Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৪ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

মধুপুরে অসামাজিক কাজের অভিযোগে পুলিশ কর্মকর্তাকে গণধোলাই সাময়িক বরখাস্ত

প্রকাশের সময় : ৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

মধুপুর উপজেলা সংবাদদাতা : টাঙ্গাইলের মধুপুরে অসামাজিক কাজে যুক্ত হওয়ার অভিযোগে মাহমুদুল হাসান নামের পুলিশের এক এএসআই গণধোলাইয়ের শিকার হয়েছেন। এ ঘটনায় তাকে পুলিশ লাইনে ক্লোজ করে নিয়ে সাময়িক বরখাস্ত করেছে পুলিশ প্রশাসন।
গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে মধুপুর শহীদ স্মৃতি উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নিকটে জনৈক মো. আজিজের তিন ছাত্রী বসবাস করা নিবাসে এ ঘটনা ঘটে।
প্রত্যক্ষদর্শী এলাকাবাসী জানান, এএসআই মাহমুদুল নিয়মিত সাদা ও পুলিশী পোশাকে শহীদ স্মৃতি উচ্চমাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কলেজ শাখার কাছেই ওই বাসায় এসে ঘণ্টার পর ঘণ্টা আড্ডা জমিয়ে অসামাজিক কাজে যুক্ত হতেন। নানাভাবে বাধা দিয়েও বন্ধ করা যায়নি। ঘটনার দিন রাত ৯টার দিকে দায়িত্ব পালনকালে পুলিশ ভ্যান রাস্তার পাশে রেখে মাহমুদুল ওই ছাত্রী নিবাসে  গিয়ে বরাবরের মতো কর্মকা- চালাতে গেলে এলাকার ছাত্রজনতা তাকে আটক করেন। এসময় তিনি হুমকি ধামকি দিলে উত্তেজিত  জনতা গণধোলাই দেন। পরে ওই কলেজের অধ্যক্ষের কক্ষে তাকে আটকিয়ে রাখা হয়। থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি (তদন্ত) শহিদুল আলম পুলিশ ফোর্স নিয়ে ধ্যান দরবার করে মাহমুদুলকে জনতার রোষ থেকে উদ্ধার করে আনেন।
ওসি (তদন্ত) শহিদুল আলম গণমাধ্যম কর্মীকে জানান, মাহমুদুল হাসান মাঝেমধ্যে ওই ছাত্রীনিবাসে এক ছাত্রীর কাছে গিয়ে আড্ডা দিতেন বলে ঘটনার পর শুনলাম। এমন অভিযোগে তাকে পুলিশ লাইনে ক্লোজ করা হয়েছে।
এদিকে টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার মাহবুব আলমের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি অভিযুক্ত এএসআইকে পুলিশ লাইনে ক্লোজ করে নিয়ে সাময়িক বরখাস্ত করার কথা স্বীকার করেছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মধুপুরে অসামাজিক কাজের অভিযোগে পুলিশ কর্মকর্তাকে গণধোলাই সাময়িক বরখাস্ত
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ