Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১, ০৬ বৈশাখ ১৪২৮, ০৬ রমজান ১৪৪২ হিজরী

মিলেমিশে বাড়ি বানালেন তারা

সরকারি রাস্তা দখল

তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ৫ মার্চ, ২০২১, ১২:০৪ এএম

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে সরকারি রাস্তা দখল করে আওয়ামী লীগের স্থানীয় নেতার যোগসাজসে বিএনপি নেতা আবু সাইদ সরকার নামের এক প্রভাবশালী ব্যাক্তি বিল্ডিং নির্মাণ করছেন। বিল্ডিং নির্মাণ কাজে সহযোগিতা করছে তার শ্যালক আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল মালেক বলে অভিযোগ করেছেন এলাকাবাসী।
উপজেলার মাধাইনগর ইউনিয়নের বলভা গ্রামে রাস্তা দখল করে বিল্ডিং নির্মাণ করছেন আরশেদ আলী সরকারের ছেলে প্রভাবশালী বিএনপি নেতা আবু সাইদ সরকার। গ্রামের চলাচলকারী একমাত্র রাস্তাটি দখল করে বিল্ডিং নির্মাণ করায় বলভা গ্রামের শতাধিক ব্যাক্তি সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসক, তাড়াশ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভ‚মি) বরাবর লিখিত অভিযোগ দেওয়ার পরেও বিল্ডিং নির্মাণ হওয়ায় তাদের অভিযোগ বিএনপি নেতা আবু সাইদের খুঁটির জোর কোথায়।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, মাধাইনগর ইউনিয়নের বলভা দক্ষিণ পাড়ায় মসজিদের পাশ দিয়ে বলভা মৌজায় ১নং খতিয়ানভুক্ত ৩২৪ হতে ৩৩১ দাগ পর্যন্ত দাগের মাঝখানে ৩২৬ দাগ সংলগ্ন হালটের দক্ষিণ পাশে ৩২২ দাগের বসতি ওই গ্রামের মৃত. আরশেদ আলীর ছেলে আবু সাইদ রাস্তার প্রায় ৪ শতক জায়গা দখল করে শত বছরের পুরনো একটি সরকারি রাস্তা দখল করে বিল্ডিং নির্মাণ করছেন। এতে চলাচলের রাস্তা হারিয়ে বিপাকে পড়ছেন এলাকাবাসী।
গ্রামবাসীরা জানান, তারা সরকারি রাস্তাটি ব্যবহার করে গ্রাম সংলগ্ন ফসলি জমি থেকে ফসলাদি খুব সহজে বহন করতে পারতেন। বিল্ডিংটি নির্মাণ করায় আমরা পাওয়ার টিলার ও গরু-ছাগল নিয়ে চলাচল করতে পারছি না। আমরা বাড়িটি অপসারণ করে রাস্তাটি উন্মুক্ত করার দাবি জানাচ্ছি। এ নিয়ে সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসক, তাড়াশ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবর লিখিত অভিযোগ দেওয়ার পরেও এখন বিল্ডিংটি করছে তার শ্যালক আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল মালেকের নেতৃত্বে। আমরা গ্রামবাসী দ্রুত বিল্ডিংটি ভেঙে দিয়ে রাস্তাটি উম্মুক্ত করার দাবি করছি প্রশাসনের কাছে।
তবে গত বছরের ২০ অক্টোবর এলাকার লোকজন এ ব্যাপারে তাড়াশ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. ওবায়দুল্লাহ বরাবর লিখিত অভিযোগ দেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে সহকারী কমিশনার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং নির্মাণকাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দেন। তারপরেও বিল্ডিংটির কাজ গত কয়েকদিনের মধ্যে শেষ হয়েছে।
অভিযুক্ত বিএনপি নেতা আবু সাইদ বলেন, সরকারি রাস্তার প্রায় ৪শতক জায়গা দখল করেছি সত্য। রাস্তার জন্য তো কিছু জমি ফেলে রাখা হয়েছে। তাতে চলাচলের অসুবিধা হওয়ার কথা না। অপরদিকে তার শ্যালক স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল মালেক বলেন, গ্রামবাসী যদি পারে বাধা দেয়। বিল্ডিং হবেই। পারলে তারা যা খুশি করুক, অভিযোগ দিয়ে লাভ নেই। তাড়াশ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. মেজবাউল করিম জানান, অবৈধভাবে সরকারি রাস্তা দখলদারের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রাস্তা-দখল
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ