Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩ আশ্বিন ১৪২৮, ২০ সফর ১৪৪৩ হিজরী

২৪ বছর আমিও পুলিশ অফিসার ছিলাম : চট্টগ্রামে যৌথ মহড়ায় মার্কিন রাষ্ট্রদূত মিলার

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ৭:০৩ পিএম

বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার বলেছেন, ২৪ বছর আমি একজন পুলিশ অফিসার ছিলাম। যখন আমি পুলিশের সঙ্গে থাকি তখন আমার মনে হয় আমি পরিবারে সঙ্গে আছি। সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলায় বৈশি^ক যুদ্ধে পুলিশও আমাদের অংশীদার।

রোববার চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) ক্রাইসিস রেসপন্স টিম ও বোম ডিসপোজাল ইউনিটের যৌথ মহড়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আর্ল রবার্ট মিলার এসব কথা বলেন। নগরীর দামপাড়া পুলিশ লাইন্সের এসএএফ মাঠে এ মহড়া অনুষ্ঠিত হয়।
রাষ্ট্রদূত বলেন, আপনাদের কাজের চেয়ে জরুরি কিছু হতে পারেন না। কারণ আপনারা এ দেশের নাগরিকদের সুরক্ষা দেন, দেখভাল করেন। মানুষের জীবন বাঁচানোর চেয়ে বড় দায়িত্ব আর কিছুই হতে পারে না। পুলিশ হিসেবে মানুষের জন্য যে কাজ করেন তার জন্য আপনারা ধন্যবাদ পান না। আমি যখন বাংলাদেশে থাকি আমার নিরাপত্তার দায়িত্বেও আপনারা থাকেন। এ জন্য আপনাদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি।
সিএমপি কমিশনার সালেহ মোহাম্মদ তানভিরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের রিজিওনাল সিকিউরিটি অফিসার প্রিসটিনা উইলিয়ামস ও সিনিয়র কাউন্টার টেররিজম অ্যাডভাইজার ক্রিসটোপার উইনগার্ড।
পুলিশ কমিশনার সালেহ মোহাম্মদ তানভির বলেন, সিএমপিতে এ রকম একটা প্রশিক্ষণ এক মাস ধরে হচ্ছে। প্রশিক্ষণ পরিদর্শন করেছেন রাষ্ট্রদূত। তিনি এ ট্রেনিংয়ের সরঞ্জামগুলো ব্যবহারের উপযুক্ত কিনা দেখেছেন। সঙ্গে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন আগামীতেও এ ধরনের ট্রেনিং অব্যাহত থাকবে। তিনি বলেন, পুলিশ বাহিনীতে অত্যাধুনিক ইউনিট গঠন করা সময়ের দাবি। বর্তমান সরকারের এ সময়ের মধ্যে সব মহানগরে এ ধরনের টিম গঠন করা হয়েছে।
সিএমপির ক্রাইসিস রেসপন্স টিম ও বোম ডিসপোজাল ইউনিট সদস্যদের দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্রের ইউএস ডিপার্টমেন্ট অব স্টেট এন্টি টেররিজম অ্যাসিসটেন্স প্রোগ্রামের আওতায় সিআরটি মেন্টরশিপ ও বিডিইউ মেন্টরশিপ ট্রেনিং কার্যক্রম মাসব্যাপী চলছে। এতে প্রশিক্ষণ দিচ্ছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সোয়াট কমান্ডো, নেভি সিল কমান্ডো, এক্স ইউএস আর্মির প্রশিক্ষকরা।
মেয়রের সাথে সাক্ষাত
রাষ্ট্রদূত মিলার সিটি মেয়র এম রেজাউল করিম চৌধুরীর সাথে নগর ভবনে সৌজন্য সাক্ষাত করেন। এ সময় তিনি বলেন, চট্টগ্রামের আর্থনৈতিক ও ভৌগলিক গুরুত্ব অনেক। পর্যটন খাতে বিনিয়োগে যুক্তরাষ্ট্র আগ্রহী। চট্টগ্রামের ব্যাপক উন্নয়নের ফলে জাতীয় অর্থনীতিতে এর ইতিবাচক প্রভাব পড়বে বলেও জানান তিনি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ