Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১, ০৮ বৈশাখ ১৪২৮, ০৮ রমজান ১৪৪২ হিজরী

যন্ত্রণা নিয়েই মহাকাশে যাচ্ছেন হেলে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ৫:৩৩ পিএম

দুরারোগ্য হাড়ের ক্যানসারে আক্রান্ত হয়েছিলেন। সেই ঘটনার ১৯ বছর পরে এবার মহাকাশে পাড়ি দিচ্ছেন হেলে আরসেনোয়াক্স। মাত্র ২৯ বছর বয়সে। এর আগে এত কম বয়সে আমেরিকার আর কেউই যাননি মহাকাশে। সোমবার হেলে নিজেই দিয়েছেন এই সুখবর।

হেলে আর কয়েক মাসের মধ্যে চড়বেন স্পেস-এক্সের মহাকাশযানে। পৃথিবীর একের পর এক কক্ষপথে প্রদক্ষিণ করতে। তাঁর সঙ্গী হবেন বিশিষ্ট উদ্যোগপতি জারেড আইজ্যাকম্যান ও আরও দু’জন। হেলেসহ ৪ জনকে দিয়েই প্রথম ব্যক্তিগত মহাকাশ ভ্রমণ অভিযান শুরু করতে চলেছে এলন মাস্কের স্পেস-এক্স। ৪ জনকেই মহাকাশে যেতে হচ্ছে নিজেদের পকেটের টাকা খরচ করে।

মাত্র ১০ বছর বয়সে হাঁটুতে ক্যানসার হয়েছিল টেনেসির বাসিন্দা হেলের। দীর্ঘ দিন ধরে তার চিকিৎসা হয়েছিল মেম্ফিসের সেন্ট জুড চিলড্রেন্স রিসার্চ হসপিটালে। অস্ত্রোপচার করে বাদ দিতে হয়েছিল হাঁটু। অন্য জনের হাঁটু জুড়তে হয়েছিল তার শরীরে। বাঁ দিকের থাইয়ে বসাতে হয়েছিল টাইটানিয়াম ধাতু দিয়ে বানানো রড। এই হাসপাতালেই এখন মেডিক্যাল অ্যাসিস্টান্টের কাজ করেন হেলে।

হেলে বলেছেন, ‘এখনও আমার বাঁ দিকের থাই আর হাঁটুতে খুব যন্ত্রণা হয়। আমি সেই যন্ত্রণা সহ্য করতে করতেই মহাকাশে যাওয়ার মতো ঝুঁকি ও ধকল নিতে শিখে গিয়েছি।’ জানিয়েছেন, অল্প বয়সে যারা দুরারোগ্য ক্যানসারে আক্রান্ত, এই মহাকাশ ভ্রমণের মাধ্যমে তিনি তাদেরও আশার আলো দেখাতে চান। স্পেস-এক্সের তরফে জানানো হয়েছে মহাকাশে গিয়ে হেল তার সফরসঙ্গী বাকি তিন জনের মেডিক্যাল অফিসার হিসাবে কাজ করবেন।

জানুয়ারিতে হেলের কাছে ফোন এসেছিল স্পেস-এক্সের তরফে। হেল তখন ছিলেন মেম্ফিসে। তিনি নির্বাচিত হয়েছেন জানিয়ে প্রশ্ন করা হয়েছিল, ‘আপনি কি যেতে চান মহাকাশে?’ হেল সঙ্গে সঙ্গে জবাব দিয়েছিলেন, ‘হ্যাঁ, হ্যাঁ। কেন নয়? আমি উদগ্রীব হয়ে রয়েছি মহাকাশে যাওয়ার জন্য।’ হেলে জানিয়েছেন, ওই ফোন পাওয়ার পরেই সুখবরটি প্রথম দিয়েছিলেন লুইজিয়ানায় তার মা-কে। তার পর ফোন করে খবরটি দিয়েছিলেন তার ভাই ও দুই অ্যারোস্পেস ইঞ্জিনিয়ার বোনজামাইকে। সূত্র: বিবিসি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: যুক্তরাষ্ট্র


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ