Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ২৮ চৈত্র ১৪২৭, ২৭ শাবান ১৪৪২ হিজরী

তিস্তার পানি দেব না : মমতার সাফ জবাব

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৮ মার্চ, ২০২১, ৮:৫১ এএম

তিস্তার পানি বাংলাদেশকে তখনই দেওয়া যাবে যখন পশ্চিমবঙ্গের কাছে পর্যাপ্ত পানি থাকবে, সাফ জানিয়ে দিলেন মমতা ব্যানার্জি। আগামী ২৬ মার্চ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বাংলাদেশ সফরের আগে এ মন্তব্য যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন অনেকে। বিধানসভা নির্বাচনের আগে রোবববার (৭ মার্চ) শিলিগুড়িতে এক জনসভায় নরেন্দ্র মোদি সরকারকে আক্রমণ করতে করতে হঠাৎ তিস্তার প্রসঙ্গ তোলেন মমতা।
নিজের ভেরিফাইড ফেইসবুক পেজ থেকে করা লাইভে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে উদ্দেশ্য করে মমতাকে বলতে শোনা যায়, ‘হঠাৎ করে বলে দিল তিস্তার জল দিয়ে দাও। আরে ভাই, রাজ্যকে জিজ্ঞেস করল না।’
মমতা দাবি করেন তার সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্ক ‘সবচেয়ে ভালো’, ‘আমি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে শ্রদ্ধা জানাই, সালাম জানাই। খুব ভালোবাসি।’
মোদির সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে মমতা বলতে থাকেন, ‘একটা রাজ্য সরকার আছে। তুমি হঠাৎ গিয়ে বলে আসছ আমার রাজ্যটাকে বিক্রি করে দেবে। বাহ, বাহ। অত সস্তা নয় ভাই।’
এ সময় হিন্দিতে তিনি বলেন, ‘তিস্তা উত্তরবঙ্গকা হিস্যা। বাংলাকা হিস্যা। আমি তো বলিনি জল দেব না। কিন্তু আমি খাব, তারপরে তো দেব। আমার ঘরে থাকবে, তারপরে তো আমি দেব।’
মোদি ভবিষ্যতে যেন এভাবে তিস্তার পানি দেয়ার কথা না বলেন, সে বিষয়েও তাকে সতর্ক করে দেন মমতা, ‘আগে আমাকে জিজ্ঞেস করে নেবেন।’
তিস্তার পানিবণ্টন নিয়ে ভারতের সঙ্গে দীর্ঘদিন আলোচনা চলছে বাংলাদেশের। ভারত সরকার প্রায়ই এই সংকট নিরসনের প্রতিশ্রুতি দেয়। কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হয় না।
দেশটির প্রশাসনিক নিয়ম অনুযায়ী, কেন্দ্রীয় সরকার চাইলেই এসব ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে পারে না। এ জন্য সংশ্লিষ্ট রাজ্য সরকারের অনুমতি লাগে। মমতা এদিন মোদিকে সেটিই স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন। এনডিটিভি, আনন্দবাজার



 

Show all comments
  • মাওলানা মামূনুর রশীদ ৮ মার্চ, ২০২১, ৯:৫১ এএম says : 0
    ভারত আমাদের বন্ধু। বন্ধু চাইলে পানি দিবে, না দিলে না খেয়ে থাকব। তারপরও তারা আমাদের বন্ধু। আমরা বন্ধুর পানি না পেয়ে না খেয়ে জীবন চলে গেলেও সম্পর্ক নষ্ট হতে দিব না
    Total Reply(0) Reply
  • Mominul+Hoque ৮ মার্চ, ২০২১, ১০:০২ এএম says : 0
    আমি মমতার দেশত্ববোধ কে খুবই শ্রদ্ধা করি। কারণ তিস্তার পানিতে আমাদেরও হক আছে কিন্তু পশ্চিম বঙ্গের মূখ্যমন্ত্রী যা করছেন নিজ দেশ ও দেশের জনগণের জন্য করছেন যেটি আমাদের প্রধানমন্ত্রীর মাথায় আসেনা দেশের জনগণের অধীকার কিভাবে আদায় করতে হয়। “তিনি আরো বলেন ভারতকে যা দিয়েছে সারা জীবন মনে রাখতে হবে”। উনার এই কথায় দেশের জনগণ মর্মাহত হয়েছেন। কিছু পেতে হলে কিছু দিতে হয়, কিন্তু সেই ক্ষেত্রে আমরা বঞ্চিত। আশা রাখি চীনের সাথে নদী শাসন প্রকল্প নিয়ে যে পরিকল্পনা চলছে সে দিকে দ্রুত এগিয়ে যাবে।
    Total Reply(1) Reply
    • Md Kabir hossain ৮ মার্চ, ২০২১, ১:৫১ পিএম says : 0
      Yes, we should go for the china project for using tista water .Because India central govt will not able to do the deal.
  • মোঃ মুসা ৮ মার্চ, ২০২১, ২:০৩ পিএম says : 0
    ভারত বাংলাদেশে স্বাধীনতা যুদ্ধের সহযোগিতা করেছে ভারত বাংলাদেশ সম্পর্ক গভীর থাকা উচিত। আমরা এক সময় ভারতবর্ষে ছিলাম। মমতার মত সকল ধর্মের শ্রদ্ধাশীল মানুষ কম আসে যার জন্য মুসলিম হিন্দু একসাথে থাকতে পারে। মোদি সরকার তার আদর্শ নজর দেওয়া উচিত। কবি সুনির্মল বসু বলেছেন, বিশ্ব জোড়া পাঠশালা মোর সবার আমি ছাত্র
    Total Reply(0) Reply
  • md mujammel shiek ৮ মার্চ, ২০২১, ৩:৪০ পিএম says : 0
    না খেয়ে মরে যাবো। তবু বন্ধু ছাড়বো না।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মমতা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ