Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ০১ ব্শৈাখ ১৪২৮, ০১ রমজান ১৪৪২ হিজরী

মাদরাসায় গীতা পাঠদান ভারতীয় সংবিধান লঙ্ঘনের শামিল

বিভিন্ন ইসলামীদলের নেতৃবৃন্দ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৫ মার্চ, ২০২১, ১২:০৪ এএম

ভারত সরকারের প্রবর্তিত নতুন শিক্ষা নীতির আওতায় ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ওপেন স্কুলিং সংস্থার প্রস্তাবে ভারতের মাদরাসাসমূহে হিন্দু ধর্মগ্রন্থ গীতা, ভগবত ও রামায়ণ ইত্যাদি পাঠদানের যে সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দেয়া হচ্ছে; তা ভারতীয় ঐতিহ্যের পরিপন্থী এবং ধর্মনিরপেক্ষ ভারতের সংবিধান লঙ্ঘনের শামিল। অবিলম্বে মাদরাসায় গীতা রামায়ণ পাঠদানের সিদ্ধান্ত বাতিল করতে হবে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিভিন্ন ইসলামী দলের নেতৃবৃন্দ পৃথক পৃথক বিবৃডুতে ভারতীয় মাদরাসায় গীতা পাঠদানের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে এসব কথা বলেন।

বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টি : এক যুক্ত বিবৃতিতে উপমহাদেশের ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির আমীর আল্লামা সরওয়ার কামাল আজিজি, মহাসচিব মাওলানা মুসা বিন ইযহার এবং মহানগরী আমীর প্রিন্সিপাল মাওলানা আবু তাহের খান বলেন, ভারতের মাটি থেকে ইসলাম ও মুসলমানদের চিহ্ন মুছে দেয়ার ঘৃণ্য ষড়যন্ত্র চালছে। নতুন শিক্ষানীতির নামে মুসলমানদের মন থেকে ইসলামী মূল্যবোধ বিলুপ্ত করা এবং মুসলিম জাতিসত্তার বিলোপ সাধনের অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে। ভারতের মাদরাসায় গীতা রামায়ণ পাঠদানের ষড়যন্ত্র বরদাশত করা হবে না। নেতৃবৃন্দ বাংলাদেশের সরকারকে এ বিষয়ে কড়া প্রতিবাদ জানানোর আহবান জানান। জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ :

এদিকে, ভারতের মাদরাসাগুলোতে শিক্ষার্থীদের বেদ, গীতা, রামায়ণ ও মহাভারত পড়ানোর প্রস্তাবের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের সভাপতি ও সাবেক মন্ত্রী মুফতি মুহাম্মদ ওয়াক্কাস ও সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব শায়খুল হাদীস মাওলানা ড.গোলাম মহিউদ্দিন ইকরাম। বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় বলেন,ভারতীয় ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি রক্ষা করার নামে হিন্দুত্ববাদী সরকার সুকৌশলে মুসলমানদেরকে হিন্দু বানানোর গভীর চক্রান্ত ও ষড়যন্ত্র করছে। এর পরিণাম ভারতের জন্য শুভ হবে না। সে দেশে সংস্কৃতি রক্ষার নামে মুসলমানদের ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মাদরাসায় হিন্দুগ্রন্থ পড়ানোর প্রস্তাব মুসলমানদের ধর্মীয় স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপের নামান্তর। নেতৃদ্বয় ভারতের সরকারকে মানবতার কল্যাণে এই সিদ্ধান্ত থেকে ফিরে আসার আহবান জানান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারতীয়-সংবিধান
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ