Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ০১ ব্শৈাখ ১৪২৮, ০১ রমজান ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

আদর্শিক লড়াইয়ে ইসলামকে বিজয়ী করতে হবে

বরিশালে পীর সাহেব চরমোনাই

বরিশাল ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১২:০০ এএম

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মাদ রেজাউল করীম, পীর সাহেব চরমোনাই বলেছেন, বাংলাদেশে এখন আদর্শিক লড়াই চলছে। এই আদর্শিক লড়াইয়ে ইসলামকে বিজয়ী করতে ছাত্র সমাজকে প্রস্তুতি নিতে হবে। গতকাল ঐতিহাসিক চরমোনাই মাহফিলের তৃতীয় দিনে ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন আয়োজিত ছাত্র গণজমায়েতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, স্থানীয় নির্বাচন সমাগত। এ নির্বাচনে ইসলামকে বিজয়ী করতে হবে। আর এ বিজয়ে ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনকে অগ্রণী ভ‚মিকা পালন করারও আহবান জানান তিনি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে হিজাব দিবস পালনকালে ইশা ছাত্র আন্দোলনের ওপর ছাত্রলীগের হামলার বিষয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, ওরা ইসলাম বিরোধী শক্তি। এজন্য ইসলামের চিহ্নগুলোও ওদের সহ্য হয়না। সুতরাং ইসলাম বিজয়ী আদর্শ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হলে সকল শয়তানি শক্তির অশুভ কর্মকান্ড ভেস্তে যাবে ইনশাআল্লাহ।
ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সভাপতি নূরুল করীম আকরাম-এর সভাপতিত্বে ছাত্র গণজমায়েতে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর মহাসচিব প্রিন্সিপাল হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ বলেন, ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন এদেশের শিক্ষার্থীদের নৈতিকভাবে আদর্শবান হিসেবে গড়ে তোলার জন্য কাজ করে যাচ্ছে। সুতরাং চরমোনাইতে আগত অনাগত সকল সচেতন অভিভাবকদের উচিত তাদের সন্তানদের এ সংগঠনে সম্পৃক্ত করে দেয়া।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জাতীয় শিক্ষক ফোরামের কেন্দ্রীয় সভাপতি অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে সরকার এদেশের শিক্ষাব্যবস্থা ভেঙ্গে দেয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে। আমরা স্পষ্টভাবে বলতে চাই, দেশব্যাপী শিক্ষার্থীদের বৃহৎ আন্দোলন শুরু হবার আগেই দ্রুততম সময়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সমূহ খুলে দিয়ে শিক্ষার পরিবেশ আবারো ফিরিয়ে আনুন।
সভাপতির বক্তব্যে নূরুল করীম আকরাম বলেন, স্বাধীনতার সূবর্ণজয়ন্তীতে এসেও শিক্ষার অধিকার আদায়ে এদেশের শিক্ষার্থীদের আন্দোলন করতে হবে, ব্যাপারটা ভাবতেই লজ্জিত হই। স্বাধীনতা-পরবর্তী সরকারগুলো সময়ের ব্যবধানে এদেশের সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানগুলো ধ্বংসের দিকে ধাবিত করেছে। দিন দিন প্রিয় বাংলাদেশ একটি ভঙ্গুর রাষ্ট্রে পরিণত হতে চলেছে। সচেতন শিক্ষার্থীরা এভাবে চলতে দিতে পারে না। তাই বাংলাদেশকে একটি কল্যাণ রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তোলার জন্য ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন দেশের সর্বস্তরের শিক্ষার্থীদের মাঝে কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে।
শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের সর্বশেষ ঘোষণা সম্পর্কে নূরুল করীম আকরাম বলেন, গণপরিবহনে চাপাচাপি করে যাত্রী বহন, প্রেক্ষাগৃহ থেকে শুরু করে অফিস আদালত সবকিছু খুলে দেয়া হয়েছে। এমতাবস্থায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার কোনো কারণ নেই। সরকার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে দেশের শিক্ষাব্যবস্থাকে ভেঙ্গে দিচ্ছে। অবিলম্বে দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া না হলে দেশব্যাপী তীব্র আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।
সংগঠনের সেক্রেটারি জেনারেল শেখ মুহাম্মাদ আল আমিন এর সঞ্চালনায় ছাত্র গণজমায়েতে বক্তব্য রাখেন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর প্রেসিডিয়ামের অন্যতম সদস্য আল্লামা নূরুল হুদা ফয়েজী, কেন্দ্রীয় দফতর সম্পাদক মাওলানা লোকমান হোসাইন জাফরী, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আবুল কাশেম, সংখ্যালঘু বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা মকবুল হোসাইন, ওমান কেন্দ্রীয় কমিটির সেক্রেটারি মীর আহমেদ মীরু, মালয়েশিয়া মাশা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদের নির্বাচিত ভিপি বশির ইবনে জাফর।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পীর সাহেব চরমোনাই


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ