Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০৬ মে ২০২১, ২৩ বৈশাখ ১৪২৮, ২৩ রমজান ১৪৪২ হিজরী

চট্টগ্রামে প্রেমের ফাঁদ পেতে মুক্তিপণ আদায় গ্রেফতার ৪

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১২ মার্চ, ২০২১, ২:০৭ পিএম

চট্টগ্রামে প্রেমের ফাঁদে আটকে এক ব্যাংক কর্মকর্তাকে জিম্মি করে মুক্তিপণ আদায়ের অভিযোগে চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। নগরীর বাকলিয়াসহ বিভিন্ন এলাকায় বৃহস্পতিবার অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। তারা হলেন- মো. শহীদ আলম ওরফে লেদু (৩০), জাহাঙ্গীর আলম (৩০), গিয়াস উদ্দিন (২৯) ও মো. রায়হান (২৮)।

বাকলিয়া থানার ওসি মো রুহুল আমিন বলেন, একটি বেসরকারি ব্যাংকে কর্মরত এক ব্যক্তি তার পরিচিত ব্যক্তির কাছে পাওয়া মোবাইল নম্বরের মাধ্যমে এক তরুণীর সঙ্গে যোগাযোগ করেন। কয়েকদিন কথা বলার এক পর্যায়ে গত ৫ মার্চ বিকালে ওই তরুণী ব্যাংক কর্মকর্তাকে বাসায় দাওয়াত দেন। ওই দিন ব্যাংক কর্মকর্তা বাকলিয়ার রাহাত্তারপুল এলাকায় গিয়ে মেয়েটিকে ফোন করে। এ সময় ওই তরুণী তাকে বাসায় নেওয়ার জন্য রায়হান নামে একজনকে পাঠাচ্ছেন বলে জানান। রায়হান রাহাত্তারপুল থেকে ওই ব্যাংক কর্মকর্তাকে নিয়ে চান্দাপুকুর এলাকা বিসমিল্লাহ টাওয়ার নামে একটি ভবনের পেছনে খালি জায়গায় নিয়ে যায়। যেখানে আগে থেকেই লেদু, গিয়াস, জাহাঙ্গীরসহ আরও কয়েকজন উপস্থিত ছিলেন। এ সময় তারা ওই ব্যাংক কর্মকর্তাকে জিম্মি করে অবৈধ সম্পর্ক করতে সেখানে গিয়েছে বলে লোক জড়ো করার হুমকি দেয়। পাশাপাশি তারা ছুরিকাঘাতের ভয় দেখায় এবং পুলিশে ধরিয়ে দেওয়ার কথা বলে দুই লাখ টাকা দাবি করে। পরে ওই ব্যাংক কর্মকর্তা তার ছোট ভাইয়ের মাধ্যমে কয়েকটি বিকাশ নাম্বারে দুই লাখ টাকা পরিশোধ করে সেখান থেকে বেরিয়ে আসে।
ওই ব্যাংক কর্মকর্তা বৃহস্পতিবার বিষয়টি বাকলিয়া থানায় জানালে পুলিশ ওই এলাকায় গিয়ে আশেপাশের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করে ঘটনার সত্যতা পায় এবং এরপর চারজনকে গ্রেপ্তার করে।

পুলিশ জানায় লেদুসহ কয়েক জনের বিরুদ্ধে নগরীর বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। তারা সংঘবদ্ধ চক্রের সদস্য। এই দলে নারীসহ অন্তত ১০ জনের নাম পাওয়া গেছে। নারীদের দিয়ে উচ্চবিত্ত লোক জনকে জিম্মি করে টাকা আদায়ের পাশাপাশি চুরি ছিনতাইতেও তারা জড়িত।

এ ঘটনায় ওই ব্যাংক কর্মকর্তার করা মামলায় গ্রেপ্তার চারজনকে আদালতে পাঠিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হবে বলে পুলিশ জানিয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চট্রগ্রাম


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ