Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ০১ ব্শৈাখ ১৪২৮, ০১ রমজান ১৪৪২ হিজরী

আজ ইনকিলাব প্রতিবেদনের ব্যাখ্যা তুলে ধরবে দুদক

২০ কোটিতে প্রকৌশলীর দায়মুক্তি হাইকোর্টে তলব ঘুষ দাবির অডিও ক্লিপ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৯ মার্চ, ২০২১, ১২:০১ এএম

‘হাউজিং অ্যান্ড বিল্ডিং রিসার্চ ইনস্টিটিউট’র মহাপরিচালক প্রকৗশলী আশরাফুল আলম ও তার স্ত্রীকে দায়মুক্তি প্রদানের বিষয়ে হাইকোর্টে আজ ব্যাখ্যা তুলে ধরবে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। ইনকিলাবে প্রকাশিত প্রতিবেদন আমলে নিয়ে গত ৪ মার্চ বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার এবং বিচারপতি মহি উদ্দিন শামীমের ডিভিশন বেঞ্চ ব্যাখ্যা তলব করেন। এ প্রেক্ষিতে দুদকের পক্ষ থেকে আজ ব্যাখ্যা প্রদানের কথা রয়েছে।
গত ২ মার্চ দৈনিক ইনকিলাব ‘দুর্নীতি দমনে দুদক স্টাইল/২০ কোটিতে প্রকৌশলী আশরাফুলের দায়মুক্তি !’ শীর্ষক প্রতিবেদন প্রকাশ করে। এটি হাইকোর্টের দৃষ্টিগোচর হয়। বিষয়টি আমলে নিয়ে ভার্চুয়াল ডিভিশন বেঞ্চ এ বিষয়ে খোঁজ-খবর নিয়ে দুদকের আইনজীবী খুরশীদ আলম খানকে ৮ মার্চের মধ্যে ব্যাখ্যা প্রদানের নির্দেশ দেন। এ সময় সরকারের আইনজীবী হিসেবে যুক্ত ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একেএম আমিন উদ্দিন মানিক, সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মাহজাবীন রাব্বানী দীপা ও আন্না খানম কলি।

দুদক কর্মকর্তার অডিও ক্লিপ তলব : এদিকে দুর্নীতির তদন্ত করতে গিয়ে দুর্নীতির সঙ্গে নিজেই জড়িয়ে পড়া দুদকের সহকারী পরিচালক মো. আলমগীর হোসেনের ঘুষ দাবির কললিস্ট দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।
গতকাল রোববার বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার এবং বিচারপতি মহি উদ্দিন শামীমের ডিভিশন বেঞ্চ বাংলাদেশ টেলিকমিনিউকেশন রেগুলেটরি কমিশনকে (বিটিআরসি) নির্দেশ দেন। আগামী ৭ দিনের মধ্যে অডিওসহ কললিস্ট দাখিলের নির্দেশ দেন আদালত। অভিযোগকারীর আবেদন অনুসারে মো. আলমগীর হোসেনের বিরুদ্ধে ঘুষ দাবির অডিও-ভিডিও ক্লিপ রয়েছে। রিটকারীর পক্ষে শুনানিতে অংশ নেন অ্যাডভোকেট মো. কামাল হোসেন।

এর আগে গত ৩ মার্চ দুদকের সহকারী পরিচালক মো. আলমগীর হোসেনের বিরুদ্ধে ঘুষ দাবির অভিযোগে ধারণ করা অডিও এবং ভিডিও ক্লিপ তলব করেছিলেন হাইকোর্ট। পরে সেটি নিয়ে গতকাল ওই অডিও এবং ভিডিও মামলার বাদীকে আদালতে দাখিল করার নির্দেশ দেন আদালত।

জ্ঞাত আয় বহিভর্‚ত সম্পদ অর্জনের তথ্য জানাতে ২০১৯ সালের ৩ মার্চ ঢাকা সদরের সাবেক সাব রেজিস্ট্রার এবং বর্তমানে পিরোজপুরের জেলা রেজিস্টার মো. আব্দুল কুদ্দুস হাওলাদার ও তার স্ত্রী মাহিনুর বেগমকে নোটিশ পাঠায় দুদক।

দুদকের (ঢাকা-১) উপ-পরিচালক মোহাম্মদ ইব্রাহিমের পাঠানো নোটিশের উপযুক্ত জবাব না পেয়ে ২০২০ সালের ২২ অক্টোবর ওই দম্পতির বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক। মামলায় ২৪ লাখ ৭০ হাজার ৫৪৩ টাকার সম্পদের তথ্য গোপন, ৯০ লাখ ১২ হাজার ৭৯৬ টাকার জ্ঞাত আয় বহিভর্‚ত সম্পদ অর্জনপূর্বক দখল রাখার অভিযোগ আনা হয়।

মামলার তদন্ত করেন দুদকের সহকারী পরিচালক মো. আলমগীর হোসেন। তদন্তকালে তিনি আসামীদের অনৈতিক লেনদেনের প্রস্তাব দেন। দুদক কর্মকর্তার এমন প্রস্তাবে আসামিরা প্রতিকার খুঁজতে দুদকের কাছেই আর্জি জানান। ন্যায় বিচারের স্বার্থে অসাধু তদন্ত কর্মকর্তার পরিবর্তন চেয়ে দুই দফা দুদকে আবেদন জানান তারা। কিন্তু সেখানে সাড়া না পেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেন তারা। ২০২০ সালের ১৭ নভেম্বর এবং চলতি বছরের গত ১ ফেব্রæয়ারি তদন্ত কর্মকর্তার পরিবর্তন চেয়ে ওই আবেদন জানান মো. আব্দুল কুদ্দুস হাওলাদার ও মাহিনুর বেগম।

আবেদনে বলা হয়, ‘২০১৬ সালের ১৪ নভেম্বর থেকে ২০১৮ সালের ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত ঢাকা সদর সাব রেজিস্ট্রার হিসেবে দায়িত্বে থাকাকালে গণশুনানির মাধ্যমে জনৈক উমেদারের অনৈতিক চাহিদা আমার ওপর প্রতিষ্ঠিত করে ২০১৮ সালে দুদক আমার বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ গঠন করে। অভিযোগের ভিত্তিতে দুদকের তদন্ত কর্মকর্তা মো. আলমগীর হোসেনকে নিয়োগ দেয়া হয়। তদন্তকারী কর্মকর্তা আমাকে নোটিশ দিয়ে তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে বললে আমি ও আমার ভাই তার সঙ্গে দেখা করি। আমাদের মোবাইল নম্বর দিয়ে আসি। পরে তদন্তকারী কর্মকর্তা তার ব্যক্তিগত মোবাইল থেকে আমার ভাইয়ের (মতিউর) সঙ্গে যোগাযোগ করেন এবং অনৈতিকভাবে টাকা দাবি করেন। এ বিষয়ে আমি অপরাগতা প্রকাশ করলে তদন্তকারী কর্মকর্তা ক্ষুব্ধ হয়ে আমার দাখিলকৃত সম্পদ বিবরণী আমলে না নিয়ে নিয়মিত মামলা দায়ের করেন। পরবর্তীতে আদালত থেকে স্থায়ী জামিনপ্রাপ্ত হই। এ অবস্থায় ন্যায়বিচারের স্বার্থে আবেদনের বিষয়বস্তু বিবেচনা করে একজন নিরপেক্ষ তদন্তকারী কর্মকর্তা নিয়োগ প্রদানের দাবি জানান তারা।



 

Show all comments
  • বুলবুল আহমেদ ৮ মার্চ, ২০২১, ৩:১৩ এএম says : 0
    নিয়মিত এই ধরনের প্রতিবেদন চাই
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammed Jahangir ৮ মার্চ, ২০২১, ৩:০১ এএম says : 0
    এরা নিজেরাই সব দুর্নীতিবাজ।তাই তো কোটি টাকা দুর্নীতি করে অপরাধীরা পার পেয়ে যাচ্ছে। তার পর রাজনৈতিক প্রভাব তো আছেই। এদের নিয়েই দুর্নীতি দমন কমিশন।
    Total Reply(0) Reply
  • সবুজ ৮ মার্চ, ২০২১, ২:৪৭ এএম says : 0
    সত্য তুলে ধরার জন্য ইনকিলাবকে ধন্যবাদ
    Total Reply(0) Reply
  • Samiul Islam Nayon ৮ মার্চ, ২০২১, ৩:১৭ এএম says : 0
    দেশ এখন ঘুষ আর দুর্নীতি, অপকর্মে সয়লাব।
    Total Reply(0) Reply
  • Sangram Rahman Sarkar ৮ মার্চ, ২০২১, ৩:১৭ এএম says : 0
    টাকার নাম বাবাজী টাকা থাকলে সবকিছু থেকে মুক্ত হওয়া যায়।
    Total Reply(0) Reply
  • Kallol Sikder ৮ মার্চ, ২০২১, ৮:২৫ এএম says : 0
    এ সমস্ত দুদক গঠন করে দেশ এবং জাতির কোন উপকারে আসে নাই , বারণ এই দুদুকের পিছনে রাষ্ট্রীয় কোষাগারের টাকা অপচয় হচ্ছে, এসমস্ত কর্মকর্তারা সরকারি দলের লোক এরা কখনো নিরপেক্ষভাবে রাষ্ট্রের হয়ে কাজ করে না।
    Total Reply(0) Reply
  • কাজী হাফিজ ৮ মার্চ, ২০২১, ৮:২৫ এএম says : 0
    দুদকের অনেকেই দুর্নীতিতে প্রত্যেক্ষ ও পরোক্ষভাবে জড়িত , তার দুর্নীতি দমন করার জন্য আর একটি দুর্নীতি দমন কমিশন গঠন করতে হবে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: দুদক

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২১
১৭ আগস্ট, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন