Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ২৮ চৈত্র ১৪২৭, ২৭ শাবান ১৪৪২ হিজরী

যুক্তরাষ্ট্র জনসন অ্যান্ড জনসনের টিকার অনুমোদন দিল

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ৯:২৩ এএম | আপডেট : ১০:১৫ এএম, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১

বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে জরুরি প্রয়োজনে ব্যবহারের জন্য জনসন অ্যান্ড জনসনের টিকার অনুমোদন দিলো যুক্তরাষ্ট্র। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, আগামী জুন নাগাদ দেশটিতে ১০ কোটি টিকার ডোজ সরবরাহ করবে জনসন অ্যান্ড জনসন।

ফাইজার-বায়োএনটেক ও মডার্নার পর এবার জনসন অ্যান্ড জনসনের করোনা টিকার অনুমোদন দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটির অন্যতম নিয়ন্ত্রক সংস্থা খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন (এফডিএ) স্থানীয় সময় শনিবার এই অনুমোদন দিয়েছে।

এফডিএর এই অনুমোদনে উচ্ছাস প্রকাশ করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। পাশাপাশি করোনা বিষয়ক স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ব্যাপারে সচেতন থাকতে দেশের জনগণকে আহ্বানও জানিয়েছেন তিনি।

এক বিবৃতিতে জো বাইডেন বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের সব নাগরিকদের জন্য আনন্দের সংবাদ— অবশেষে আমরা হাতের নাগালে জনসন অ্যান্ড জনসনের টিকা পাচ্ছি। যদিও এই সংবাদটি আমাদের জন্য উদযাপনের উপলক্ষ্য বয়ে এনেছে, তারপরও মনে রাখা প্রয়োজন, আরো বেশ কিছুদিন করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করে যেতে হবে আমাদেরকে।’

‘আমি সব আমেরিকানদের বলব— নিয়মিত হাত পরিষ্কার রাখুন, সামজিক দূরত্ব বজায় রাখুন এবং মাস্ক ব্যবহার অব্যাহত রাখুন। কারণ, আমরা সবাই ইতোমধ্যে জেনেছি বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো যুক্তরাষ্ট্রেও করোনার কয়েকটি নতুন ধরন শনাক্ত হয়েছে, যেগুলো অনেক বেশি সংক্রামক।’

‘যদি আমরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ব্যাপারে যত্নশীল না হই, সেক্ষেত্রে এখন পর্যন্ত পরিস্থিতির যতখানি উন্নয়ন হয়েছে- নিমিষে তা উল্টে যেতে পারে।’

ফাইজার-বায়োএনটেক, মডার্না, স্পুটনিক ৫, অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা, কোভিশিল্ডসহ অন্যান্য যেসব করোনা টিকা বাজারে পাওয়া যাচ্ছে সেগুলো দু’ডোজের টিকা। এসব টিকার প্রথম ডোজ নেওয়ার একটি নির্দিষ্ট সময় পেরুনোর পর দ্বিতীয় ডোজ নিতে হয়।

কিন্তু জনসন অ্যান্ড জনসনের করোনা টিকা এক ডোজের। অর্থাৎ, এই টিকার প্রথম ডোজেই মানবদেহে কার্যকর করোনা প্রতিরোধী প্রোটিন গড়ে ওঠে। অন্যান্য টিকার তুলনায় সাশ্রয়ী জনসন অ্যান্ড জনসনের টিকা সংরক্ষণের জন্য বিশেষ ফ্রিজারের প্রয়োজন হয় না, সাধারণ রেফ্রিজারেটরেই এই টিকার ডোজ সংরক্ষণ করা সম্ভব।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ