Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ৫ বৈশাখ ১৪২৮, ০৫ রমজান ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

একাধিক চমক দিয়ে প্রার্থী তালিকা ঘোষণা তৃণমূলের

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৫ মার্চ, ২০২১, ৪:৫৮ পিএম

যাবতীয় জল্পনার অবসান করে পূর্ণাঙ্গ প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করে দিয়েছে পশ্চিমবঙ্গের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস। বিরোধীদের টেক্কা দিয়ে রাজ্যের বড় দলগুলোর মধ্যে তারাই সবার প্রথমে তালিকা প্রকাশ করল। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় এবারে শুধুমাত্র নন্দীগ্রাম থেকে প্রার্থী হচ্ছেন।

মমতা ঘোষণা করেছেন, ‘আমি যা কথা দিই, সেটা রাখি। আমি আগেই ঘোষণা করেছি, সেইমতো নন্দীগ্রামেই দাঁড়াচ্ছি।’ মুখ্যমন্ত্রীর বর্তমান কেন্দ্র ভবানীপুরে প্রার্থী হচ্ছেন রাজ্যের বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। মমতা জানিয়েছেন, ‘এবারে ভবানীপুরে দাঁড়াতে না পারলেও পরে সুযোগ পেলে দাঁড়াব। এখানে আমাদের দলের সিনিয়র নেতা শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় প্রার্থী হচ্ছেন।’

প্রতিবারের মতো এবারেও ‘শুভ দিন’ দেখে শুক্রবার প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করলেন তৃণমূলনেত্রী। এদিন কালীঘাটে মুখ্যমন্ত্রীর নিজের বাড়িতে দলের নির্বাচন কমিটির বৈঠক ডাকা হয়। বৈঠক শেষে ২৯১ আসনের জন্য প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করেছে শাসক শিবির। পাহাড়ের তিনটি কেন্দ্র ছাড়া হয়েছে জোটসঙ্গী গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার জন্য। এবারের প্রার্থী তালিকায় নতুন মুখ, সমাজের তৃণমূল স্তরের মানুষ, তরুণদের প্রতিনিধিত্বের উপর বিশেষ নজর দিয়েছে শাসক শিবির। তৃণমূলের প্রার্থীদের মধ্যে ১০০-র বেশি প্রার্থীর বয়স পঞ্চাশের নিচে। এছাড়াও বেশ কিছু হেভিওয়েট নেতাকে এবার প্রার্থী করা হয়নি।

মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, দলের বহু বিশ্বাসযোগ্য নেতাকে এবার প্রার্থী করা হচ্ছে না। তবে, এবার ক্ষমতায় ফিরলে বিধান পরিষদ তৈরি করবে রাজ্যের শাসকদল। বিধান পরিষদের মাধ্যমে পুনর্বাসন দেওয়া হবে বাদ পড়া এই নেতাদের। এছাড়াও আশির বেশি বয়সি নেতাদের এবার অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। এবারের প্রার্থী তালিকায় বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে মহিলা, তফসিলি জাতি, তফসিলি উপজাতিদের। ৫০ জন মহিলা, তফসিলি জাতির জন্য ৬৮ জন সংরক্ষিত কিন্তু প্রার্থী ৮৯ জন। তফসিলি উপজাতি ১৬টি সংরক্ষিত আসন থাকা সত্ত্বেও তৃণমূল প্রার্থী করেছে ১৭ জন তফসিলি উপজাতিকে। সেই সঙ্গে অবশ্যই নজর কেড়েছে তালিকাই তারকাদের উপস্থিতি। এবার শাসকদলের হয়ে টিকিট পাচ্ছেন রাজ চক্রবর্তী, সায়ন্তিকা, সায়নী ঘোষ, রাজ চক্রবর্তীর মতো তারকারা।

প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করে মুখ্যমন্ত্রী সাধারণ মানুষের কাছে সমর্থন প্রার্থনা করেন। বলেন, ‘এবারও আপনারা আস্থা রাখুন, তৃণমূলই পারে শান্তি, সংহতি এবং উন্নতি একসঙ্গে করতে। আমরা বাংলাকে গোটা দেশের মধ্যে এক নম্বরে পৌঁছে দিতে চাই। আমরা এখনও মনে করি বাংলা শাসন করবে বাংলার মানুষই। কোনও বহিরাগতরা বাংলা শাসন করবে না।’ এদিন আরও একবার বিজেপি এবং বাম-কংগ্রেসের মধ্যে আঁতাতের অভিযোগ করলেন মুখ্যমন্ত্রী। সূত্র: টাইমস নাউ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পশ্চিম বঙ্গ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ