Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ০১ ব্শৈাখ ১৪২৮, ০১ রমজান ১৪৪২ হিজরী

টর্নেডো নয়, মশার স্তম্ভ!

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১ মার্চ, ২০২১, ১২:০০ এএম

ধরা যাক, আপনি হাইওয়ে ধরে এগোচ্ছেন। হঠাৎই পিলে চমকে উঠল সামনের দিকে তাকিয়ে। মাটি থেকে উঠে ক্রমে আকাশের বুকে মিশে গিয়েছে ঝড়ের ধূসর শরীর! ধেয়ে আসছে টর্নেডো। বহু হলিউড ছবি কিংবা ইউটিউবে টর্নেডোর দাপটের ভিডিও দেখার ফলে আপনি জানেন, এরপরই চোখের সামনে সব উড়িয়ে, গুঁড়িয়ে চলে যাবে ভয়ংকর ঝড়। কিন্তু, না। যা ভাবছেন ব্যাপারটা আসলে তা নয়। ওটা ঝড় নয়। ওটা আসলে মশার ঝাঁক! আর্জেন্টিনায় দেখা গিয়েছে এমনই দৃশ্য।

হ্যাঁ, যতই অবাক লাগুক এটাই সত্যি। নেট দুনিয়ায় ভাইরাল এই ভিডিও। মশা নামের প্রাণীটিকে কারওই পছন্দ নয়। মশারির মধ্যে এক-আধটা ঢুকে পড়া মানেই ঘুমের দফারফা। আর এখানে তো রীতিমতো ব্যাটেলিয়ন! স্বাভাবিকভাবেই এই ভিডিও দেখে আঁতকে উঠছেন নেটিজেনরা। ভিডিও যার তোলা, বুয়েনস আয়ার্সের হাইওয়েতে এমন দৃশ্য দেখে তার কী অনুভূতি হয়েছিল তা সহজেই অনুমেয়। ভিডিওতে তাকে আতঙ্কিত সুরে স্প্যানিশ ভাষায় বলতে শোনা গিয়েছে, ‘এটা ক্রমেই বড় হচ্ছিল। এমনটা আমি এর আগে কখনও দেখিনি।’

ব্যাপারটাকে মোটেই ভালভাবে নিচ্ছেন না পরজীবী বিশেষজ্ঞরা। জুয়ান জোস গার্সিয়া নামের এক বিশেষজ্ঞের দাবি, বুয়েনস আয়ার্সে বেশ কয়েকদিন ধরে প্রবল বৃষ্টি হয়েছে। ফলে বহু জায়গায় পানি জমে গিয়েছে। যার ভিতরে ইচ্ছামতো ডিম পেড়েছে মশার দল। এর ফলে রাতারাতি প্রচুর পরিমাণে সংখ্যাবৃদ্ধি ঘটেছে তাদের। তারই ফলশ্রুতি ওই টর্নেডোর আকারে মশার ঝাঁক। গার্সিয়ার আশঙ্কা, ‘ওই বাহিনী চাইলে শহরও ধ্বংস করে দিতে পারে। সবথেকে বেশি ঝুঁকি রয়েছে যারা মাঠেঘাটে কৃষিকাজ করেন, তাদের।’ সূত্র : ওয়েদার ডটকম, নিউজ ১৮।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ