Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ২৮ চৈত্র ১৪২৭, ২৭ শাবান ১৪৪২ হিজরী

আজ ওয়াসার পাম্প স্টেশন উদ্বোধন করছেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

পানি পাচ্ছেন বন্দর-পতেঙ্গাবাসী

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ৮:৪৩ এএম

অবশেষে নগরীর বন্দর-ইপিজেড-পতেঙ্গা এলাকায় পানির হাহাকার মিটছে। মদুনাঘাট শেখ রাসেল পানি সরবরাহ প্রকল্পে উৎপাদিত দৈনিক সাড়ে ৪ কোটি লিটার পানি পেতে যাচ্ছে এই এলাকাবাসী। আজ শনিবার ‘পতেঙ্গা বুস্টিং পাম্প স্টেশন’ উদ্বোধনের মধ্যদিয়ে পানি সরবরাহ শুরু হবে। উদ্বোধন করবেন স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো তাজুল ইসলাম।
এখন থেকে নিয়মিত পানি যাবে ইপিজেড-বন্দরসহ পতেঙ্গার সর্বশেষ প্রান্ত পর্যন্ত।
নগরীর সর্ব দক্ষিণ প্রান্তে অবস্থান পতেঙ্গা উপকূলীয় এলাকার। এই এলাকায় এতদিন ওয়াসার পাইপ লাইন থাকলেও এলাকাবাসী নিয়মিত পানি পেত না। পানির জন্য সারাবছরই হাহাকার লেগে থাকত। এর প্রেক্ষিতে বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে চট্টগ্রাম ওয়াসা চিটাগাং ওয়াটার সাপ্ল্লাই ইমপ্রুভমেন্ট অ্যান্ড স্যানিটেশন প্রকল্পের অধীনে মদুনাঘাট পানি সরবরাহ প্রকল্পটি গ্রহণ করে।
মদুনাঘাট পানি শোধনাগার প্রকল্প থেকে প্রতিদিন ৯ কোটি লিটার পানি উৎপাদন হচ্ছে। এই প্রকল্পের অর্ধেক পানি ইপিজেড-বন্দর ও পতেঙ্গা এলাকায় সরবরাহের উদ্যোগ নিয়েছে চট্টগ্রাম ওয়াসা ।
অবশিষ্ট পানি বহদ্দারহাট থেকে আন্দরকিল্লা-বাকলিয়া-খাজা রোড, ডিসি রোড, খাতুনগঞ্জ, কালামিয়া বাজার এবং বহদ্দারহাট থেকে তেলিপট্টি মোড়, আরাকান হাউজিং সোসাইটি-চান্দগাঁও আবাসিক এলাকা হয়ে মোহরা পর্যন্ত যাচ্ছে।
পতেঙ্গা এলাকায় নিয়মিত পানি সরবরাহ নিশ্চিত করতে পাম্প স্টেশনের পাশে একটি রিজার্ভার স্থাপন করা হয়েছে । রিজার্ভার থেকে পানি পাম্পিং করে পতেঙ্গার শেষ প্রান্তে নিয়ে যাওয়া হবে । ২৪ ঘণ্টা পাম্পিং করা হবে। বিদ্যুৎ না থাকলেও শক্তিশালী জেনারেটরের মাধ্যমে পাম্পিংয়ের ব্যবস্থা রয়েছে। আগে পতেঙ্গা এলাকায় পুরনো একটি পাম্প হাউজ রয়েছে। সেটির পাম্পিং ক্ষমতা মাত্র দেড় কোটি লিটার।
ওয়াসা সূত্র জানায়, ১৮৯০ কোটি টাকার চিটাগাং ওয়াটার সাপ্ল্লাই ইমপ্রুভমেন্ট অ্যান্ড স্যানিটেশন প্রকল্পের অধীনে দৈনিক ৯ কোটি লিটার পানি উৎপাদন ক্ষমতা সম্পন্ন মদুনাঘাট শেখ রাসেল পানি সরবরাহ প্রকল্প, পতেঙ্গা পর্যন্ত পাইপ লাইন প্রকল্প, কালুরঘাটে ৯ কোটি লিটার বুস্টিং পাম্প স্টেশন এবং পতেঙ্গা সাড়ে ৪ কোটি লিটার বুস্টিং পাম্প স্টেশন স্থাপন করা হয়েছে। এর মধ্যে কালুরঘাট বুস্টিং পাম্প স্টেশন থেকে পাম্পিং করে সাড়ে ৪ কোটি লিটার পানি পতেঙ্গা বুস্টিং স্টেশনে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ