Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ০৪ আষাঢ় ১৪২৮, ০৬ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

নারী নয়, আসলে মাঝবয়সি এক পুরুষ!

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২২ মার্চ, ২০২১, ৫:৩৭ পিএম

সোশ্যাল মিডিয়ায় ফ্যান ফলোয়ার বাড়তে কত মানুষ কত কিছুই না করেন। আজুসাগাকুয়ুকি নামের জাপানি এক বাইকার যা করলেন তেমনটা মনে হয় আগে কখনও হয়নি। সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতেই তার সব রহস্য ফাস হয়ে গেল।

টুইটারে আজুসাগাকুয়ুকি একটি অ্যাকাউন্ট রয়েছে। সেখানে ছবি দেখলে মনে হবে সেটি সত্যিই কোনও মহিলা বাইকারের অ্যাকাউন্ট। যিনি বাইক নিয়ে ঘুরে বেড়ান আর একের পর এক ছবি পোস্ট করেন ফ্যানদের জন্য। আর এমন সুন্দরী এক বাইকারের ছবি হাজারে হাজারে লাইক পাবে সেটাই স্বাভাবিক। তা পেতে কোনও সমস্যাও হয়নি এত দিন। একের পর এক ছবির হাত ধরে দিনে দিনে তার ফ্যান ফলোয়ারের সংখ্যাও বাড়ছিল। এখন তার টুইটার আক্যাউন্টে ২০ হাজারের বেশি ফলোয়ার। কিন্তু সম্প্রতি সেই ফলোয়াররা কার্যত হতাশ হয়ে পড়েন। কারণ যাকে তারা একজন সুন্দরী মহিলা বলে চিনতেন তিনি আসলে বছর পঞ্চাশের এক প্রৌঢ়। আর সেই রহস্য উদঘাটিত হয় তারই পোস্ট করা একটি ছবিতে।

সম্প্রতি এই বাইকার তার টুইটারে এমন একটি ছবি পোস্ট করেন যেখানে ফোকাসে পরিচিত সুন্দর মহিলার মুখটিই ভেসে উঠেছে। কিন্তু বাইকের ভিউ ফাইন্ডারের আয়নায় এক মাঝ বয়সি পুরুষের মুখ দেখা যায়। আর সেই ছবি দেখে অনেকের সন্দেহ হয়, সামনে যে মহিলার ছবি দেখা যাচ্ছে সেটি সম্ভবত ভুয়া। আয়নায় ধরা পড়া মুখটিই আসল। যাকে কোনও ভাবে পরিবর্তন করে মহিলার ছবি বলে চালানো হচ্ছে। এই অভিযোগ ওঠার পরই খোঁজ খবর শুরু হয়ে যায় ওই ‘মহিলা’ বাইকারের পরিচয় বার করতে। শেষে জানাও যায় জাপানি এই বাইকার আসলে একজন পুরুষই। শেষ পর্যন্ত তার সঙ্গে যোগাযোগও করা সম্ভব হয়। ধরা পড়ার পর তিনি আর নিজেকে লুকিয়ে রাখতে পারেননি।

জাপানি এই পুরুষ বাইকার জানিয়েছেন, প্রথমে তিনি তার আসল ছবিই দিতেন। কিন্তু সেই ছবি বেশি লাইক পেত না টুইটারে। শেষে মজা করার জন্য ‘ফেসঅ্যাপ’-এর সাহাজ্যে নিজের মুখ, কম বয়সি মহিলার মতো বানিয়ে পোস্ট করেন। কিছুক্ষণের মধ্যেই তা হাজারখানেক ‘লাইক’ পেয়ে যায়। এর পর তিনি বিষয়টি নিয়ে বেশ মজাই পেয়ে যান। তার পর থেকে মহিলা সেজে একের পর এক ছবি পোস্ট করতে থাকেন আর হু-হু করে বাড়তে থাকে তার ফলোয়ারের সংখ্যাও। সূত্র: ডেইলি মেইল।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জাপান


আরও
আরও পড়ুন