Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৩ আশ্বিন ১৪২৫, ৭ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

দেশসেরা ৯৩ বিজ্ঞাপনী ক্যাম্পেইন পুরস্কৃত

প্রকাশের সময় : ৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

অর্থনৈতিক রিপোর্টার : দেশের ব্যবসা ও বিপণন ক্ষেত্রে ক্রিয়েটিভ কমিউনিকেশনে উৎকর্ষ সাধনের স্বীকৃতি স্বরূপ ২০১৫ সালে প্রচারিত ৯৩টি বিজ্ঞাপণী ক্যাম্পেইনকে পুরস্কৃত করা হয়েছে কমওয়ার্ডের ষষ্ঠ আসরে। গত শনিবার রাজধানীর লা মেরিডিয়েন হোটেলে এক জমকালো অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ২৫টি ক্যাটাগরিতে বিজয়ী বিজ্ঞাপণগুলোকে গ্রান্ড প্রী, গোল্ড, এবং সিলভার, এই তিন শ্রেণিতে পুরস্কৃত করা হয়। বাংলাদেশ ব্রান্ড ফোরাম আয়োজিত কমওয়ার্ড দেশের বিজ্ঞাপণ শিল্পের বৃহত্তম সম্মাননা যা ২০০৯ সাল থেকে দেয়া হচ্ছে।
এ বছর কমওয়ার্ডের জন্য ৪১ টি বিজ্ঞাপণী সংস্থা, প্রোডাকশন হাউস এবং বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ক্রিয়েটিভ বিভাগ থেকে মোট ৪৬৭টি মনোনয়োন জমা পরে। শীর্ষস্থানীয় বিজ্ঞাপণী সংস্থা এর প্রধানগণ এবং বিজ্ঞাপণ বিশেষজ্ঞদের নিয়ে গঠিত ৩টি ভিন্ন জুরি প্যানেল চূড়ান্ত বিজয়ী বিজ্ঞাপনগুলো নির্বাচিত করেন।
এবছর সুপ্রতিষ্ঠিত ও নামীদামী সংস্থাগুলোর পাশাপাশি নতুন এবং তুলনামূলক ভাবে ছোট অনেক বিজ্ঞাপণী সংস্থা তাদের অসাধারণ সৃজনশীল বিজ্ঞাপনের জন্য উল্লেখযোগ্য সংখ্যক পুরস্কার লাভ করে। ‘প্রথম আলো আইসিসি ক্রিকেট ওয়ার্ল্ড কাপ ২০১৫’ এবং ‘ক্লোজআপ কাছে আসার সাহসী গল্প’ শীর্ষক দুটি বিজ্ঞাপন সর্বোচ্চ তিনটি করে পুরস্কার পেয়েছে। এর মধ্যে ‘ক্লোজআপ কাছে আসার সাহসী গল্প’ বিজ্ঞাপন ক্যাম্পেইনটি ‘বেস্ট ইউজ অব কন্টেন্ট’ এবং ‘ভিডিও ফরওয়েব’ ক্যাটাগরিগুলোয় দুটি গ্রান্ড প্রি পুরস্কার লাভ করেছে। এছাড়া ‘ইন্টিগ্রেটেড ক্যাম্পেইন’ ক্যাটাগরি  তে ‘জিপি প্রথম বিজয়োল্লাস’ গ্রান্ড প্রি পুরস্কার পেয়েছে। এ বিজ্ঞাপনটির চিত্র ধারন, তৈরি এবং বাস্তবায়নের দায়িত্বে ছিলো ‘গ্রে এডভার্টাইজিং বাংলাদেশ লিমিটেড’।
পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের পুর্বে একই স্থানে দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত হয় ষষ্ঠ কমিউনিকেশন সামিট যা  দেশের ক্রিয়েটিভ কমিউনিকেশন শিল্পের বিভিন্ন বিষয় আলোচোনার একটি গুরূত্বপূর্ণ প্লাটফর্ম হিসেবে ইতিমধ্যে স্বীকৃত। এবারের সামিটে ৫ জন স্বনামধন্য বক্তা তাদের নিজ নিজ বক্তব্য তুলে ধরেন -এরা হলেন রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড এর ব্রান্ড স্ট্রাটেজি এন্ড মার্কেটিং কমিউনিকেশনের  প্রেসিডেন্ট কৌশিক রায়; ইউনিলিভারের এশিয়া, মধ্যপ্রাচ্য ও তুরস্কের হোমকেয়ার রিজিওনাল ইন্টিগ্রেটেড ব্রান্ড কমিউনিকেশন্স এন্ড মার্কেট ডেভেলপমেন্টের সাবেক পরিচালক ভারত আভালানি;  গ্রে গ্রুপ এশিয়া প্যাসিফিক এর চেয়ারম্যান এবং সিইও নির্ভিক সিং; বিজনেস ক্রিয়েটিভিটি, ইনোভেশন, চেঞ্জ ও গ্লোবাল বিজনেস প্রভৃতি বিষয়ের লেখক ও বক্তা ফ্রেডরিক হেরেন; এবং গুগলের বাংলাদেশ ও শ্রীলংকার প্রধান ফজল আশফাক। বক্তাদের মধ্যে উপরে উল্লেখিত ক্রমানুযায়ী প্রথম ৪ জন সশরীরে সামিটে উপস্থিত থেকে তাদের বক্তব্য পেশ করেন এবং ফজল আশফাক একটি লাইভ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমের তার বক্তব্য দেন। সৃজনশীলতাকে উৎসাহিত করার প্রত্যয়ে উপস্থিত বক্তাদেরকে স্বনামধ্যন্য চিত্রশিল্পী প্রিমা নাজিয়া আন্দালিব এর কিছু চিত্রকর্ম উপহার হিসেবে প্রদান করা হয়। দিনব্যাপী এ আয়োজনে কানস শোকেসিং এবং প্যানেল আলোচনাও করা হয়। প্যানেল আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন বিটপি এডভার্টাইজিং লিমিটেড এর সিওও মিঠুন রায়, আইটিসি এর হেড অব মিডিয়া জয়কিশিন তিকাম, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় এর পলিসি এডভাইজর অনির চৌধুরী, এডকম লিমিটেড এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর নাজিম ফারহান চৌধুরী এবং সামিটের বক্তা ভারত আভালানী।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ