Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২৪ এপ্রিল ২০২১, ১১ বৈশাখ ১৪২৮, ১১ রমজান ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

নির্বাচনে পরাজিত আ.লীগ নেতাকর্মীরা বেকায়দায়

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১২:০০ এএম

নির্বাচনে হেরে বেকায়দায় পড়েছেন আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা। স্থানীয় সরকার নির্বাচনে দলের সিনিয়র নেতাদের কথামত কাজ না করায় প্রতিহিংসার শিকার দলের নেতাকর্মীরা। নোয়াখালী সোনাইমুড়ী পৌরসভার নির্বাচনে সিনিয়র নেতাদের নির্দেশের বাইরে কাউন্সিলর নির্বাচন করে বেকায়দায় পড়েছেন অনেক নেতাকর্মী। বর্তমানে অনেক নেতাকর্মী মামলার আসামী। নেতাকর্মীদের অভিযোগ, ক্ষমতাসীন সরকারের ১৪ বছর পার হলেও সিনিয়র নেতাদের প্রতিহিংসার শিকার হয়েছেন আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় থাকলেও কেন নেতাকর্মীরা এ প্রতিহিংসার শিকার হচ্ছেন এই প্রশ্ন তাদের।
সোনাইমুড়ী পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর নির্বাচনে পরাজিত প্রার্থী পৌরসভা যুবলীগের সহ-সভাপতি শাহজাহান সাজু এবং তার নির্বাচনে যারা কাজ করেছেন তারা এখন এলাকা ছাড়া। তাদের নামে মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলায় আসামি করা হয়েছে ৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি হানিফ কালু মিয়া, যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ইব্রাহিম, সহ-সভাপতি জহিরুল ইসলাম, মোঃ জসিম, যুবলীগের সদস্য জহির, ৬নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সদস্য মোঃ রাসেল আরো একাধিক নেতকর্মী।
শাহজাহান সাজু বলেন, আমার একমাত্র অপরাধ কেন আমি কাউন্সিলর প্রার্থী হলাম, আমি একজন আওয়ামী পরিবারের সন্তান, আমার পিতা মোঃ হানিফ কালু আওয়ামী লীগের নেতা। অথচ সিনিয়র নেতাদের নির্দেশের বাইরে কাউন্সিলর নির্বাচন করায় আমার নামে হত্যা চেষ্টা মামলা, বাড়ি ভাঙচুরসহ নানা মামলা দেয়া হয়েছে। আমি এ পর্যন্ত প্রায় প্রতিহিংসার রাজনীতির শিকার হয় একাধিক মামলার আসামি হয়েছে ফেরারী অবস্থায় দিনাতিপাত করছি। আমার সব চেয়ে দুর্ভাগ্য আমার দল ক্ষমতায় তবু আমি একাধিক মামলার আসামি। আমি থানায় গিয়েছিলাম মামলা করতে কিন্তু পুলিশ মামলা নেয়নি। তিনি জানান, আমার সরকার ক্ষমতায় থাকলেও কেন আমি প্রতিহিংসার শিকার হলাম এ আমার বোধগম্য নয়। রাজনৈতিক টানাপোড়েনের ক্ষমতার পালাবদলে দিন পরিবর্তন হলেও। আমি কেন আজ অসহায়? এই প্রশ্ন রাখি আমার নেত্রী শেখ হাসিনার কাছে।
তিনি বলেন, আশ্চর্যের বিষয় হলো যিনি আমাকে মামলার আসামি বানিয়েছেন তার আমার এলাকা থেকে ৬-৭ কিলোমিটার দূরত্ব এবং তার গ্রামের বাড়ি ১নং জয়াগ ইউনিয়নে।
এ বিষয়ে সোনাইমুড়ী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাবুল (বাবু) বলেন, ঘটনা আমি শুনেছি শাহজাহান সাজু আমাকে জানিয়েছেন। সিনিয়র রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের প্রতিহিংসার শিকার সোনাইমুড়ী উপজেলা ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীরা এমন কথা সম্পূর্ণ মিথ্যা। নোয়াখালী সোনাইমুড়ী পৌর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ সাহাবুদ্দিন বলেন, ভাই লীগের কারণেই আমাদের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলাগুলো হয়েছে।



 

Show all comments
  • রোদেলা ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ২:২৫ এএম says : 0
    এটাই স্বাভাবিক
    Total Reply(0) Reply
  • Md Shahinur Islam ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ৮:১৫ এএম says : 0
    সারাদেশে একই অবস্থা
    Total Reply(0) Reply
  • মশিউর ইসলাম ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ৮:১৬ এএম says : 0
    ‘‘আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় থাকলেও কেন নেতাকর্মীরা এ প্রতিহিংসার শিকার হচ্ছেন এই প্রশ্ন তাদের’’ -- এটা আমাদেরও প্রশ্ন।
    Total Reply(0) Reply
  • সাকা চৌধুরী ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ৮:১৭ এএম says : 0
    এক তরফা্ ভোটের যুগেও যদি নৌকার টিকিট না পেয়ে জিততে না পারে তাহলে তাকে আজীবন বহিষ্কার করা উচিত।!!!
    Total Reply(0) Reply
  • জাহিদ খান ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ৮:১৮ এএম says : 0
    হয়তো তারা চুরি বিদ্যার পারদর্শী নয়, এজন্য পরাজিত হয়েছে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আওয়ামী লীগ


আরও
আরও পড়ুন