Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ২৮ চৈত্র ১৪২৭, ২৭ শাবান ১৪৪২ হিজরী

যৌনকর্মীরা করোনার টিকা নিচ্ছেন

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১১:২৬ এএম

এবার মানিকগঞ্জের দৌলতদিয়ার যৌনকর্মীদের করোনার টিকা দেওয়া শুরু হয়েছে। বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় এ যৌনপল্লিতে একটি আলাদা টিকাদান কেন্দ্র খোলারও পরিকল্পনা করেছে কর্তৃপক্ষ। খবর ডয়চে ভেলে।

সম্প্রতি করোনার টিকা নিয়েছেন দৌলতদিয়ার বাসিন্দা বিউটি। যদিও শুরুতে তেমন একটা আগ্রহ ছিল না তার। টিকা নিলে মানুষ মারা যায় এমন কথাও শুনেছিলেন, তবে পরে জেনেছেন সেটি গুজব।

বিউটি বলেন, ‘স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা আমাদের আশ্বস্ত করেছেন। যেহেতু প্রতিদিন অনেক মানুষের কাছাকাছি আসি আমরা সে কারণে টিকা নেওয়ার গুরুত্বটা বুঝতে পেরেছি।’

ইতিমধ্যে এখানকার শতাধিক বাসিন্দা টিকা নিয়েছেন।

গত ৭ ফেব্রুয়ারি দেশে গণ টিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এরই মধ্যে ত্রিশ লাখের বেশি মানুষ টিকা নিয়েছেন। সাধারণত চল্লিশোর্ধ্বরা অনুমতি পেলেও দৌলতদিয়ার যৌনকর্মীদের ক্ষেত্রে বয়সসীমাও শিথিল করেছে কর্তৃপক্ষ।

স্থানীয় প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা আসিফ মাহমুদ বার্তা সংস্থা এএফপিকে জানান, ‘যৌনকর্মীদের টিকাদান জরুরি হয়ে পড়েছে, কেননা প্রতিদিন হাজারো মানুষ যৌনপল্লিতে আসেন। এখানকার যৌনকর্মীরা ভাইরাসের অন্যতম ঝুঁকিতে রয়েছেন।’

সবাই যাতে টিকা নিতে আগ্রহী হয় সে জন্য পল্লিতে বিভিন্নভাবে প্রচারও চালাচ্ছে কর্তৃপক্ষ, জানিয়েছেন দৌলতদিয়ার প্রধান চিকিৎসক মোহাম্মদ ইব্রাহিম।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গত মার্চে লকডাউন আরোপের সময় দৌলতদিয়ায় বাইরের কারো প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়। এর ফলে আর্থিক সংকটে পড়েন যৌনকর্মীরা। তবে টিকা কার্যক্রমের কারণে পরিস্থিতি বদলাবে বলে আশা তাদের।

দৌলতদিয়ায় এখন প্রায় এক হাজার ৯০০ যৌনকর্মী বসবাস করে। এ ছাড়া দেশে অন্তত আরও দশটি যৌনপল্লি চালু রয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস

১১ এপ্রিল, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ