Inqilab Logo

শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২১ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

অবৈধ ইট ভাটায় কাগজবিহীন ট্রাক্টর

যশোর ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ২১ মার্চ, ২০২১, ১২:০০ এএম

একেতো অবৈধ, তারপর কোন বৈধ কাগজপত্র নেই। অবৈধ মাটি টানা ট্রাক্টর দাপিয়ে বেড়াচ্ছে ঝিনাইদহের ইটভাটাগুলোতে। বেপরোয়া গতিতে ট্রাক্টর চলাচলের কারণে ইতোমধ্যে বেশ কয়েকজন হতাহত হয়েছেন।

আমাদের ঝিনাইদহ সংবাদদাতা জানান, শনিবারও মহিদুল নামে ঝিনাইদহের এক ব্যক্তি মাটি টানা ট্রাক্টরের নিচে পড়ে নিহত হয়েছেন। এ নিয়ে ঝিনাইদহ ট্রাফিক পুলিশের কোন মাথা ব্যাথা নেই বলে অভিযোগ। নেই প্রতিরোধের কোন ব্যবস্থা। জানা গেছে, সারা জেলায় শাতাধীক মাটি টানা ট্রাক্টর দাপিয়ে বেড়াচ্ছে।
যশোর ও চুয়াডাঙ্গা থেকে ভাড়া নিয়ে এ সব মরণঘাতক যানবাহন নির্বিঘেœ চলাচল করছে। ইটভাটার কাজে ব্যবহৃত এ সব ট্রাক্টরগুলোর নেই কোন বৈধ কাগচপত্র। সবে য়ে ভয়ংকর বিষয় শিশু ও কিশোররা এ সব ট্রাক্টর চালাচ্ছে। তাদের কোন লাইসেন্স নেই। নেই দক্ষভাবে গাড়ি চালানোর অভিজ্ঞতা। বেপরোয়া গতিতে ট্রাক্টরগুলো গ্রামীন রাস্তাঘাটে চলছে। এতে প্রায় দুর্ঘটনা ঢ়টছে।
জানা যায়, রাস্তা রক্ষার জন্য ২০২০ সালের ৩ ডিসেম্বর ১৯৫২ সালের বিল্ডিং কনষ্ট্রাকশন এ্যক্টের ৩ ধারা মতে একটি পরিপত্র জারী করেন স্থানীয় সরকার বিভাগের (উন্নয়ন-২) উপ-সচিব জেসমিন পারভিন। ওই আইনের দন্ডবিধির ১৮৬০ এর ধারা ৪৩১ মোতাবেক সরকারী রাস্তার ক্ষতি সাধন ফৌজদারী দন্ডনীয় অপরাধ। এই আইনে ৫ বছরের কারাদন্ড, জরিমানা বা উভয় দন্ডে দন্ডিত হওয়ার বিধান রয়েছে। ফলে সরকারী রাস্তার ক্ষতি সাধন হয় এমন কাজ করা যাবে না। অথচ রহস্যজনক কারণে প্রশাসন এ ব্যাপারে পদক্ষেপ নিচ্ছে না।

ট্রাফিক পুলিশের পরিদর্শক সালাহউদ্দীন জানান, ইটভাটার মাটি টানা ট্রাক্টরের উপরে তাম্বু ফেলে মাটি টানার কথা। যাতে মাটি পাকা রাস্তার উপর না পড়ে। তিনি বলেন বিষয়টি জেলা ইটভাটা মালিক সমিতিকে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছিল। তারা ব্যবস্থা নিচ্ছেন না।
জেলা ইটভাটা মালিক সমিতির সভাপতি মাহমুদুল ইসলাম ফোটন জানান, সব ভাটা মালিকদের এই নির্দেশনা দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তারা মানছেন না। তিনি বলেন, আগে কিন্তু রাস্তায় মাটি পড়তো না। কারণ তখন ওভারলোড করতো না। এখন অধিক মুনাফা কারার জন্য ড্রাইভাররা ওভারলোড দিচ্ছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কাগজবিহীন ট্রাক্টর
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ