Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২৩ জুন ২০২১, ০৯ আষাঢ় ১৪২৮, ১১ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

অর্থনৈতিক সূচকে বাংলাদেশ অনন্য উচ্চতায় এগিয়ে গেছে

পোল্ট্রি মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২২ মার্চ, ২০২১, ১২:০০ এএম

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, এক সময় খাদ্যের অভাবে গ্রামে গ্রামে লঙ্গরখানা থাকত; এখন নেই। মানুষ বস্ত্রহীন থাকত; এখন আর এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া যাবে না। এভাবে চিকিৎসা, শিক্ষাসহ মানুষের সব মৌলিক অধিকারগুলো নিশ্চিত করা হয়েছে, যা বর্তমান সরকারের অবদান। তিনি বলেন, অর্থনৈতিক সূচকে বাংলাদেশ অনন্য উচ্চতায় এগিয়ে গেছে। বাংলাদেশের রিজার্ভ পার্শ্ববর্তী সব দেশের তুলনায় বেশি। এর কারণ গুড ম্যানেজমেন্ট। বর্তমান সরকার রেমিটেন্স পাঠালে প্রণোদনা দিচ্ছে। ১০০ টাকা বিদেশ থেকে পাঠালে তার পরিবার ১০২ টাকা পাচ্ছে। এ কারণে হুন্ডি করছে না কেউ। সবার টাকা রেমিট্যান্সে যোগ হচ্ছে।

গতকাল রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে ‘পোল্ট্রি মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড-২০১৯’-এর পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন মন্ত্রণালয়ের সচিব রওনক মাহমুদ এবং অতিথি ছিলেন প্রাণিসম্পদ অধিদফতরের মহাপরিচালক ডা. আব্দুল জব্বার শিকদার, মৎস্য অধিদফতরের মহাপরিচালক ডা. কাজী শামস আফরোজ এবং বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. মো. আব্দুল জলিল। এছাড়া টিভি টুডের এডিটর ইন চিফ মনজুরুল আহসান বুলবুল ও দৈনিক যুগান্তর সম্পাদক সাইফুল আলম অ্যাওয়ার্ডের জুরি বোর্ডের সদস্য হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।
শ ম রেজাউল করিম বলেন, গত দশ বছরে মানুষের গড় আয়ু ৬৫ বছর থেকে বেড়ে ৭৩ বছর হয়েছে। তা এমনিতে হয়নি, খাদ্য ও পুষ্টির নিশ্চয়তার পাশাপাশি মানুষ শান্তিতে বসবাস করছে বলেই আয়ু বাড়ছে। সরকারের একান্ত প্রচেষ্টায় সব ক্ষেত্রে সাফল্য এসেছে।
সচিব রওনক মাহমুদ বলেন, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাত বিগত যেকোনো সময়ের তুলনায় এখন বহুগুণ এগিয়েছে। তবে মাঝে মধ্যে ভুল ও অপপ্রচারের কারণে এ খাতের উদ্যোক্তাদের বড় ক্ষতি হয়। এ অপপ্রচার রোধে ও জনসচেতনতা বাড়াতে গণমাধ্যমের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।
বিপিআইসিসির সভাপতি মসিউর রহমান বলেন, সা¤প্রতিক সময়ে আন্তর্জাতিক বাজারে ফিড তৈরি কাঁচামালের দাম ৩০-৪০ শতাংশ বেড়েছে, ফ্রেইট খরচ দ্বিগুণ হয়েছে, বিগত প্রায় একবছর ব্রয়লার খামার ও ব্রিডার ফার্মগুলোকে উৎপাদন খরচের চেয়েও কম দামে মুরগি ও বাচ্চা বিক্রি করছে। করোনার ধকল কাটিয়ে উঠতে কয়েক বছর সময় লাগবে মন্তব্য করে তিনি বলেন, দেশীয় চাহিদা মিটিয়ে রফতানির জন্যও তারা প্রস্তুতি নিচ্ছেন। এজন্য দরকার দীর্ঘমেয়াদি কর কাঠামো এবং ২০৩০ সাল পর্যন্ত পোল্ট্রিখাতের জন্য কর অব্যাহতি সুবিধা। তিনি বলেন, পাটের ব্যাগে মৎস্য ও প্রাণিখাদ্যের মোড়কীকরণ বিজ্ঞানসম্মত নয়। এতে খাদ্যের গুণগত মান নষ্ট হয়, ছত্রাকের সংক্রমণে বিষক্রিয়াও দেখা দিতে পারে। পাটের ব্যাগের দাম পিপি ওভেন ব্যাগের চেয়ে অন্তত ৫ থেকে ৬ গুণ বেশি। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের কাছে বিষয়টি জানিয়েছে; কিন্তু কাজ হচ্ছে না। ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জরিমানাসহ নানাভাবে হয়রানির শিকার হচ্ছে।
মসিউর রহমান বলেন, মানুষের খাদ্যপণ্য না হলেও ফিড তৈরির ক্ষেত্রে তদারকির দায়িত্ব বিএসটিআইকে দেয়া হয়েছে। একই পণ্যে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ, বিএসটিআই দুটি সংস্থা তদারকি করতে পারে না। প্রাণিসম্পদ অধিদফতর, তথ্য মন্ত্রণালয়ের হাতে আইন ও বিধিমালা সবই আছে। মানসম্পন্ন ল্যাব আছে। তাছাড়া প্রায় ১০০ কোটি টাকা ব্যয়ে স¤প্রতি সাভারে একটি কোয়ালিটি ল্যাবও স্থাপিত হয়েছে। এরপরেও বিএসটিআইয়ে ফিড লাইসেন্স বাধ্যতামূলক করা হয়েছে সেটা বাতিল করা প্রয়োজন।
ফিড ইন্ডাষ্ট্রিজ অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ (ফিআব) এর সভাপতি বলেন, মৎস্য ও প্রাণিখাদ্যের বিএসটিআই মানসনদ নেয়া বিষয়ক সংকট ঘণীভ‚ত হচ্ছে।
ফিআব সাধারন সম্পাদক মো. আহসানুজ্জামান বলেন, পাটের ব্যাগে মৎস্য ও প্রাণিখাদ্যের মোড়কীকরণ বিজ্ঞানসম্মত নয়। এতে খাদ্যের গুণগত মান নষ্ট হয়, ছত্রাকের সংক্রমণে বিষক্রিয়াও দেখা দিতে পারে। পাটের ব্যাগের দাম পিপি ওভেন ব্যাগের চেয়ে অন্তত: ৫ থেকে ৬ গুণ বেশি। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়- বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের কাছে বিষয়টি জানিয়েছে; কিন্তু কাজ হচ্ছেনা।
ওয়ার্ল্ড’স পোল্ট্রি সায়েন্স অ্যাসোসিয়েশন-বাংলাদেশ শাখার সভাপতি আবু লুৎফে ফজলে রহিম খান বলেন, দেশিয় পোল্ট্রি শিল্প এন্টিবায়োটিক রেসিডিউমুক্ত ডিম ও মুরগির মাংসের উৎপাদন শুরু করেছে। উৎপাদন পর্যায়ে মান ও উৎকর্ষতা বিবেচনায় পোল্ট্রি শিল্প কতটা এগিয়েছে তা সরেজমিনে দেখতে সাংবাদিকদের একটি দল চলতি মাসে ফিড মিল, টেস্টিং ল্যাব এবং প্রসেসিং প্লান্ট ভিজিট করেছেন। এর আগে পোল্ট্রি ব্রিডার ফার্ম ও হ্যাচারি, কমার্শিয়াল লেয়ার ফার্ম, ব্রয়লার ফার্মেও সাংবাদিকদের নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। এ প্রক্রিয়া অব্যাহত থাকবে।
পোল্ট্রি মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড পেলেন ১৯ গণমাধ্যমকর্মী
বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী ও সচিবসহ জুরিবোর্ডের সদস্যরা। ‘দৈনিক সংবাদপত্র’ ক্যাটাগরিতে প্রথম পুরস্কার পান দৈনিক ভোরের কাগজের সিনিয়র রিপোর্টার মরিয়ম সেঁজুতি; দ্বিতীয় হন দৈনিক দেশ রূপান্তরের স্টাফ রিপোর্টার আব্দুল্লাহ আল মামুন; এবং তৃতীয় হন দি নিউজ টুডে’র সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার মাজহারুল ইসলাম মিচেল। ‘ঢাকার বাইরে থেকে প্রকাশিত সংবাদপত্রের প্রতিবেদন’ ক্যাটাগরিতে একমাত্র পুরস্কার লাভ করেন সাপ্তাহিক চৌদ্দগ্রাম এর নির্বাহী সম্পাদক এবং দৈনিক ফেনীর সময় এর চৌদ্দগ্রাম প্রতিনিধি মোঃ এমদাদ উল্যাহ। ‘টিভি ও রেডিও’ ক্যাটাগরিতে প্রথম পুরস্কার লাভ করেন- যমুনা টেলিভিশনের স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট সুশান্ত সিনহা। দ্বিতীয় হন চ্যানেল-২৪ এর কৃষি বিষয়ক প্রতিবেদক ফয়জুল সিদ্দিকী এবং তৃতীয় হন মোহনা টিভি’র স্টাফ রিপোর্টার তানজিলা নিঝুম।
বার্তা-সংস্থা/অন-লাইন ক্যাটাগরিতে একমাত্র পুরস্কার পান পরিবর্তন ডটকম এর স্টাফ রিপোর্টার, বর্তমানে বৈশাখী টেলিভিশনের স্টাফ রিপোর্টার মো. তাসলিমুল আলম তৌহিদ। ‘পোল্ট্রি ও কৃষি বিষয়ক ম্যাগাজিন/অনলাইন’ ক্যাটাগরিতে একমাত্র পুরস্কার লাভ করেন এগ্রিনিউজ২৪.কম এর সম্পাদক মো. খোরশেদ আলম (জুয়েল)।#



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী


আরও
আরও পড়ুন