Inqilab Logo

রোববার, ২৯ মে ২০২২, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৭ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

চাপের কাছে আঙ্কারা নতি স্বীকার করবে না : রাশিয়া

এসইউ-৫৭ জঙ্গিবিমান বিক্রি নিয়ে তুরস্কের সঙ্গে আলোচনায় প্রস্তুত মস্কো

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৪ মার্চ, ২০২১, ১২:০৫ এএম

রাশিয়ার ফেডারেল সার্ভিস ফর মিলিটারি অ্যান্ড টেকনিক্যাল কোঅপারেশনের প্রধান দিমিত্রি শুগায়েভ বলেছেন, তার দেশের কাছ থেকে এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা কেনার চুক্তি বাতিলের বিষয়ে তুরস্কের ওপর আমেরিকার যে চাপ রয়েছে তার কাছে নতিস্বীকার করবে না আঙ্করা। মার্কিন নতুন প্রশাসন যখন রাশিয়া থেকে এস-৪০০ কেনার বিষয়ে তুরস্ককে হুঁশিয়ার করছে তখন শুক্রবার শীর্ষ পর্যায়ের রুশ কর্মকর্তা এ আশা প্রকাশ করলেন। তিনি বলেন, “যেকোনো দেশের কাছে এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা সরবরাহ বাধাগ্রস্ত করার জন্য আমেরিকা সব রকমের চেষ্টা চালাচ্ছে। বিশেষ করে তুরস্কের সঙ্গে তাদের সমস্যা রয়েছে তা আমরা সবাই জানি। ঈশ্বরকে ধন্যবাদ যে, আমাদের তুর্কি মিত্ররা অটল আছেন এবং তারা বুঝতে সক্ষম হয়েছেন যে, এটি তাদের জাতীয় নিরাপত্তার প্রশ্ন। আমি বিশ্বাস করি আমরা এগিয়ে যেতে পারব।” এর একদিন আগে তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত চাভুসওগ্লু বলেছেন, তার দেশের জন্য আরো বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা দরকার এবং সেগুলো বিভিন্ন উৎস থেকে সংগ্রহ করা হবে। অপর এক খবরে বলা হয়, রাশিয়ার সামরিক বিভাগের উচ্চ পর্যায়ের একজন কর্মকর্তা বলেছেন, এসইউ-৩৫ এবং এসইউ-৫৭ স্টিলথ জঙ্গিবিমান বিক্রির বিষয়ে তুরস্কের সঙ্গে আলোচনা করতে প্রস্তুত রয়েছে মস্কো। শুক্রবার রাশিয়ার ফেডারেল সার্ভিস ফর মিলিটারি অ্যান্ড টেকনিক্যাল কোঅপারেশনের মুখপাত্র ভ্যালেরিয়া রেশেতনিকোভা একথা বলেছেন। রুশ বার্তা সংস্থা তাস এ খবর দিয়েছে। রেশেতনিকোভা জানান, তুরস্ক এ ব্যাপারে তার দেশকে অনুরোধ জানিয়েছে। এরপর দুই ধরনের বিমানের প্রযুক্তিগত খুঁটিনাটি বিষয়ে তুরস্ককে জানানো হয়েছে। এখন আঙ্কারার পক্ষ থেকে যদি আনুষ্ঠানিক অনুরোধ জানানো হয় তাহলে তাদেরকে এই বিমান সরবরাহ করার ব্যাপারে আলোচনা করতে মস্কো পুরোপুরি প্রস্তুত রয়েছে। এর আগে তুরস্ক রাশিয়ার কাছ থেকে এস-ফোর হান্ড্রেড ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কিনেছে যার কারণে আমেরিকাসহ ন্যাটোভুক্ত অন্য দেশগুলো তুরস্কের বিরুদ্ধে ক্ষিপ্ত হয়েছে। আমেরিকা এবং ন্যাটো জোটের অন্যান্য সদস্য দেশ বলছে, রাশিয়ার সামরিক সরঞ্জাম তাদের সঙ্গে মানানসই নয়। সেক্ষেত্রে ন্যাটোর সদস্য দেশ হিসেবে তুরস্ক রাশিয়া থেকে সামরিক অস্ত্র কিনতে পারে না। আমেরিকা তুরস্কের প্যাট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা এবং এফ-৩৫ জঙ্গিবিমান বিক্রি করতে গড়িমসি করার কারণে তুরস্ক রাশিয়ার কাছ থেকে এস-ফোর হান্ড্রেড ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা কিনেছে। এখন দেশটি রাশিয়ার কাছ থেকে এসইউ-৩৭ এবং এসইউ-৫৭ জঙ্গিবিমান কিনতে চায়। আরটি, তাস।



 

Show all comments
  • Sheikh Shohel ১৪ মার্চ, ২০২১, ৭:০৫ এএম says : 0
    বিশ্বের সেরা শক্তিশালী যুদ্ধ বিমান
    Total Reply(0) Reply
  • Brown Stone ১৪ মার্চ, ২০২১, ৭:০৬ এএম says : 0
    তার মানে TF-X শেষ শুধু শুধু বর বর কথা বলছে এতদিন
    Total Reply(0) Reply
  • মেহেদী ১৪ মার্চ, ২০২১, ৭:০৬ এএম says : 0
    তুরস্কের সাথে সম্পর্ক করলে রাশিয়ারই লাভ বেশি হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • কামাল রাহী ১৪ মার্চ, ২০২১, ৭:০৭ এএম says : 0
    আমেরিকার বিরুদ্ধে শক্তিশালী একটা জোট গঠন করা দরকার।
    Total Reply(0) Reply
  • তোফাজ্জল হোসেন ১৪ মার্চ, ২০২১, ৭:০৭ এএম says : 0
    কোনো ব্যক্তিত্বসম্পন্ন রাষ্ট্র নতি শিকার করে না।
    Total Reply(0) Reply
  • হোসাইন এনায়েত ১৪ মার্চ, ২০২১, ৭:০৮ এএম says : 0
    ধন্যবাদ।
    Total Reply(0) Reply
  • Jack+Ali ১৪ মার্চ, ২০২১, ১২:০২ পিএম says : 0
    All muslim populated countries scientist should come under one banner of Islam and should produce everything including sophisticate arms and ammunition then again by the grace of Allah we will rule whole world as such there will be no more war, people can live in peace and also with human dignity, freedom to travel any country without visa like before when muslim was superpower.
    Total Reply(1) Reply
    • nayeem ১৪ মার্চ, ২০২১, ৮:২৭ পিএম says : 0
      It's a good suggestion but hard to shape it to reality. Hope next generation will do it
  • Mominul+Hoque ১৪ মার্চ, ২০২১, ৩:০২ পিএম says : 0
    আমেরিকা কখনো মুসলিম দেশগুলোকে একত্র হতে দিবে না, কিন্তু আমাদের কিছু কিছু দূর্বাগা মুসলিম শাসক সেটি না বুঝে আমেরিকার তাঁবেদারী করে যাচ্ছে। মুসলিম দেশগুলোর ঐক্য গড়েতুলতে ওআইসি’কে আরো ঢেলে সাজানো প্রয়োজন!
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রাশিয়া


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ