Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন ২০২১, ০৩ আষাঢ় ১৪২৮, ০৫ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

পুতিনকে খুনি বলায় দূত ফিরিয়ে আনলো রাশিয়া

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ মার্চ, ২০২১, ১১:১৩ এএম
যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে খুনি বলায় ওয়াশিংটন থেকে রুশ রাষ্ট্রদূতকে ফিরিয়ে আনার ঘোষণা দিয়েছে মস্কো। আলোচনার জন্য তাকে ফিরিয়ে আনা হচ্ছে বলে বুধবার (১৭ মার্চ) জানিয়েছে দেশটি। খবর ইউএস নিউজ।
সম্প্রতি মার্কিন গণমাধ্যমকে দেওয়া বিশেষ এক সাক্ষাৎকারে ভ্লাদিমির পুতিনকে একজন ‘খুনি’ আখ্যা দেন বাইডেন। তিনি বলেন, ‘২০২০ সালের মার্কিন নির্বাচনে ট্রাম্পের পক্ষে মস্কোর হস্তক্ষেপের কারণে ‘পুতিনকে মূল্য দিতে হবে’ বলেও জানান ৭৮ বছর বয়সী বাইডেন।’
বাইডেনের এই মন্তব্যকে গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনায় নিয়েছে মস্কো। ওয়াশিংটনে নিযুক্ত রাশিয়ার রাষ্ট্রদূতকে তাই জরুরি ভিত্তিতে তারা ফিরিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর কারণ হিসেবে রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, ওয়াশিংটনে নিযুক্ত রুশ রাষ্ট্রদূত আনাতোলি আন্তোনভকে মস্কোতে ফিরে আসার জন্য বলা হয়েছে। বর্তমান অবস্থার প্রেক্ষিতে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্কের উন্নয়নে কী কী করা উচিত এবং কোথায় কোথায় যাওয়া উচিত; সেটা নিয়ে আলোচনা এবং বিশ্লেষণ করতেই তাকে ফিরিয়ে আনা।
গত মঙ্গলবার মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা দেশটির বিগত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে মস্কোর হস্তক্ষেপ নিয়ে নতুন একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। এছাড়া ২০১৬ সালের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন থেকেই রাশিয়ার হস্তক্ষেপ নিয়ে আলোচনা হচ্ছে।
ওয়াশিংটনে রাশিয়ার কর্মকাণ্ড নজরে আছে জানিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, মস্কোর পক্ষ থেকে আসা চ্যালেঞ্জগুলোর বিষয়ে কঠোর অবস্থানেই থাকবে যুক্তরাষ্ট্র।
বাইডেনের এমন মন্তব্য অবশ্য পুতিনকে নিয়ে তার পূর্বসূরি ডোনাল্ড ট্রাম্পের অবস্থানের সম্পূর্ণ বিপরীত। কারণ ট্রাম্প রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিন সম্পর্কে নেতিবাচক কিছু বলা থেকে বিরত ছিলেন।
রুশ পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষের স্পিকার ভিয়াশেস্লাভ ভ্লোদিন তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বলেছেন, ‘বাইডেন আমাদের দেশকে অপমান করেছেন। কারণ পুতিনের বিরুদ্ধে আক্রমণ মানে রাশিয়ার ওপর আক্রমণ।’ সূত্র: এএফপি
1 Attached Images


 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: যুক্তরাষ্ট্র-রাশিয়া


আরও
আরও পড়ুন