে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ৪:০২ পিএম | আপডেট : ৪:৩৯ পিএম, ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২১

ভারতের উত্তরাখণ্ডের চামোলির বিপর্যয়ের পর দু’সপ্তাহ পার হয়ে গিয়েছে। কিন্তু এখনও নিখোঁজ ১৩৬ জনের কোনও সন্ধান পাওয়া যায়নি। নিখোঁজ এই ১৩৬ জনকে মৃত বলে ঘোষণা করা হতে পারে বলে দাবি করেছে প্রশাসনিক এক সূত্র।

গত ৭ ফেব্রুয়ারি নন্দাদেবী পাহাড় থেকে তুষারধস নেমে হড়পা বানের সৃষ্টি হয়। যার জেরে ২০০-রও বেশি মানুষ নিখোঁজ হয়ে যান। ৬৮ জনের লাশ উদ্ধার হলেও বাকি নিখোঁজদের এখনও কোনও সন্ধান পাওয়া যায়নি। সোমবার পর্যন্ত ৬৮ জনের লাশ উদ্ধার হয়েছে। তাদের মধ্যে ১৪ জনের লাশ পাওয়া গিয়েছে তপোবনের বিদ্যুৎপ্রকল্পের নির্মীয়মাণ সুড়ঙ্গের মধ্যে। বাকিদের লাশ মিলেছে আশপাশ এলাকা থেকেই।

সূত্রের খবর, সাধারণত কোনও ব্যক্তি নিখোঁজ হওয়ার পর সাত বছর তার কোনও হদিশ না পাওয়া গেলে তাকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। কিন্তু চামোলির ঘটনায় নিখোঁজদের ক্ষেত্রে বিষয়টি আলাদা বলেই দাবি ওই সূত্রের। এ ক্ষেত্রে রেজিস্ট্রেশন অব বার্থস অ্যান্ড ডেথস আইন, ১৯৬৯ অনুসরণ করা হতে পারে। এই আইন অনুযায়ী কোনও নিখোঁজ ব্যক্তিকে সাত বছরের আগেই মৃত বলে ঘোষণা করা যেতে পারে। নিখোঁজদের পরিবারকে ইতিমধ্যেই খবর দেওয়া হয়েছে ডিএনএ-র নমুনা পরীক্ষার জন্য।

নিখোঁজদের মৃত বলে ঘোষণা করার প্রক্রিয়াও শুরু হয়ে গিয়েছে বলে ওই সরকারি সূত্রের দাবি। মৃতদের পরিবারকে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে ৪ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেয়ার কথা ঘোষণা করা হয়েছে। ২ লাখ টাকা দেবে কেন্দ্র সরকার। সূত্র: এনডিটিভি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত

২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ