Inqilab Logo

শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯ আশ্বিন ১৪২৮, ১৬ সফর ১৪৪৩ হিজরী

করোনাকালে বাংলাদেশ

| প্রকাশের সময় : ২ মার্চ, ২০২১, ১২:০২ এএম

করোনাকালে বাংলাদেশ’ শীর্ষক একটি গ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে। ২০ ফেব্রুয়ারি জাতীয় প্রেসক্লাব অডিটোরিয়ামে এক বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানে এর মোড়ক উন্মোচন করা হয়। গ্রন্থটির লেখক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক ও চেয়ারম্যান, প্রথিতযশা লেখক, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সিনিয়র সদস্য এবং সাবেক মন্ত্রী ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। ড. মোশাররফ তাঁর দৃষ্টিভঙ্গি, পর্যবেক্ষণ, আবেগ, অনুভূতি, বিশ্বের খ্যাতিমান চিকিৎসা বিজ্ঞানীদের গ্রন্থ থেকে দালিলিক তথ্য-উপাত্ত, মিডিয়ায় প্রচারিত পরিসংখ্যান ও তথ্যাদি দিয়ে এই অনুপম এবং সমৃদ্ধ গ্রন্থ লিখেছেন।

লেখক অত্যন্ত প্রাঞ্জল ভাষায় বইতে করোনাভাইরাস পরিচিতি, মহামারির ইতিহাস, ইসলামের দৃষ্টিতে মহামারি, কোভিড-১৯ বাংলাদেশ পরিস্থিতি, প্রতিষেধক টিকা (ভ্যাকসিন), প্রতিরোধে সাধারণ ছুটি ও লকডাউন, করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে প্রণোদনা, করোনাকালে অসামঞ্জস্য বাজেট ও ভঙ্গুর অর্থনীতি, ভাইরাস নিয়ন্ত্রণে সম্মুখ যোদ্ধাদের ভ‚মিকা, শিক্ষাখাতে প্রভাব, দুর্যোগ ও দুর্ঘটনা, দুর্নীতি ও অব্যবস্থা, পবিত্র রমজান ও ঈদে করোনার প্রভাব, করোনাকালে ধর্ষণ, নারী ও শিশু নির্যাতন, মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ নেতাদের অতিকথনে জনমনে বিভ্রান্তিসহ করোনাকালে সংঘটিত দশ মাসের আদ্যোপান্ত বর্ণনা করেছেন। তিনি গ্রন্থটিতে মহামারি নিয়ে পবিত্র কোরআন ও নবী করিম (স.)’র হাদিস থেকে অনেক জীবনঘনিষ্ঠ নির্দেশনা উদ্ধৃত করেছেন। এছাড়াও ‘করোনাকালে বাংলাদেশে’ খুঁজে পাওয়া যাবে গুরুত্বপূর্ণ বিশ্লেষণসহ অনেক অজানা চমকপ্রদ তথ্য।

লেখক ড. মোশাররফ লিখেছেন, করোনা আগ্রাসনে আর্থিক, সামাজিক, শিক্ষা, আইন-শৃঙ্খলা ও শাসনসহ সর্বক্ষেত্রে বিরূপ প্রভাব ফেলেছে। করোনাকালে বর্ণিত এইসব বিষয়ে সূ² পর্যবেক্ষণ ও পর্যালোচনা এই গ্রন্থে সন্নিবেশিত হয়েছে। তিনি লিখেছেন, ‘কোভিড-১৯ সংক্রমণকালে ১০ মাসে আমার ব্যক্তিগত আবেগ, পর্যবেক্ষণ, দৃষ্টিভঙ্গি ও মন্তব্য বইটিতে উপস্থাপনের চেষ্টা করেছি। মহান আল্লাহর রহমতে করোনাভাইরাস সংক্রমণ আরও হ্রাস পেলে বা সম্প‚র্ণ নিয়ন্ত্রণে আসার পর প্রিয় পাঠক বিগত ১০ মাসের পরিস্থিতির দিকে ফিরে তাকাতে পারবেন বলে আমার দৃঢ় বিশ্বাস। বাংলাদেশের সংগ্রামী ও সাহসী জনগণ কীভাবে করোনাভাইরাসকে প্রতিরোধ করেছে, তার শিক্ষা ভবিষ্যতের কোনো দুর্যোগ প্রতিরোধে সহায়ক হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করছি।’

‘করেনাকালে বাংলাদেশে’র শেষভাগে পরিশিষ্ট-১ থেকে ৪ অংশটিও কম মূল্যবান নয়। পরিশিষ্ট-১ এ রয়েছে, বাংলাদেশে করোনা পরিস্থিতির সপ্তাহওয়ারী বিবরণ। পরিশিষ্ট-২ এ বর্ণিত হয়েছে, কোভিড-১৯ রোগে মৃত্যুবরণকারী বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের নামের তালিকা। পরিশিষ্ট-৩ এ করোনায় মৃত্যুবরণকারী পেশাজীবী ব্যক্তিদের নাম: (ক) প্রশাসনিক কর্মকর্তা (খ) চিকিৎসক (গ) নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মী (ঘ) পুলিশ বাহিনী (ঙ) আনসার ও ভিডিপি (চ) সাংবাদিক (ছ) ব্যাংক কর্মকর্তা (জ) সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব (ঝ) ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব। পরিশিষ্ট-৪ এ বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির ঘটনাপঞ্জী উল্লেখ করেছেন।

বইটি প্রকাশ করেছে স্বনামধন্য প্রকাশনা হাউস দি ইউনির্ভাসেল একাডেমি, ৩৮/২-ক বাংলা বাজার ঢাকা, মূল্য- ৬০০/- টাকা। ‘করোনাকালে বাংলাদেশ’ গ্রন্থটি একুশে বই মেলা, লেখক ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনের অফিস ৪ সেগুনবাগিচা, ঢাকা এবং প্রকাশকের বাংলা বাজারস্থ শো-রুমে পাওয়া যাবে।
আলোচক: শাহ্ আক্তারুজ্জামান, সিনিয়র সাংবাদিক



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন