Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৪ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

জর্ডানে অভ্যুত্থানের অভিযোগে সাবেক ক্রাউন প্রিন্স গৃহবন্দী

আমেরিকাসহ পশ্চিমাপন্থী দেশগুলির সমর্থন

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৫ এপ্রিল, ২০২১, ১২:০১ এএম

জর্ডানের বাদশাহকে ক্ষমতাচ্যুত করার অভিযোগকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত পরিস্থিতিতে আমেরিকা সহ মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশ বাদশা দ্বিতীয় আবদুল্লাহর প্রতি সমর্থন জানিয়েছে। বিশেষ করে সউদী আরব, মিশর, বাহরাইন, লেবাননসহ অনেক দেশ তার প্রতি সমর্থন জ্ঞাপন করেছে। অভ্যুত্থানের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে সাবেক ক্রাউন প্রিন্স, উচ্চ পদস্থ কিছু কর্মকর্তাসহ প্রায় ২০ জনকে।
এ প্রসঙ্গে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নেড প্রাইস এক ইমেইলে বলেছেন, ‘জর্ডানের বিষয়ে ঘনিষ্ঠভাবে নজরদারি করছি আমরা। একই সঙ্গে জর্ডানের কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ অব্যাহত রাখছি। আমেরিকার একজন গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার হলেন বাদশা আবদুল্লাহ। তার প্রতি আমাদের পূর্ণ সমর্থন রয়েছে।’ সউদী আরব এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘বাদশা আবদুল্লাহ, ক্রাউন প্রিন্স দ্বিতীয় আল হোসেন বিন আবদুল্লাহ দেশের নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতার জন্য যেসব পদক্ষেপ নেবেন এবং সিদ্ধান্ত নেবেন, তার প্রতি পূর্ণ সমর্থন রয়েছে সউদী আরবের।’ মিসরের প্রেসিডেন্টের এক মুখপাত্র ফেসবুকে লিখেছেন, ‘জর্ডানের বাদশা আবদুল্লাহর প্রতি সমর্থন প্রকাশ করছে মিসর। একই সঙ্গে রাষ্ট্রের মর্যাদাকে অবনমনের যেকোনো উদ্যোগের বিরুদ্ধে নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতায় তার পদক্ষেপে মিসরের সমর্থন রয়েছে।’
বাহরাইনের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা বিএনএ রিপোর্ট করেছে, ‘বাহরাইনের বাদশা হামাদ বিন ইসা আল খলিফা নিশ্চিত করেছেন যে, জর্ডানের বাদশা আবদুল্লাহ দ্বিতীয় ইবনে আল হোসেন দেশের নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা রক্ষায় যে সিদ্ধান্ত ও পদক্ষেপ নেবেন তার প্রতি পূর্ণ সমর্থন রয়েছে।’ পারস্য উপসাগরীয় সহযোগিতা পরিষদও পূর্ণাঙ্গ সমর্থন প্রকাশ করেছে জর্ডানের বাদশার প্রতি। প্রায় একই রকম বিবৃতি প্রকাশ করেছে লেবানন, কুয়েত, ইরাক, কাতার, ইয়েমেন, ফিলিপিন্স, আরব লীগ ও সংযুক্ত আরব আমিরাত।
এর আগে, শনিবার প্রকাশিত এক ভিডিও বার্তায় নিজেকে গৃহবন্দী বলে দাবি করেন জর্ডানের বাদশাহ আবদুল্লাহ বিন হুসাইনের সৎ ভাই ও দেশটির সাবেক ক্রাউন প্রিন্স শাহজাদা হামজা বিন হুসেইন। তিনি জানান, অভ্যুত্থানের মাধ্যমে বাদশাহকে ক্ষমতাচ্যুত করার ষড়যন্ত্রের অভিযোগে তাকে গৃহবন্দী করে রাখা হয়েছে। ষড়যন্ত্রে যুক্ত থাকার অভিযোগে রাজ পরিবারের সদস্য শরিফ হাসান বিন জায়েদ ও জর্ডানের সাবেক অর্থ ও পরিকল্পনামন্ত্রী বাসেম ইবরাহীম আওয়াদাল্লাহসহ অন্তত ২০ জনকে শনিবার আটক করা হয়েছে বলে জানা যায়। তবে, শনিবার জর্ডানের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা পেট্রায় শনিবার প্রকাশিত এক সংবাদে জানানো হয়, নিরাপত্তাজনিত কারণে হাসান বিন জায়েদ ও বাসেম ইবরাহীম আওয়াদাল্লাহসহ অন্যদের আটক করা হয়েছে। তবে ওই সংবাদে সাবেক যুবরাজকে গৃহবন্দী বা আটক করার দাবিকে অস্বীকার করা হয়।
নিরাপত্তা বাহিনীর বরাত দিয়ে পেট্রার সংবাদে জানানো হয়, কিছু সংবাদমাধ্যমের দাবি অনুযায়ী শাহজাদা হামজা বিন হুসেইনকে গৃহবন্দী বা আটক কিছুই করা হয়নি। তবে জর্ডানের নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতায় আঘাত করতে পারে, এমন পদক্ষেপ ও কার্যক্রম বন্ধের জন্য শাহজাদা হামজাকে অনুরোধ করা হয়েছে।
এদিকে, ব্রিটেনভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম বিবিসির কাছে শাহজাদা হামজা বিন হুসেইনের আইনজীবীর হস্তান্তর করা ভিডিও বার্তায় তিনি জানান যে, ‘(জর্ডানবাসীর) কল্যাণকে এমন শাসনব্যবস্থার অধীনে দ্বিতীয় পর্যায়ে রাখা হয়েছে যেখানে তার ব্যক্তিগত স্বার্থ, অর্থনৈতিক স্বার্থকে বেশি গুরুত্ব দেয়া হয়, এই ভূখন্ডে বাস করা এক কোটি মানুষের জীবন, সম্মান ও ভবিষ্যতের চেয়ে তার দুর্নীতিকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ মনে করা হয়।›
ভিডিও বার্তায় তিনি জানান, সশস্ত্র বাহিনীর প্রধান, পুলিশ প্রধান ও নিরাপত্তা বাহিনীর প্রধান তাকে সতর্ক করে যে, তিনি তার ঘর ছেড়ে বের হতে পারবেন না। তিনি শুধু তার পরিবারের সাথে সাক্ষাত করতে পারবেন, কোনো টুইট করতে পারবেন না এবং অন্য কারো সাথে কোনো প্রকার যোগাযোগ করতে পারবেন না।
উল্লেখ্য, জর্ডানের সাবেক বাদশাহ হুসেইন বিন তালাল ১৯৯৯ সালের ফেব্রæয়ারিতে ক্যান্সারে দীর্ঘদিন রোগভোগের পর ইন্তেকাল করলে বর্তমান বাদশাহ আবদুল্লাহ বিন হুসেইন সিংহাসনে বসেন। এই সময় তিনি তার সৎভাই হামজা বিন হুসেইনকে ক্রাউন প্রিন্স হিসেবে নিয়োগ দেন। পরে ২০০৪ সালে এই মর্যাদা শাহজাদা হামজার কাছ থেকে কেড়ে নেয়া হয়। ওই সময় বাদশাহ আবদুল্লাহ বিবৃতিতে জানান, তিনি শাহজাদা হামজাকে দায়িত্ব মুক্তি দিচ্ছেন যাতে তিনি (শাহজাদা হামজা) কাজের স্বাধীনতা পান এবং বাদশাহর দেয়া যেকোনো মিশন বা দায়িত্ব স্বাচ্ছন্দ্যের সাথে তিনি পালন করতে পারেন।
বর্তমানে জর্ডানের ক্রাউন প্রিন্স হিসেবে বাদশাহ আবদুল্লাহর বড়ছেলে, ২৬ বছর বয়সী তরুণ শাহজাদা হুসেইন বিন আবদুল্লাহ দায়িত্ব পালন করছেন। সূত্র : লস এঞ্জেলেস টাইম্স, মিডল ইস্ট মনিটর।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জর্ডান


আরও
আরও পড়ুন