Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ১০ এপ্রিল ২০২১, ২৭ চৈত্র ১৪২৭, ২৬ শাবান ১৪৪২ হিজরী

নতুন মার্কিন প্রশাসন নিয়ে চিন্তিত ইসরাইল

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১২:০৭ এএম

আমেরিকার নিরাপত্তা বিষয়ক সেকেন্ডারি কমিটির সভাপতি হিসাবে কংগ্রেসওম্যান বেটি ম্যাক্কলামকে মনোনয় দেয়ার পর বাইডেন প্রশাসনের নতুন নিয়োগগুলি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ইসরায়েল । ফিলিস্তিনি বার্তা সংস্থা শেহাব গতকাল এ খবর দিয়েছে। শেহাবের বরাতে জানা গেছে, একটি ইসরায়েলি ওয়েবসাইটের খবরে বলা হয়েছে, ‘এই মনোনয়ন নিয়ে ইসরায়েলিদের মধ্যে অনেক উদ্বেগ রয়েছে কারণ তার নীতিমালা ইসায়েলের ফিলিস্তিনি ভ‚মি দখল এবং বারবার মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিরোধিতা করে।’

ওয়েবসাইটটি জানিয়েছে যে, ম্যাক্কালাম ২০১৪ সালে অধিকৃত পশ্চিম তীরের শহর রামাল্লায় দু›জন ফিলিস্তিনিকে হত্যা করা হলে, ইসরায়েলকে সাহায্য প্রদান নিষিদ্ধ করার আহবান জানিয়েছিলেন। তিনি ২০১৫ সালে ইউনাইটেড নেশন্স রিলিফ এন্ড ওয়ার্ক এজেন্সি (ইউএনআরডবিøউএ)-তে সহায়তা কমানোর মার্কিন সিদ্ধান্তের বিষয়েও আপত্তি জানিয়েছিলেন। ২০১৫ সালের জুনে ম্যাক্কলাম ফিলিস্তিনি শিশুদের লাগাতারভাবে আটকে রাখা এবং নির্যাতনের কারণে ইসরায়েলের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করার আহবান জানিয়ে তৎকালীন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরিকে পাঠানো একটি চিঠিতে স্বাক্ষর করেছিলেন তিনি।

ম্যাককালাম ২০১৬ সালে ইসরায়েলের মানবাধিকার লঙ্ঘনের তদন্তের পাশাপাশি দেশটির জাতিবিদ্বেষী জাতীয়তাবাদ আইনের বিষয়ে তদন্তেরও আহবান জানিয়ে একটি আবেদনেও স্বাক্ষর করেছিলেন, যে আইনের দ্বারা কেবলমাত্র ইহুদিদেরই স্বাধীনভাবে সিদ্ধান্ত নেয়ার অধিকার দেয়া হয়েছে। দেশটির আরব সংখ্যালঘু সদস্যরা এটিকে বর্ণবাদী এবং সম্প্রদায়বাদী বলে অভিহিত করেন।

আমেরিকার বেসামরিক নিরাপত্তা, গণতন্ত্র ও মানবাধিকার বিষয়ক আন্ডার সেক্রেটারি হিসাবে মানবাধিকার কর্মী উজরা জেয়াকে মনোনীত করা নিয়েও উদ্বিগ্ন ইসরায়েল। তিনি ফিলিস্তিনে ইসরায়েলি দখলদারিত্বের এবং আমেরিকান নীতি প্রণয়নে ক্ষেত্রে ইহুদি দালালদের আধিপত্য বিস্তারের বিরোধিতা করার জন্য সুপরিচিত। ইসরায়েলের প্রতি আমেরিকার একনিষ্ঠ সমর্থন নিশ্চিত করার জন্য কংগ্রেসম্যানদের ঘুষ বা চাঁদা দিয়ে মার্কিন নীতিমালা দূষিত করার ক্ষেত্রে ইহুদি দালালদের ভ‚মিকা সম্পর্কে একটি গবেষণাপত্রও তৈরি করেছিলেন জেয়া। সূত্র : মিডল ইস্ট মনিটর।

 

 

 



 

Show all comments
  • Harunur Rashid ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১:৪৯ এএম says : 0
    Looks like wheel of justice is moving, even though very slowly !
    Total Reply(0) Reply
  • রিপন ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ৩:১৬ এএম says : 0
    শান্তিপ্রিয় কোন মানুষ বা দেশ ইসরাইলকে সমার্থন করতে পারে না
    Total Reply(0) Reply
  • গোলাম মোস্তফা ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ৩:১৭ এএম says : 0
    এটা যদি সঠিক হয় তাহলে এটা নতুন-মার্কিন-প্রশাসনের জন্য সবচেয়ে উপযুক্ত সিদ্ধান্ত হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammed Ullah ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ৫:৪৮ এএম says : 0
    We can see where is the Israel power came from in the USA.
    Total Reply(0) Reply
  • salman ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ৮:০৯ এএম says : 0
    Alhamdu Lillah. BIDEN Yeahudi BODMAS der thik e chisen. Ade'r patta dete nai, ara JANWAR. Jodi kono din Sujug pay, ara Americar Ghar Motkabay. Ader k Allah porjonto Ovishap deyesen.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইসরাইল


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ