Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ০৪ জৈষ্ঠ্য ১৪২৮, ০৫ শাওয়াল ১৪৪২ হিজরী

শরীয়তপুরের গোসাইরহাটে মাদ্রাসা ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে মামলা

শরীয়তপুর জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৩০ মার্চ, ২০২১, ১:৫৯ পিএম

শরীয়তপুরের গোসাইরহাটে গামছা দিয়ে মুখ বেঁধে কলা বাগানে তুলে নিয়ে ষষ্ঠ শ্রেণির এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে গোসাইরহাট থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। গত রোববার (২৮ মার্চ) নির্যাতিতার মা বাদী হয়ে গোসাইরহাট থানায় মামলাটি দায়ের করেন। স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ১২ বছর বয়সী শিশু মেয়েটিকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও ছাত্রীর পরিবার সূত্রে জানা যায়, গত শুক্রবার ওই শিক্ষার্থীকে বাড়িতে একা রেখে পাশের গ্রামে যায় পরিবারের সদস্যরা। বিল থেকে ছাগল আনতে যাওয়ার সময় পাশের চুন্নু বেপারী ছেলে বখাটে কাউছার বেপারী ওই ছাত্রীকে মুখ চেপে ধরে পাশের কলা বাগানে নিয়ে যায়। সেখানে গামছা দিয়ে মুখ বেঁধে তাকে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। পরে মেয়েটি বাড়ি ফিরে ঘটনাটি পরিবারের সদস্যদের জানায়। পরিবারের সদস্যরা প্রথমে কাউছারের পরিবার ও পরে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের জানান।

ধর্ষিতার মা ও মামলার বাদী বলেন, আমার মেয়েকে তুলে নিয়ে কাউছার জোরপূর্বক ধর্ষণ করেছে। স্থানীয় মুরব্বিদের জানিয়ে এক সপ্তাহেও কোন সমাধান না পেয়ে বিচারের দাবীতে থানায় মামলা দায়ের করেছি। আমি আসামীর সর্বোচ্চ শাস্তি দাবী করছি।

গোসাইরহাট থানার অফিসার ইনচার্জ মোল্লা সোয়েব আলী বলেন, ধর্ষণের অভিযোগে ধর্ষিতার মা বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছে। আসামীকে গ্রেফতারের জোরচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ধর্ষণ মামলা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ