Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ২০২১, ১৪ শ্রাবণ ১৪২৮, ১৮ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে হঠাৎ জোয়ারের পানিতে প্লাবিত নিম্নাঞ্চল

রামগতি (লক্ষ্মীপুর) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২ এপ্রিল, ২০২১, ১২:১০ পিএম

হঠাৎ জোয়ারের পানিতে প্লাবিত হয়েছে লক্ষ্মীপুরের রামগতি উপজেলার নিম্নাঞ্চল।এতে রবি ফসল সয়াবিন-বাদাম ও মরিচের ব্যাপক ক্ষতির আশংকা এলাকাবাসীর। আবহাওয়ার বিরূপ প্রভাবে প্রবল বাতাস বয়ে যাচ্ছে এসব এলাকায়। মেঘনানদীর ব্যাপক উত্তালের ফলে জোয়ারের পানিতে রামগতির উপকূলীয় এলাকা প্লাবিত হয়েছে।প্রবল বাতাসের ঢেউয়ের আঘাতে নদীর ভাঙ্গনও বেড়েছে বহুগুণ। ধারণা করা হচ্ছে এভাবে প্রতিদিন জোয়ারের পানি বাড়তে থাকলে পরিস্থিতি আরো ভয়াবহ হতে পারে।স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানাগেছে,উপজেলার চরগাজী ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের বেঁড়ি বাঁধের উপর সুইচ গেইটটির তালা ভেঙ্গে জোয়ারের পানি ঠুকে শত শত পরিবার এখন পনিবন্ধি রয়েছে।বেশ কয়েকটি পুকুর ডুবে গেছে।পুকুরের মাছ চলে গেছে নদীতে। সুইস গেইট টি অতিদ্রুত সংস্কারের দাবী এলাকাবাসীর।এদিকে জোয়ারের প্রভাবে নদী ভাঙ্গন কবলিত এলাকা পরিদর্শনে যান রামগতি উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান রাহিদ হোসেন,তিনি চরআলগী ইউনিয়ন সহ কয়েকটি এলাকা পরিদর্শন করেন।এ সময় সাথে ছিলে চরআলগী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাকির হোসেন লিটন চৌধুরী।হঠাৎ সুইচ গেইটের তালা ভেঙে অস্বাভাবিক ভাবে জোয়ারের পানি বেড়ে গিয়ে প্লাবিত হয় রামগতি উপজেলার মেঘনানদীর তীরবর্তী শত-শত মানুষের ঘর বাড়ি।ভেসে যায় মৎস্য ঘের।ক্ষতি গ্রস্থ হয রাস্তা-ঘাট,বাজার,স্কুল কলেজ,মাদ্রাসা সহ আরো গুরত্বপূর্ণ স্থাপনা।এর ফলে উপকূলীয় এলাকার এই মানুষগুলোর কষ্ট আর দূরাবস্থার যেন কমতি নেই।এমনিতেই নদী ভাঙ্গনের কবলে পড়ে প্রায় সর্বস্ব উপকূলীয় এলাকা রামগতি।এর মধ্যে সুইচ গেইটের তালা ভেঙে আবার নদীর পানি ঠুকে এমন অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে।নদী ভাঙ্গন কবলিত রামগতির মানুষগুলোর প্রাণের দাবী স্বপ্নের বেড়ীবাঁধের বাকি অংশের কাজটুকু বাস্তবায়নের জন্য সরকারের দিকে তাকিয়ে আছে এলাকাবাসী।
অতি দ্রুত নদী বাঁধের কাজ সম্পন্ন না হলে অচিরেই বাংলাদেশের মানচিত্র থেকে হারিয়ে যাবে রামগতি নামের উপজেলাটি।

চরগাজী ইউপি চেয়ারম্যান তাওহিদুল ইসলাম সুমন বলেন,তালা ভেঙে পানি প্রবেশ করে মানুষের ফসলের কিছু ক্ষতি হয়েছে।বিষয়টি আমরা পানি উন্নয়ন বোর্ডকে অবহিত করেছি।

রামগতি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আব্দুল মোমিন বলেন,উপজেলা চেয়ারম্যান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে,আমরা উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কিছু ত্রাণ সামগ্রী পাঠাবো।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বন্যা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ