Inqilab Logo

সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২১ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

ওয়াজ মাহফিলে ঢং তামাশা শিরকী কথাবার্তা প্রতিহত করুন -মাওলানা হুছামুদ্দীন চৌধুরী ফুলতলী

বালাগঞ্জ (সিলেট) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৭ মার্চ, ২০২১, ৪:১১ পিএম

ওসমানীনগর-বালাগঞ্জ উপজেলার ধর্মীয় ও সামাজিক সংগঠন ‘জালালিয়া আল কুরআন গবেষণা পরিষদের উদ্যোগে বার্ষিক তাফসিরুল কুরআন ও আল্লামা ফুলতলী ছাহেব কিবলা (রাহ.)’র ঈসালে সাওয়াব মাহফিল সম্পন্ন হয়েছে। গত শনিবার (৬ মার্চ) স্থানীয় গোয়ালাবাজারে অনুষ্ঠিত মাহফিলে প্রধান অতিথি ছিলেন, আনজুমানে আল ইসলাহর কেন্দ্রীয় সভাপতি মাওলনা হুছামুদ্দীন চৌধুরী ফুলতলী।
প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, ওয়াজ মাহফিল হচ্ছে দ্বীনি আলোচনার মাহফিল। এখান থেকে মানুষ ঈমান আমল শিখার এবং উদ্বুদ্ধ হওয়ার সবক পায়। কিন্তু দুর্ভাগ্য কতিপয় আলেম নামদারি ব্যক্তি ওয়াজ মাহফিলে কুরআন হাদিসের আলোচনা না করে ঢং তামাশা করে যাচ্ছে। যা মানুষের রুহানী খোরাকের পরিবর্তে দ্বীনকে ঢং তামাশার বস্তুতে পরিনত করছে। ওয়াজে বলা হচ্ছে, ‘মরনকালে ঢুল তবলা বাজানোর জন্য, তার কলিমা কালামের দরকার নেই, আল্লাহ গায়েব হয়ে গেছেন নাউযুবিল্লহা!---ইত্যাদি কুফরী কথাবর্তায় মানুষের ঈমান নষ্ট করা হচ্ছে। তাই হেদায়াতের মাহফিলে ঢং তামাশা ও শিরক-কুফরী কথাবর্তা প্রতিহত করুন। নতুবা আল্লাহ ও রাসুল (সা:)’র সন্তুষ্টি হাসিল করতে পারবেন না।
পরিষদের সভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা ছরওয়ারে জাহানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মাওলানা ছাদিকুর রহমান শিবলী ও সহ সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আব্দুল মতিন গজনভীর পরিচালনায় মাহফিলে তাফসির পেশ করেন, মাওলানা আবু জাফর মোহাম্মদ ছালেহ, মাওলানা ছমির উদ্দিন, মাওলানা মারজান আহমদ চৌধুরী ফুলতলী, মাওলানা সিরাজুল ইসলাম প্রমূখ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফুলতলী


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ